September 22, 2018

নূর হোসেন ও র‌্যাবের ২কর্মকর্তাসহ ২২আসামীকে কারাগারে প্রেরণ

রফিকুল ইসলাম রফিক,নারায়ণগঞ্জঃ  নারায়ণগঞ্জে ৭ খুনের  ঘটনায় দায়ের করা দুটি মামলা প্রধান আসামী নূর হোসেন ও র‌্যাবের সাবেক ২ কর্মকর্তাসহ ২২ আসামীকে আদালতে হাজিরের পর আবার কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলার অভিযোগ গঠনোর জন্য পরবর্তী তারিখ ২৭ জানুয়ারী নির্ধারন করেছে আদালত। সোমবার সকালে আদালতের দায়িত্বপাপ্ত বিচারক মিয়াজি শহিদুল ইসলাম চৌধুরী এ আদেশ দেন। মামলার প্রধান আসামী নুর হোসেনসহ ৫ জনের জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করেছে আদালত। এর আগে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার একটি চাঁদাবাজি মামলায় ৭ খুনের  মামলার প্রধান আসামী নূর হোসেন তার ভাজিতা শাহ জালাল বাদলকে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শহিদুল ইসলামের আদালতে হাজির করা হয়। ওই মামলার পলাতক আসামীদের মালামাল ক্রোকের নির্দেশ দেন আদালতের বিচারক। রফিকুল ইসলাম রফিকের পাঠানো তথ্য ও ছবি নিয়ে

একটি রিপোর্ট প্যাকেজ:
নারায়ণগঞ্জে ৭ খুনের  ঘটনায় ফতুল্লা থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়। আইনজীবী চন্দন সরকার ও তার গাড়ির চালক ইব্রাহিম হত্যার ঘটনায় জামাতা ডা. বিজয় কুমার পাল বাদী হয়ে একটি ও কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম ও তার ৪ সহযোগীসহ ৫ জনকে হত্যার ঘটনায় সেলিনা ইসলাম বিউটি বাদী হয়ে অপর মামলাটি দায়ের করেন। আইনজীবী চন্দন সরকার ও তার গাড়ির চালক ইব্রাহিম হত্যায় সোমবার অভিযোগ গঠনোর জন্য নির্ধারন ছিল জেলা ও দায়রা জজ আদালত। আদালতের বিচারক ছুটিতে থাকায় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের দায়িত্বপাপ্ত বিচারক মিয়াজি শহিদুল আলম চৌধুরীর আদালতে হাজির করা হয়। আদালত শুনানী শেষে উভয় মালার অভিযোগ গঠনের জন্য পরবর্তী তারিখ ২৭ জানুয়ারী নির্ধারন করেছে। আদালতে মামলার প্রধান আসামী নুর হোসেন এবং আসামী আলী মোহাম্মদ, মিজানুর রহমান, মর্তুজা জামান চার্চীল ও রহম আলীর জামনিরে আবেদর করেন। শুনানী শেষে আদালত জামিন না মঞ্জুর করেছে। এসময় আদালতে ২২ আসামী উপস্থিত ছিল। র‌্যাব-১১ এর সাবেক সি ও লে: কর্ণেল তারেক মোহাম্মদ সাঈদ অসুস্থ্য থাকায় আদালতে হাজির করা হয়নি।

আগামী ২৭ জানুয়ারী মামলার অভিযোগ গঠনের তারিখ নির্ধারন করে আসামীদের জামিন না মঞ্জুর করেছে আদালত। তবে আদালতের পরিস্থিতি দেখে হতাশা প্রকাশ করেন মামলার আইনজীবী।

আদালত প্রঙ্গনে ও বাইরে রাস্তার মামলার প্রধান আসামী নুর হোসেনের লোকজনের উপস্থিতি দেখে নিরাপত্তাহীনতায় ভ’গছেন বলে অভিযোগ করেন মামলার বাদী সেলিনা ইসলাম বিউটি। মামলার সুবিচার পাওয়া নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেন।

প্রধান আসামী নুর হোসেনসহ ৫ আসামীর জামিনের আবেদন করলেও আদালত শুনানী শেষে আবেদন না মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৭ এপ্রিল ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংকরোডের ফতুল্লা থেকে কাউন্সিলর নজরুল ইসলাসহ ৭ জন অপহরণের তিন দিন পর শীতলক্ষ্যা নদী থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts