September 26, 2018

নান্দনিক ভাস্কর্য উদ্বোধনের অপেক্ষায়!

রফিকুল ইসলাম রফিক,নারায়ণগঞ্জঃ  নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে জেলার ঐতিহ্য ও পানাম নগরীর আদলে নির্মিত বৃত্তাকার সুদৃশ্য প্রাচীরে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিসংবলিত ভাস্কর্য ‘ঐতিহ্য নারায়ণগঞ্জ’ স্থাপন করা হয়েছে। জেলা প্রশাসক আনিছুর রহমানের উদ্যোগে ভাস্কর নৃপল খানের করা এই ভাস্কর্যটি এখন আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের অপেক্ষায় আছে। জেলা প্রশাসনের অর্থায়নে ভাস্কর্যটি নির্মিত হয়।

“প্রাচ্যের ডান্ডি” হিসেবে খ্যাত নারায়ণগঞ্জের ইতিহাস ঐতিহ্য ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নতুন প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ করতে জেলার প্রতিটি মানুষের এই চাওয়াকে অবশেষে পূরণ করলেন জেলা প্রশাসক আনিছুর রহমান মিঞা।

নান্দনিক এই ভাস্কর্যে স্থান পেয়েছে ঐতিহাসিকভাবে এই জেলা বাংলার আদি রাজধানী “সোনারগাঁ”, পানামনগরী, বিশ্বব্যাপী সমাদৃত “মসলিন”, লাঙ্গলবন্দ, কদম রসুল দরগাসহ বহু দর্শণীয় স্থান ও ঐতিহ্যের জন্য আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে সুপরিচিত। ভাস্কর্যটিতে পানাম নগরীর আদলে নির্মিত বৃত্তাকার সুদৃশ্য প্রাচীরে মুক্তিযুদ্ধসহ নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন ঐতিহ্য ও দর্শণীয় স্থানসমূহের ছবি খোদাই করা হয়েছে, আর প্রাচীরের মাঝ খানে স্থাপিত হয়েছে এই বন্দর নগরীর প্রতীক বাণিজ্য তরী। ভাস্কর্যটির চারদিকে দর্শণার্থীর সুবিধার্থে নান্দনিক ওয়াকওয়ে ও ম  নির্মাণ করা হয়েছে।

জেলার একমাত্র নান্দনিক ভাস্কর্যে ব্যপারে জেলা প্রশাসক মো: আনিছুর রহমান মিঞা জানান, সিমেন্টের প্রলেপ দিলে বেশ কিছুদিন পর এটায় শেওলা ধরে সৌন্দর্য হারায়। এ জন্য আধুনিক রেইজিন ও মার্বের ডাস্ট মিডিয়ায় তৈরি করা হয়েছে এ ভাস্কর্য। এতে এর নান্দনিকতা অক্ষুন্ন থাকবে।

তিনি আরো বলেন, দেশ-বিদেশের পর্যটক ও বর্তমান প্রজন্মকে নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্য সম্পর্কে সম্যক ধারণা প্রদানের লক্ষে অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্য নিমার্ণের কাজ শেষের পথে। আশা করছি ভাস্কর্যটি খুব শিঘ্রই জনসাধারণের জন্য খুলে দিতে পারবো। একই স্থানে নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্য ও দর্শণীয় স্থান গুলোর দেখা মিলবে এখানে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/২৫ এপ্রিল ২০১৬

Related posts