September 19, 2018

‘নির্বাচনের আগে বিএনপি-জামায়াত খুঁজে পাওয়া যাবে না’

ঢাকাঃ খালেদা আহম্মকের স্বর্গে বাস করছেন। ২০১৯ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে একটি নির্বাচন হবে। তার আগে দেশে আর বিএনপি জামায়াত খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে মন্তব্য করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

বিএনপি নেত্রী খালেদার সাথে কোনো ঐক্য হবে না, ঐক্য হবে কৃষক- শ্রমিক ও সাধারণ জনতার সাথে বলে বক্তব্যে বলেন তিনি।

শনিবার বিকেলে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা সদরের আরএসকেএইচ ইনস্টিটিউশন চত্বরে আয়োজিত সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে ১৪ দলের মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তেব্যে তিনি এসব কথা বলেন।’

সমাবেশে নাসিম বলেন, খালেদা নির্বাচনে না গিয়ে দেশে জঙ্গিবাদ উসকে দিয়েছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন জঙ্গিদের দিয়ে উনি (খালেদা) ঠেকাতে চান। তার (খালেদা) ছেলে তারেক লন্ডনে বসে ষড়যন্ত্র করছে আর খালেদা দেশে বসে জামাত-শিবির নিয়ে জঙ্গিবাদ পরিচালনা করছেন।

মন্ত্রী জনগণকে হুঁশিয়ার করে বলেন, হাসিনা সরকারকে হটাতে দেশে জঙ্গিদের মদদ দেয়া হচ্ছে। কিছুদিন আগে যারা পেট্রোল বোমা মেরে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে তারাই এখন জঙ্গিবাদের সাথে যুক্ত। বিএনপি জামাতিরাই এখন জঙ্গি কার্যক্রম চালাচ্ছে বলে তিনি বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আমাদের সামনে এখন কঠিন সময়। ঘরে ঘরে জঙ্গিবিরোধী কমিটি করে দমন করার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। পাড়া-মহল্লায় নতুন মানুষ এলে তাদের পুলিশে ধরিয়ে দিতে হবে।

সমাবেশে ১৪ দলের স্থানীয় নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন এবং বক্তব্য দেন।

‘জঙ্গীবাদ নিপাত যাক, সন্ত্রাসবাদ নিপাত যাক’- এ প্রতিপাদ্য নিয়ে সমাবেশে মহম্মদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রব্বানীর সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সহকারি সচিব-২ এ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শিখর, বি এম মোজাম্মেল হক এমপি, ফজলে হোসেন বাদশা এমপি, কামরুল লায়লা জলি এমপি, জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট শ্রী বীরেন শিকদার এমপি ও সাম্যবাদী দলের নেতা দিলীপ বড়ুয়া। সমাবেশের সঞ্চালক ছিলেন উপজেলা আওয়ালীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নান।

Related posts