November 19, 2018

নৌকায় আইভী, নীরব শামীম

আগামী ২২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকা নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে মনোনীত হয়েছেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। আর এতে অনেকটা নীরব হয়ে পড়েছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর কাছে নৌকা নিয়ে পরাজিত হয়েছিলেন শামীম ওসমান। পরে ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন শামীম ওসমান। এবারের নির্বাচনে শামীম ওসমান প্রার্থী না হলেও ‘শামীম অনুসারী’ হিসেবে পরিচিতরা প্রার্থী হয়েছিলেন।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান ও বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ রশিদ- এই তিনজনের মধ্য থেকে প্রার্থী মনোনয়ন দিতে স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের কাছে সুপারিশ পাঠানো হয়।

এদিকে শুক্রবার রাতে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় দলীয় প্রার্থী হিসেবে ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে মনোনীত করা হয়। এরপর থেকেই অনেকটা নীরব হয়ে আছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়ে জানিয়েছেন কথা বলতে পারবেন না।

অপরদিকে রোববার রাতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের সাধারণ সম্পাদককে নারায়ণগঞ্জের নির্বাচনকে সামনে রেখে স্থানীয় নেতাদের বিরোধ মেটাতে কথা বলার নির্দেশ দেন বলে দলীয় সূত্রে জানা যায়।

দলীয় সূত্র মতে, সোমবার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের একজন প্রভাবশালী নেতার বাসায় দলীয় প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী ও শামীম ওসমানকে নিয়ে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বৈঠক করেছেন বলে জানা গেছে।

বৈঠক সম্পর্কে আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা বলেছেন, দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার ইঙ্গিত দিয়েছেন বলে দলীয় সূত্রগুলো দাবি করেছে।

তবে বৈঠকের বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ও নাসিক মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বৈঠকের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন, আমাকে এ ধরনের কোনো বৈঠকে ডাকা হয়নি।

আওয়ামী লীগের দুজন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আইভীকে দলীয় সভানেত্রী মনোনয়ন দিয়েছেন। সেখানে যারা আওয়ামী লীগ করবে সবারই দলীয় প্রার্থীর পক্ষেই কাজ করতে হবে। দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে যে-ই অবস্থান নেবে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গকারী কোনো বিশেষ ব্যক্তি বা পরিবারের হলেও সাংগঠনিক শাস্তি থেকে রক্ষা পাবে না।

দলটির এক সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, নারায়ণগঞ্জে বর্তমান মেয়রকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সেখানকার সংসদ সদস্য তো এখনও বলেননি যে, তিনি দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবেন না। মূলত কিছু না বলে একটা দর-কষাকষি করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এখানে দলীয় সিদ্ধান্ত ভঙ্গের সুযোগ নেই।

আওয়ামী লীগের দুইজন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য ও মেয়র প্রার্থীকে ডেকে পাঠিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। সেখানেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে বলেও জানিয়েছেন তারা।

Post source : আগামী ২২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকা নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে মনোনীত হয়েছেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। আর এতে অনেকটা নীরব হয়ে পড়েছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

Related posts