September 22, 2018

নিউইয়র্ক ভিওিক ১৯ টি সংগঠনের ঘোষনা বাংলার মাটিতে জঙ্গীদের কোন স্থান নেই

হাকিকুল ইসলাম
নিউইয়র্ক থেকেঃ  
অদ্য ১৪ই জুলাই ফান্সের নিছ শহরে জাতিয় দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে সমাবেত জনতার উপর দ্রুতগতি ট্রাক চালিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ৮০ জন মানুষ হত্যা, গত ৭ই জুলাই  পবিত্র ঈদের দিনে কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় ‘ঈদগাহ মাঠে’র নিকটবর্তী স্থানে জঙ্গী সন্ত্রাসীদের হামলা দুইজন পুলিশসহ এক গৃহবধূ নিহত এবং এর আগে ১লা জুলাই ঢাকার গুলসান হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গীরা জিম্মী করে নৃশংসভাবে দেশী-বিদেশী ২০ জনকে হত্যা। আমরা এ হত্যার  তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়ে নিহত স্বজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি এবং নিহতদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা  করছি। নিউইয়র্ক ভিওিক  ১৯ টি সংগঠনের নেএীবৃন্দ উল্লেখ করেন জঙ্গী সন্ত্রাসীদের কোন ধর্ম নেই, এরা পশুর চেয়েও অধম এবং এরা মানবতার শত্রু। সমগ্র মানবজাতি এদেরকে ঘৃনা ও ধিক্কার জানাচ্ছে।

সংগঠনের নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, শোলাকিয়ায় হামলাকারী আটককৃত এক সন্ত্রাসী তার জবানবন্দীতে স্বীকার করেছে যে, তারা জিএমবি’র জঙ্গী সদস্য। এই জিএমবি জঙ্গীসন্ত্রাসী সংগঠন গঠিত হয়েছে, তৎকালীন বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া এবং জামায়াতের শাসনামলে ও তাদের নেতাদের মদদে। সুতরাং এটা পরিস্কার যে, আইএসইজ এর নামে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে, গণতান্ত্রিক সরকার উৎখাত ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচারবন্ধ ও মীর কাসেম আলীকে মুক্ত করার লক্ষেই বিএনপি-জামায়াতসহ দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রকারীদের ইন্দনেই গুলশান-শোলাকিয়ায় সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে এবং সারাদেশে ‘গুপ্তহত্যা’ অব্যাহত রেখেছে। গুটি কয়েক বিপথগামী, মানুষিকভাবে অসুস্থ জঙ্গীসন্ত্রাসীদের কাছে ১৬ কোটি বাঙ্গালী জিম্মী থাকতে পারে না। জনগনের সম্মোনীত প্রতিরোধই পারবে বাংলাদেশকে জঙ্গীসন্ত্রাসীর থাবা থেকে রক্ষা করতে। পাশাপাশি জঙ্গীসন্ত্রাসীদের, আশ্রয়দাতা, নির্দেশদাতা, অর্থদাতা ও মদদদাতাদের খুজে বের করে, আইনের-আওতায় আনার জন্যও সরকারের  আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি দাবি জানাচ্ছি। জঙ্গীসন্ত্রাসী দমনে আমরা বাংলাদেশের মানুষ ও শেখ হাসিনা সরকারের পাশে সব সময় থাকবো।

ফান্সের নিছ শহরে জাতিয় দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে সমাবেত জনতার উপর সন্ত্রাসী হামলা।

বিবৃতি প্রদানকারী সংগঠন ও নেএীবৃন্দরা হলেন-

১। জেনোসাইড ’৭১ ফাউন্ডেশন, যুক্তরাষ্ট্রঃ মুক্তিযোদ্ধা ডঃ প্রদীপ রঞ্জন কর, সাবেক জিএস, বাকসু ও সভাপতি, জেনোসাইড’৭১ ফাউন্ডেশন মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মিরাজ খান মিরাজ, সহ- সভাপতি, জেনোসাইড’৭১ ফাউন্ডেশন, যুক্তরাষ্ট্র জেএইচআরজু, সাধারন সম্পাদক, জেনোসাইড ’৭১ ফাউন্ডেশন, যুক্তরাষ্ট্র।

২। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ইউএস কমাণ্ডঃ মুক্তিযোদ্ধা ডা: আঃ বাতেন, আহবায়ক, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা কমাণ্ড, মুক্তিযোদ্ধা কামরুল হাসান চৌধুরী, সদস্য, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা কমাণ্ড মুক্তিযোদ্ধা জগলুল আহমদ, সদস্য সচিব, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা কমাণ্ড

৩। মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্রঃ মুক্তিযোদ্ধা খুরশিদ আনোয়ার বাবলু, সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র সাঈদুর রহমান বেনু, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র।

৪। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্জ, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা খান মিরাজ, ভারপ্রাপ্ত-সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্জ শরাফ সরকার, সাধারন সম্পাদক, মুক্তিযোদ্ধা চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্জ।

৫। স্বাধীনতা চেতনা মঞ্জ, যুক্তরাষ্ট্র, মুক্তিযোদ্ধা চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্জ, যুক্তরাষ্ট্র মোয়াজ্জেম হোসেন মাসুদ, সভাপতি, স্বাধীনতা চেতনা মঞ্জ, যুক্তরাষ্ট্র হেলাল মাহমুদ, সাধারন সম্পাদক, স্বাধীনতা চেতনা মঞ্জ, যুক্তরাষ্ট্র।

