September 24, 2018

নীরজাঃ যেমনি প্রশংসা, তেমনি বিতর্ক

111
নীরজা ভানটের ট্র্যাজিক ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরিচালক রাম মাধবানি নির্মাণ করেছেন নীরজা শিরোনামের সিনেমাটি। এতে নীরজা চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী সোনম কাপুর।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার ভারতের ৭ শত প্রেক্ষাগৃহে এবং ভারতের বাইরে কয়েকটি দেশে মুক্তি পায় নীরজা। সিনেমায় তুলে ধরা হয়েছে ২৩ বছর বয়সি নীরজার জীবনের শেষ দুই দিনের ঘটনা।

সিনেমার প্রেক্ষাপট ৫ সেপ্টেম্বর ১৯৮৬ সালের। ভারত থেকে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছিল ‘প্যান অ্যাম ফ্লাইট ৭৩’ বিমানটি। মাঝে পাকিস্তানের করাচীতে যাত্রা বিরতির সময় চারজন বন্দুকধারী করাচী বিমানবন্দর নিরাপত্তারক্ষীর ছদ্মবেশে ‘প্যান অ্যাম ফ্লাইট ৭৩’ প্রবেশ করেন এবং এয়ারলাইন্স বিমানের বাকি যাত্রীদের জিম্মি করেন। তাদের দাবি ছিল, আমেরিকান যাত্রীদের চিহ্নিত করে তাদের হাতে তুলে দিতে হবে। সারা বিশ্বের সংবাদমাধ্যমে তখন ছিনতাই হয়ে যাওয়া বিমানের খুঁটিনাটি আপডেট। যাত্রীরা আতঙ্কে দিশাহারা। ঠিক তখনই ২৩ বছর বয়সি নীরজা ভানট নিজের প্রাণ বিসর্জন দিয়ে মুক্ত করেন বাকি যাত্রীদের।

দাম্পত্য জীবনে সুখী ছিলেন না নীরজা। তাই বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়ার পর তিনি বিমানবালার চাকরিতে যোগ দেন। বিমান ছিনতাইয়ের সেই ঘটনায় ২০জন যাত্রী মারা গিয়েছিলেন এবং ১০০ জন আহত হয়েছিলেন। বাকি মানুষের জীবন বেঁচে গিয়েছিল নীরজার উপস্থিত বুদ্ধি ও সাহসিকতার জন্যই। পরবর্তী সময়ে নীরজাকে মরণোত্তর অশোক চক্র উপাধি দেওয়া হয়েছিল।

সিনেমাটিতে দর্শকের মধ্যে ভয় এবং উৎকণ্ঠা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন পরিচালক। ক্যামেরার পেছনে ডিওপি হিসেবে মিতেশ মিরচান্দানি এবং সম্পাদনায় মনীষা বলদাওয়া প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করেছেন।

সিনেমাটি নিয়ে শুরু থেকেই অনেকের প্রশ্ন ছিল নীরজাকে পর্দায় কতটা ফুটিয়ে তুলতে পারবেন সোনম কাপুর। সিনেমা মুক্তির পর অবশ্য সে পরীক্ষায় পাশ করেছেন এ অভিনেত্রী। তবে কিছু দৃশ্যে কিছুটা হোচট খেয়েছেন কিন্তু সেগুলো উতরে গেছেন সিনেমাটির অসাধারণ কাহিনির কারণে। নিজেকে নীরজা হিসেবে উপস্থাপন করার জন্য যা প্রয়োজন সবই করেছেন সোনম। শুরুতে ভয় এবং সে ভয় যখন সাহসে রূপ নেয় সব কিছুর অভিব্যক্তিই ফুটে ওঠেছে তার চেহারায়। এছাড়া সিনেমায় নীরজার মা এবং বাবার চরিত্রে শাবানা আজমি এবং যোগেন্দ্রার টিকুর প্রশংসা করেছেন সবাই। নিজের চরিত্রকে সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তোলার জন্য প্রশংসা পেয়েছেন শেখর রাভজিয়ানি।

তবে সিনেমায় গান ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। এ ধরনের সিনেমায় গানের বিষয়টি কতটুকু গুরুত্ববহন করে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সিনেমা বিশ্লেষকরা।

সব কিছু মিলিয়ে নীরজা সিনেমাটি দেখে প্রশংসা করছেন সবাই। সিনেমা বিশ্লেষকরা যেমন প্রশংসা করছেন তেমনি বলিউডের জনপ্রিয় সব তারকারাও করছেন সিনেমা এবং সোনমের অভিনয়ের ভূয়সী প্রশংসা। পাশাপাশি বিরত্বের জন্য নীরজা ভানট এবং সেটি অসাধারণভাবে ফুটিয়ে তোলার জন্য পরিচালকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সবাই।

বক্স অফিসেও ভালো ব্যবসা করছে নীরজা। প্রথম তিন দিনে বক্স অফিসে ৩২ কোটি রুপি তুলে নিয়েছে সিনেমাটি। প্রথম দিনে সিনেমাটি বক্স অফিসে তুলে নেয় ৪.৭০ কোটি রুপি। শনিবার সিনেমাটি আয় করে ৭.৬০ কোটি রুপি। রোববার ৯.৭১ কোটি আয় করে উইকেন্ড শেষ করে নীরজা। ফলে ভারতে সিনেমাটির আয় দাঁড়ায় ২২.০১ কোটি রুপি।

এছাড়া ভারতের বাইরে নীরজা সিনেমাটি এ পর্যন্ত আয় করেছে ১০.২০ কোটি রুপি। বিশ্বব্যাপী সিনেমাটির মোট বক্স অফিস আয় ৩২.২১ কোটি রুপি।

প্রশংসা পেলেও সিনেমাটিকে নিয়ে বিতর্কও কম হচ্ছে না। ‘প্যান অ্যাম ৭৩’ ফ্লাইটে নীরজা ভানটের সঙ্গী এবং ক্রু মেম্বার নুপূর আবরুল মনে করছেন- বাস্তবের চেয়ে বেশি কল্পনাপ্রসূত করা হয়েছে নীরজা সিনেমাটি। সামামাজিক যোগাযোগেরমাধ্যম টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘সত্যিই সেটি অনেক কঠিন সময় ছিল। কিন্তু সিনেমায় যেভাবে বাড়াবাড়ি করে সবকিছু দেখানো হয়েছে, তা সে সময় যারা ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্টস ছিলেন তাদের কাছে সহ্য করা কঠিন। সন্দেহ নেই নীরজা ছিলেন একজন অসাধারণ ব্যক্তিত্ব কিন্তু সিনেমার বাড়াবাড়ি দেখলে তার আত্মাও অবনত হবেন। সিনেমার কাহিনিতে অন্যান্য ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্টস যারা সেই ঘটনার সাক্ষী হয়েছিলেন তাদের সঠিকভাবে মূল্যায়ন করা হয়নি। ’

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts