November 16, 2018

‘পাকিস্তান সরকারের ষড়যন্ত্র-চক্রান্তের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে’


রিপন হোসেন
ঢাকা থেকেঃ
আজ সকাল ১১টায় গুলশান ২ নম্বর গোল চত্বর হতে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় কমিটি ও আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের উদ্যোগে “৭১’র যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষাবলম্বন করে পাকিস্তান সরকারের উস্কানীমূলক বক্তব্যের প্রতিবাদে পাকিস্তান দূতাবাস ঘেরাও ও বিক্ষোভ সমাবেশ” কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি পাকিস্তান দূতাবাসের দিকে অগ্রসর হতে চাইলে ২ নম্বর গোল চত্বরের কাছেই কাটা তারের ব্যারিগেট দিয়ে আটকে দেওয়া হয়। সেখানে বিপুল সংখ্যক বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের উদ্যেশ্যে-

ক্যাপ্টেন অবঃ এবি তাজুল ইসলাম বলেন, ১৯৭১ সালে পাকিস্তান হায়নাদার বাহিনী এদেশে হত্যা, গুম, লুন্ঠন, নারীদের ইজ্জত লুন্ঠন করেছেন। তাদের বিচার যখন শুরু হয়েছে তখন থেকে অধ্যাবদি পর্যন্ত তারা এই বিচারের বিপক্ষে অবস্থান গ্রহন করেছেন। ইদানিং তাদের অবস্থান আরো জোড়ালো হয়েছে। পাকিস্তান সরকারের চক্রান্ত ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আমাদের প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। তারা যেন যুদ্ধাপরাধীর বিচার নিয়ে আর কোন নতুন ষড়যন্ত্রে নিপ্ত হতে না পারে সে জন্য সদাসর্বদা সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

এ্যাড. রহমাতউল্লা বলেন,  পাকিস্তান ৭১ সালে পরাজিত হয়েছে, এখনও বার বার পরাজিত হচ্ছে। ভবিষ্যতেও আমাদের কাছে পরাজিত হবে।

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় কমিটির সভাপতি হারুন অর-রশিদ এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় কমিটির মহাসচিব শফিকুল বাহর মজুমদার টিপু, আলহাজ্ব শরিফ উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন পাহাড়ী বীর প্রতিক, মোঃ মমিনুল ইসলাম, আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান এর কেন্দ্রীয় সভাপতি মোঃ হুমায়ূন কবির, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম নয়ন, ঢাকা মহানগরের সভাপতি মোঃ নুরুজ্জামান ভূট্ট, সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাজাহান রিজভী, কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহপরান সিদ্দিক তারেক, কেন্দ্রীয় নেতা মোঃ বেলাল হোসেন, ঢাকা মহানগরের শাহীন সহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ৮ মে ২০১৬

Related posts