November 17, 2018

পদ্মা সেতু রেল সংযোগের জন্য ৮৬ একর ভূমি অধিগ্রহণের সিদ্ধান্ত

421
আয়েশ আক্তার রুবি,বিশেষ সংবাদদাতাঃ  ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বলেন, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে সরকার আন্তরিক রয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা একক সিদ্ধান্তে বিদেশী সাহায্য ছাড়াই বহুল প্রত্যাশিত স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

পদ্মা সেতুর সাথে রেলসংযোগ স্থাপন হলে দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থায় এক ঐতিহাসিক মাত্রা যোগ হবে। তিনি রেল সংযোগসহ পদ্মা সেতু প্রকল্পের কার্যক্রম দ্রুত শেষ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা চান।

গত ১৬ ফেব্রুয়ারি ভূমি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে কেন্দ্রীয় ভূমি বরাদ্দ কমিটির ১০৬ তম সভায় সভাপতির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সভায় সারাদেশে ১৯২.১৭ একর জমি অধিগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এর মধ্যে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের আওতায় ঢাকা ও নারায়নগঞ্জে ৮৬.৮১৭৭ একর ভূমি রয়েছে।

ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এর সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যের মধ্যে ভূমি সচিব মেছবাহ উল আলম, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব ফিরোজ সালাহউদ্দিন, রাজউক এর চেয়ারম্যান জি.এম. জয়নাল আবেদীন ভূইয়া, বাংলাদেশ রেলওয়ের ডিজি আজমল হোসেন, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এস.এম. আরিফ-উর-রহমান, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী গোকুল কৃষ্ণ ঘোষ, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দিন, রাজউক এর প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ সিরাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

পদ্মা সেতু প্রকল্পটি সরকারের ফাস্ট ট্রাক প্রজেক্ট হিসেবে বিবেচিত। সভায় নারায়নগঞ্জ জেলার ১৫.৮৭৪১ একর এবং ঢাকা জেলার ৭০.৯৪৩৬ একর ভূমি অধিগ্রহণ অনুমোদিত হয়। এছাড়া রাজউক এর অনুকূলে কুড়িল পূর্বাচল লিংক রোডের উভয় পার্শ্বে ১০০ ফুট চওড়া খাল খনন ও উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওতায় জেলা স্থান নির্বাচন কমিটির অনুমোদন এবং প্রকল্প বাস্তবায়নের অর্থ বরাদ্দ সাপেক্ষে জোয়ার সাহারা, বরুয়া, ডুমনি ও মাস্তুল মৌজায় প্রস্তাবিত ৯১.৬৬১৭ একর ভূমি অধিগ্রহণ মঞ্জুর হয়।

সভায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ভবন সম্প্রসারণ, পাওয়ার গ্রীড কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড কর্তৃক কেরানীগঞ্জ ২৩০/১৩২/৩৩ কেভি জিআইএস গ্রীড উপকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প, ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড কর্তৃক ঢাকা জেলার চরকামরাঙ্গী মৌজায় ৩৩/১১ কেভি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প, ঢাকা ওয়াসা এর অনুকূলে সায়েদাবাদ পানি শোধনাগার ফেজ প্রকল্প, বরিশাল সদর উপজেলার শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত ট্রাক টার্মিনাল স্থাপন প্রকল্প, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন রাস্তা ও অবকাঠামোদিও সুবিধার উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় টুটপাড়া কবরস্থান সম্প্রসারণ এবং খুলনা সিটি কর্পোরেশনের আওতায় এসব ভূমি অধিগ্রহণ করা হয়।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts