September 21, 2018

নেত্রকোনা হাওরাঞ্চলের সার্বিক উন্নয়ন করবে সরকার–শেখ হাসিনা

নেত্রকোনা প্রতিনিধি : প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনা বলেছেন, ক্ষতিগ্রস্থ্য নেত্রকোনা হাওরাঞ্চলের সার্বিক উন্নয়ন করবে সরকার লক্ষে কাজ চলছে হাওর রক্ষায় উপযুক্ত বন্যা প্রতিরোধক বেড়িবাঁধ করা হবে নদী খাল খনন করা হবে যাতে পানি ধারণ ক্ষমতা বাড়ে মাছের উৎপাদন বাড়ানো হবে মাছের প্রক্রিয়াজত করণ, বাজারজাত করণের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে

প্রধানমন্ত্রী কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে বলেন, হাওরাঞ্চলে শুধু  ধান চাষ করলে চলবে না। এখানে হাস, মুরগী পালন,মাছের চাষ,সবজি উৎপাদন করতে হবে। কৃষি উপকরণ পেতে কৃষকদের সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। কৃষকেরা যাতে ক্ষতিগ্রস্থ না হন তার জন্যে অল্প সময়ে ফসল উৎপাদনে গবেষণাগারে কাজ চলছে।

তিনি বৃহস্পতিবার দুপুরে নেত্রকোণার খালিয়াজুরী ডিগ্রী কলেজ মাঠে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করার আগে দেয়া বক্ত্যব্যে এসব কথা বলেন। এ সময় কৃষি মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী,যোগাযোগ ও সড়ক মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের , খাদ্য মন্ত্রী কামরুল ইসলাম, পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিসুল হক বক্তব্য দেন।

প্রধানমন্ত্রী আরো  বলেন, এই হাওরাঞ্চলে বন্যা দেখা দেয়ার খবর পাওয়ার সাথে সাথে সব মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেই, কেউ যেন না খেয়ে দিনযাপন না করে। কেউ যেন গৃহহারা না থাকেন। হত দ্ররিদ্রদের মাঝে ভিজিএফের মাধ্যমে সহায়তা দেয়া হচ্ছে। এ সহায়তা আগামী বোর ফসল কৃষকের গোলায় না উঠা পযন্ত চলবে।খাদ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ১০টাকায় ৫০ লাখ মানুষের মাঝে চাল দেয়া হচ্ছে।

তিনি সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর নেত্রকোণা আওয়ামীলীগ নেতাদের হত্যা, নির্যাতন, অত্যাচারের ফিরিস্তি  দিয়ে বলেন, বিএনপি নেত্রী বাবরের মত চোরাকারবারি, কেসিওর চোরাকারবারিকে নেতা, মন্ত্রী বানান। বানরের হাতে লাঠি তুলে দেন বলে মনবতব্য করেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ায় আবারো সরকার গঠনে সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন। পরে তিনি নগর ইউনিয়নের বল্লভপুর গ্রামে যান এবং সেখানে ত্রাণ বিতরণ করেন। শেষে প্রধানমন্ত্রী খালিয়াজুরী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে সরকারি দপ্তর, জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময়সভা করেন।

Related posts