September 23, 2018

পাগড়ির কারণে বিমানে ওঠতে বাধা!

161
ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ  মাথায় পাগড়ি থাকার কারণে একজন শিখ ধর্মাবলম্বীকে নিউইয়র্কগামী বিমানে উঠতে দেয়নি মেক্সিকোর একটি বিমান পরিবহণ সংস্থা। মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটিতে সোমবার এই বর্ণবৈষ্যমের ঘটনাটি ঘটেছে বেলে এনডিটিভি জানিয়েছে।

সোমবার ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন অভিনেতা ওয়ারিশ আহলুওয়ালিয়া তার ইন্সাটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, ‘আজ সকালে পাগড়ির কারণে আমি মেক্সিকো সিটি থেকে নিউইয়র্কগামী বিমানে ওঠতে পারিনি।’

ঘটনার দিন মেক্সিকো সিটির আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর টারম্যাকে দাঁড়িয়েছিল নিউইয়র্কগামী এরোমেক্সিকোর একটি বিমান। এক এক করে যাত্রীরা বিমানে উঠছেন। বিমানে ওঠার জন্য দাঁড়িয়েছিলেন ৪১ বছরের  ওই অভিনেতাও। মার্কিন মুলুকে একেবারে অপরিচিত নন ওয়ারিশ। ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে খ্যাতি আছে তার। নিউইয়র্ক ফ্যাশন উইকে যোগ দিতেই তিনি সেখানে যাচ্ছিলেন। এ ছাড়াও অস্কারে মনোনয়ন পাওয়া ‘গ্র্যান্ড বুদাপেস্ট হোটেল’ ছবিতেও অভিনয় করেছেন ওয়ারিশ। এরকম একজন পরিচিত ব্যক্তিকেই বিমানে উঠতে দিতে অস্বীকার করে মেক্সিকান বিমান পরিবহণ সংস্থা এরোম্যাক্স।

কারণ আর কিছুই না, স্রেফ ধর্মীয় কারণেই তিনি বর্ণ বৈষম্যের শিকার হন। শিখ ধর্মাবলম্বী ওয়ারিশের মাথায় ছিল পাগড়ি। তাকে পাগড়ি খুলতে বলেন এরোম্যাক্স কর্তৃপক্ষ। কিন্তু পাগড়ি খুলতে রাজি হননি ওয়ারিশ। ফলে তাঁকে বিমানে উঠতে দেয়া হয়নি। বিমান সংস্থাটি জানিয়েছে, নিরাপত্তার খাতিরে মার্কিন প্রশাসনের নিয়ম অনুসারে তারা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে এই ঘটনার কথা জানাজানি হওয়ার পর ক্ষোভে ফেটে পড়ে শিখ সম্প্রদায়। বিপদে পরে ঘটনার জন্য ক্ষমা চায় এরোম্যাক্স সংস্থা। তবে বিমানে ওঠতে না পারায় সময় মতো নিউইয়র্ক ফ্যাশন উইকে হাজির হতে পারেননি ওয়ারিশ।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts