November 15, 2018

পরীক্ষায় ফার্স্ট না হওয়ায় শিক্ষিকাকে কিল-ঘুষি মারলো অভিভাবক

ঢাকাঃ পরীক্ষায় ফার্স্ট, সেকেন্ড কিংবা থার্ড হতে না পারায় এক শিক্ষার্থীর কয়েক অভিভাবক ক্ষুব্ধ হয়ে শিক্ষকদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে ওই শিক্ষার্থীর মার্কশিট ছিঁড়ে ফেলেন অভিভাবকরা। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় এক শিক্ষিকাকে কিল-ঘুষি মেরে আহত করেছেন ওই শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা।

শনিবার (২০ আগস্ট) দুপুরে পিরোজপুর সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ৪৫নং ওদোনকাঠী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত শিক্ষিকা মিতালী খানমকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সরোয়ার হোসেন জানান, আজ (শনিবার) দুপুরে বিদ্যালয়ে প্রথম শ্রেণীর দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ওই শ্রেণীর ছাত্রী জেমী খানম পরীক্ষায় কেন প্রথম, দ্বিতীয় কিংবা তৃতীয় হলো না-এ নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সাথে বাক বিতাণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন ছাত্রী জেমীর মা ফারজানা আক্তার শিমু ও নানী মাহমুদা বেগম। এ সময় জেমীর মা ক্ষুব্ধ হয়ে জেমির মার্কশিট টেনে ছিঁড়ে ফেলে দেয়। শিক্ষকরা এর প্রতিবাদ করলে জেমীর মা ফারজানা আক্তার শিমু ও নানী মাহমুদা বেগম দুজনে মিলে স্কুল শিক্ষিকা মিতালী খনমকে (৩০) কিল ঘুষি দিয়ে এবং দেয়ালের সাথে আঘাত করে গুরুতর আহত করে।

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান, ঘটনার বিষয়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটিরি সভাপতি মৌখিকভাবে এসে থানায় জানানোর পরে পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তিনি জানান, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Related posts