November 19, 2018

নির্বাচনে হিলারীর পক্ষে কাজ করার আহ্বান এনএওয়াইএফ’র

767

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বিশেষ সংবাদদাতাঃ   নিউ-আমেরিকান ইয়্যুথ ফোরাম অব নিউইয়র্ক (এনএওয়াইএফ)-এর প ম বার্ষিক নিউইয়ার্স পার্টিতে ডেমোক্র্যাট দলীয় মূলধারার রাজনীতকরা নিউইয়র্ক তথা যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশী-আমেরিকান কমিউনিটিকে বর্ধিষ্ণু, সম্ভাবনাময় আর কর্মঠ আখ্যায়িত করে বলেছেন, একদিন বাংলাদেশী-আমেরিকানরাই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদ অলংকৃত করবে। এখন দরকার সঠিক নতুন প্রজন্মের মধ্য থেকে নেতৃত্ব গড়ে তোলা। বক্তারা যুক্তরাষ্ট্রের আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলীয় সম্ভাব্য প্রার্থী হিলারী ক্লিনটনের পক্ষে কাজ করা এবং নির্বাচনের দিন কেন্দ্রে গিয়ে তাকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, প্রেসিডেন্ট পদে তিনিই যোগ্য প্রার্থী।

সিটির জ্যামাইকার হিলসাইড এভিনিউস্থ জ্যামাইকার তাজমহল পার্টি হলে গত শনিবার সন্ধ্যায় নিউ-আমেরিকান ইয়্যুথ ফোরাম অব নিউইয়ক (এনএওয়াইএফ)-এর বার্ষিক নিউইয়ার্স পার্টির আয়োজন করা হয়। ইংরেজী নতুন বছর-২০১৬ উপলক্ষ্যে এই পার্টি আয়োজনে সহযোগিতায় ছিলো নিউ-আমেরিকান ডেমোক্র্যাটিক ক্লাব ও নিউ-আমেরিকান ওমেন্স ফোরাম অব নিউইয়র্ক। উৎসবমুখর পরিবেশ আর ব্যতিক্রমী আয়োজনে অনুষ্ঠিত এই পার্টিতে অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশী-আমেরিকান নবীন-প্রবীণের সমাবেশটি দৃশ্যত মিলন মেলায় পরিণত হয়।

অনুষ্ঠানে মূলধারার রাজনীতিক আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে কংগ্রেসম্যান গেগরী মিক্স, নিউইয়র্ক ষ্টেট সিনেটর লিরয় কমরী, ষ্টেট অ্যাসেম্বলীম্যান ডেভিট ওয়েপ্রীন, অ্যাসেম্বলীওম্যান ভিভিয়ান কুক, নিউইয়র্ক সিটির সাবেক কম্পট্রোলার জন ল্যু, সিটি কাউন্সিলম্যান ড্যানিক মিলার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
768
অনুষ্ঠানের শুরুতেই যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের পর ২০০০ সালের ৯/১১ তথা ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার ট্রাজেডীর ঘটনায় নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।  স্বাগত বক্তব্য রাখেন নিউ-আমেরিকান ইয়্যুথ ফোরাম অব নিউইয়ক (এনএওয়াইএফ)’র সভাপতি আনাফ আলম ও মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম। অনুষ্ঠানটির মূল পর্ব পরিচালনা করেন এনএওয়াইএফ’র প্রধান উপদেষ্টা নিউইয়র্ক সিটির সাবেক ভোটার এ্যাসিসটেন্ট ডেমোক্র্যাট মোর্শেদ আলম, নিউ-আমেরিকান ওমেন্স ফোরাম নিউইয়র্ক-এর সভাপতি রোকেয়া আক্তার ও অ্যাডভোকেট রুবাইয়া রহমান।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি ছাড়াও কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন প্রবীণ সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদউল্লাহ,বিশিষ্ট  রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর সমাজসেবী ড. দেলোয়ার হোসেন, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি আকতার হোসেন,  রিয়েল আনোয়ার হোসেন ও এবিএম ওসমান গণি, মূলধারার রাজনীতিক মিলন রহমান, দেওয়ান বজলু প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশী-আমেরিকান বক্তারা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে বিশেষ করে নিউইয়র্কে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে। আমাদের নতুন প্রজন্ম বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভালো করছে। বাংলাদেশী-আমেরিকানরা কাউন্সিলম্যান নর্বাচিত হয়েছেন।  নিউইয়র্ক, নিউজার্সী, মিশিগান, শিকাগোতে বাংলা, বাংলাদেশীদের নামে রাস্তার নাম হয়েছে, নিউজার্সীতে স্থায়ী শহীদ মিনার হয়েছে। নিজেদের অধিকার আর নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার এই ধারায় আমাদের মূলধারার রাজনীতিতে বেশী বেশী সক্রিয় হতে হবে।

নিজেদেরকে আরো যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। নতুন প্রজন্মকে মূলধারার রাজনীতিতে সক্রিয় করে তুলতে হবে।

কমিউনিটিতে বিশেষ অবদান রাখার জন্য অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট  ফার্মাসিস্ট আকতার হোসেন ও বিশিষ্ট সমাজসেবী ড. দেলোয়ার হোসেন সহ আরো কয়েকজন ব্যক্তিকে নিউ-আমেরিকান ইয়্যুথ ফোরাম অফ নিউইয়র্ক, নিউ-আমেরিকান ডেমোক্র্যাটিক ক্লাব ও নিউ-আমেরিকান ওমেন্স ফোরাম নিউইয়র্ক-এর পক্ষ থেকে প্যাক প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে নিউ-আমেরিকান ইয়্যুথ ফোরাম অফ নিউইয়র্ক ও নিউ-আমেরিকান ওমেন্স ফোরাম-এর কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।
769
অনুষ্ঠানের সাংস্কৃতিক পর্বে স্বরলিপি সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর নতুন প্রজন্মের শিল্পী সুস্মিতা, সুপ্তি, ইউবিকা, স্বর্ণা, শ্রভ্রা, মিথিলা ও আদ্রিতা নৃত্য ও সঙ্গীত পরিবেশন করেন। জনপ্রিয় শিল্পী চন্দন চৌধুরীসহ প্রবাসের শিল্পীদের মধ্যে ফরহাদ, শাহনাজ, রওশন হাসান, বাবলী হক, মিলন ও উদীত্ত সঙ্গীত পরিবেশন করেন। এছাড়া কবিতা পাঠ করেন রেজাউল করীম চৌধুরী ও জুলি রহমান। এই পর্ব উপস্থানায় ছিলেন উৎপল চৌধুরী। স্বরলিপি’র শিল্পীদের নৃত্য পরিচালনায় ছিলেন ডালিয়া চৌধুরী এবং সহযোগিতায় ছিলেন উদীসা চৌধুরী। সর্বস্তরের বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালে ডেমোক্র্যাট মোর্শেদ আলমের নেতৃত্বে নিউ-আমেরিকান ডেমোক্র্যাটিক ক্লাব  প্রতিষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে এই ক্লাবের সহযোগিতায় নিউ-আমেরিকান ওমেন্স ফোরাম অব নিউইয়র্ক এবং নিউ-আমেরিকান ইয়্যুথ ফোরাম অব নিউইয়র্ক প্রতিষ্ঠা করা হয়।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts