September 18, 2018

নেতাকে ম্যানেজ করে ছাত্রলীগের মিছিলে ছাত্রী নির্যাতনে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ বদররুদ্দোজা

ঢাকাঃ  ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনে অভিযুক্ত কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বদররুদ্দোজা দীর্ঘ ৪৪ দিন পর কলেজে ফিরেছেন। শনিবার দুপুরে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মিছিল সহকারে তাকে পাহারা দিয়ে ক্যাম্পাসে আনেন। এ ঘটনার পর থেকে ক্যাম্পাসে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ক্ষুদ্ধ শিক্ষকরাও।

একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী নিশ্চিত করেছেন, দুপুরে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা কুষ্টিয়া সরকারী কলেজ ক্যাম্পাসের বাসভবন থেকে একটি সংবর্ধনা মিছিলসহ অধ্যক্ষকে নিয়ে তার কার্যালয়ে বসিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে অধ্যক্ষকে কার্যালয়ে বসিয়ে দেওয়া কলেজ ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি যুবায়ের রহমান মঞ্জিলের সাথে কথা বলতে তার মোবাইলে ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

তবে সংবর্ধনা মিছিলে থাকা ঐ একই কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সাদ্দাম আহমেদ বলেন, ‘দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আমরা ক্যাম্পাসে একটি মিছিল করেছি ঠিক, তবে আমরা অধ্যক্ষকে সংবর্ধনা দিয়ে নিয়ে এসেছি কথাটা ঠিক নয়।’

তিনি আরো বলেন, ‘এ বিষয়ে জানতে চাইলে নেতা (কুষ্টিয়া সদর আসনের সংসদ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ) এর পিএস রাজুর সাথে কথা বললে সব জানতে পারবেন।’

এ বিষয়ে কথা বলতে পিএস রাজুর মোবাইলে ফোন ধনেননি।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষক জানান, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে অধ্যক্ষ প্রায় দেড় মাস কলেজে অনুপস্থিত ছিলেন। শনিবার নামধারী কিছু ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে তিনি অফিস করেছেন। এ ঘটনার পর থেকে ক্যাম্পাসে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এ ব্যাপারে কথা বলতে অধ্যক্ষ বদরুদ্দোজার মোবাইলে কল করলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

এদিকে এই ঘটনার পর থেকে অধ্যক্ষের অপকর্মের প্রতিবাদে এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা ক্লাসবর্জন, মানব বন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশসহ নানা কর্মসূচি পালন করে আসছিলো।

এ ঘটনায় ক্যাম্পাসের অস্বাভাবিক পরিস্থিতির উত্তোরণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কলেজ শিক্ষকদের পক্ষ থেকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কেও চিঠি দেওয়া হয়েছিলো বলে নিশ্চিত করেন উপাধক্ষ্য ড. অধ্যাপক আমজাদ হোসেন।

গত ৫ মে কলেজের অভ্যন্তরে নিজ বাসভবনে কলেজের পরিসংখ্যান সম্মান ১ম বর্ষের এক ছাত্রীকে বাসায় ডেকে এনে ধর্ষণ চেষ্টা করেন অধ্যক্ষ। ওই রাতেই বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা অধ্যক্ষের বাসভবনে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। উত্তাল হয়ে উঠে কলেজ ক্যাম্পাস। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে ওই রাতেই অসুস্থতার ভান করে কুষ্টিয়া ত্যাগ করেন তিনি।

Related posts