September 23, 2018

‘নিষিদ্ধ শব্দটি উঠে গেলে প্রতিটা মুহূর্ত হবে আনন্দময়’

স্পোর্টস  ডেস্ক: ব্রিসবেনে ফেরার লড়াইটা করবেন তাসকিন আহমেদ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিংয়ে নিষিদ্ধ এ বোলার ওই লড়াইটা কিভাবে করবেন তার জন্য নিয়েছেন দীর্ঘ প্রস্তুতি। ভারতে অনুষ্ঠিত আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলা গত ১৬ মার্চ ছিল তার শেষ। এর পর থেকেই নিষিদ্ধ তিনি অবৈধ বোলিং অ্যাকশনে। সে থেকেই ফেরার লড়াইয়ে ওই প্রস্তুতি। ক’দিন আগে বিসিবির বোলিং অ্যাকশন রিভিউ কমিটির সামনেও পরীক্ষা দেন তাসকিন। তাতেও তার সমস্যা ধরা পরেনি। এতেই কিছুটা উৎফুল্ল তিনি। আগামী ৮ অক্টোবর ব্রিসবেনে তার ওই ফেরার পরীক্ষা। রিপোর্ট পেতে খানিকটা সময় নেবে ঠিকই। কিন্তু ব্রিসবেনের ওই নিরীক্ষাগার দেবে না তাকে রেজাল্ট। যে আইসিসি তার নিষিদ্ধ হওয়ার খবর দেয়। তারাই দেবে আবার মুক্ত হওয়ার সংবাদ বা সিদ্ধান্তও।

নিজের নিষিদ্ধ হওয়া প্রসঙ্গে কোনো রকম মন্তব্য সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। ফলে এ সংক্রান্ত কোনো কথাই তিনি বলতে পারেননি। তবে বিসিবি আসন্ন ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করেই তাসকিনকে মুক্ত করার মিশনটা করছে। কাল তাসকিন নিজের বোলিংয়ে কোন ধরনের পরীক্ষার সম্মুখীন হবেন সেটা জানিয়ে বলেন, ‘সব ধরনের ডেলিভারির জন্যই প্রস্তুতি নিতে হবে। যেন সব ডেলিভারি ঠিক থাকে। এটা আইসিসির সিদ্ধান্ত। ইনশাআল্লাহ সব ঠিক থাকবে আশা রাখি। আমি সব ডেলিভারি ঠিক রেখেই ফিরব। সবাই দোয়া করবেন।’ নিজের প্রসঙ্গে বলতে যেয়ে অস্ট্রেলিয়া নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে নজরকাড়া এ বোলার বলেন, ‘নিষিদ্ধ শব্দটি আসার পর প্রত্যেকটি দিনই একটু অন্যরকম ছিল। নিষিদ্ধ শব্দটি উঠে গেলে আবার প্রতিটা মুহূর্ত হবে আনন্দের। ফলে সেভাবেই প্রস্তুতি নেয়ার চেষ্টা করছি। কঠোর অনুশীলন করছি। বাকি সব আল্লাহর ইচ্ছা। অবশ্যই দ্রুত ফিরতে চাই। শুধু আমি না, কেউই চাইবে না জাতীয় দলের সিরিজ মিস হোক, খেলা মিস হোক। সত্যি বলতে এটা (নিষিদ্ধ) আমার জন্য একটা বোঝা। কারণ আমি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিংয়ে নিষিদ্ধ। যত দ্রুত সম্ভব আমার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে যেন নিষেধাজ্ঞা উঠে যায় সে জন্যই প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি।’

এ দিকে চেন্নাইয়ে প্রথম দফা পরীক্ষা উত্তীর্ণ হতে না পেরে কোনো সমস্যা হয়নি। যেহেতু এর মধ্যে জাতীয় দলের আর কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ ছিল না। তাই বিসিবিও তাসকিনকে মুক্ত করার উদ্যোগ নেয়নি। বরং তাকে প্রস্তুতি নেয়ার সুযোগ দেয়া হয়েছে। এখন সে সুযোগ কাজে লাগিয়ে তিনি প্রস্তুত। তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের এক্সপার্টদের কাছ থেকে যে মতামত পেয়েছি, তারা সন্তুষ্ট। এমনকি আমি নিজেও সন্তুষ্ট। দলের সিনিয়র ক্রিকেটারেরা মানসিকভাবে সাপোর্ট করছেন। ওভারঅল সবাই সাপোর্ট করছেন। সবার সাপোর্ট নিয়ে ভালো পরীা দিতে পারব বলে আশা করছি।’

উল্লেখ্য, একই সঙ্গে পরীক্ষা দিতে যাওয়ার কথা আরেক নিষিদ্ধ বোলার আরাফাত সানিও।

Related posts