৬। আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিনঃ হাকিকুল ইসলাম খোকন, সভাপতি, আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন হেলাল মাহমুদ, সাধারন সম্পাদক, আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন।

৭। আওয়ামী আইনজীবি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র এ্যাডভোকেট মোর্শেদা জামান, সভাপতি, আওয়ামী আইনজীবি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র এ্যাডভোকেট আবদুর রহিম মামুন, সাধারন সম্পাদক, আওয়ামী আইনজীবি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র।

৮।  পোজীবি সমম্নয় পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র ইঞ্জি: আশরাফুল হক, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, ভারপ্রাপ্ত পোজীবি সমম্নয় পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র আশরাফুজ্জামান, সাধারন সম্পাদক, পোজীবি সমম্নয় পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র।

৯। শেখ হাসিনা মঞ্জ, যুক্তরাষ্ট্র জালালউদ্দিন জালিল, সভাপতি, শেখ হাসিনা মঞ্জ, যুক্তরাষ্ট্র
কায়কোবাদ, সাধারন সম্পাদক, শেখ হাসিনা মঞ্জ, যুক্তরাষ্ট্র।

১০। বঙ্গমাতা পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র ডাঃ এনামুল হক, সভাপতি, বঙ্গমাতা পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র
আশরাফুজ্জামান, সাধারন সম্পাদক, বঙ্গমাতা পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র।

১১। বাঙ্গালীর চেতনা মঞ্চ, যুক্তরাষ্ট্রঃ আব্দুর রহিম বাদশা, সভাপতি, বাঙ্গালীর চেতনা মঞ্চ, যুক্তরাষ্ট্র তোফায়েল আহমদ চৌধুরী, সদস্য, বাঙ্গালীর চেতনা মঞ্চ, যুক্তরাষ্ট্র।

১২। বঙ্গবন্ধু প্রচার কেন্দ্র ও সমাজকল্যান পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র হাকিকুল ইসলাম খোকন, সভাপতি, বঙ্গবন্ধু প্রচার কেন্দ্র ও সমাজকল্যান পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র এম আনোয়ার, সাধারন সম্পাদক, বঙ্গবন্ধু প্রচার কেন্দ্র ও সমাজকল্যান পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র।

১৩। নিউইয়ক ঘাতক দালাল নিমূল কমিটিঃ ফাহিম রেজা নুর, সভাপতি, নিউইয়ক ঘাতক দালাল নিমূল কমিটি স্কীকৃতি বড়ুয়া, সাধারন সম্পাদক, নিউইয়ক ঘাতক দালাল নিমূল কমিটি।

১৪। বঙ্গবন্ধু সমাজকল্যান পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্রঃ রমেশ নাথ, সভাপতি, বঙ্গবন্ধু সমাজকল্যান পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র সাহাবউদ্দিন, সদস্য- সম্পাদক, বঙ্গবন্ধু সমাজকল্যান পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র।

১৫। হিউম্যান রাইষ্টস এণ্ড ডেভলপমেণ্ট, যুক্তরাষ্ট্র মোঃ সাইদুর রহমান, সভাপতি, হিউম্যান রাইষ্টস এণ্ড ডেভলপমেণ্ট, যুক্তরাষ্ট্র মোঃ আখতার হোসেন, সাধারন সম্পাদক, হিউম্যান রাইষ্টস এণ্ড ডেভলপমেণ্ট, যুক্তরাষ্ট্র।

১৬। বাংলাদেশ আওয়ামী ফোরাম, যুক্তরাষ্ট্র মুনির মোস্তাফী, সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী ফোরাম, যুক্তরাষ্ট্র মোঃ হারুন অর রসিদ, সাধারন সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী ফোরাম, যুক্তরাষ্ট্র।

১৭। স্বদেশ ফোরাম, যুক্তরাষ্ট্র অবিনাশ আচায্য, সভাপতি, স্বদেশ ফোরাম, যুক্তরাষ্ট্র।

১৮। আমেরিকা বাংলাদেশ কমিউনিটি ডেভলেপমেণ্ট ইনিটিয়েটিফ (এবিসিডিআই): সাংবাদিক শরীফ শাহাবুদ্দিন, সাবেক ছাএনেতা ও ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, এবিসিডিআই আলী হাসান কিবরিয়া অনু, সাধারন সম্পাদক, এবিসিডিআই।

১৯। মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সম্মিলিত জোট, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা ডঃ প্রদীপ রঞ্জন কর; মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা খান মিরাজ, মুক্তিযোদ্ধা শওকত আকবর রিচি; মুক্তিযোদ্ধা এবি সিদ্দিক, মুক্তিযোদ্ধা সাঈদুর রহমান; মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেন ভূইয়া (হিরু), নুরে আজম বাবু, নাজমুল ইসলাম চৌধূরী; ইঞ্জি: মিজানুল হাসান, আশরাফ মাসুক, সাহাদৎ হোসেন; মোঃ আলী আক্কাস; মো: এমাদ চৌধূরী, আঃ গোলাম কুদ্দুস; চলচিএ ব্যাক্তিত্ব কাজল আরিফীন; আশাফ মাসুক; এ্যাডভোকেট নিজামউদ্দিন; আঃ লতিফ বিশ্বাস; গোপাল সান্যাল; মঞ্জুর চৌধুরী; প্রবীর গুন; আবুল কাসেম ভূইয়া ও শফী আনছারী।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ১৫/০৭/২০১৬

Related posts