September 24, 2018

নাদিয়া-নাইমের ম্যাচ মেকার শারমিন

বৈশাখী টেলিভিশনের পর্দায় এবারের ঈদে থাকছে ভিন্নধর্মী প্রেমের নাটক “মিস ম্যাচ”। নাটকটি রচনা করেছেন আপেল মাহমুদ এবং পরিচালনা করেছেন পিকলু চৌধুরী।

নাদিয়া-নাইমের ম্যাচ মেকার শারমিন
নাদিয়া-নাইমের ম্যাচ মেকার শারমিন

গল্পে দেখা যাবে হৃদয় জীবনের ২৫ টা বছর পাড় করলেও এখন পর্যন্ত প্রেম নামক সোনার হরিণ তাকে গ্রাস করতে পারেনি। তবে এর জন্য পরিবেশ এবং পরিবারের তুলনায় সে নিজেই বেশী দায়ী। বংশ পরম্পরায় পরিবারের সবার প্রেমের বিয়ে হলেও নিজের নাজুক স্বভাবের কারণে কোন তরুণীকেই সে প্রপোজ করতে পারে না। অবশেষে বংশ পরম্পরা টিকিয়ে রাখতে বাবা নিজেই ছেলেকে প্রেম করানোর দায়িত্ব নেয়। নিজ অফিসের এক তরুণীর সাথে কৌশলে ছেলের পরিচয় করিয়ে দেয়। কিন্তু হৃদয় একসময় বাবার কৌশল ধরতে পেরে দূরে সরে যায়। এরপর মিশন হাতে নেয় হৃদয়ের ছোট বোন বিন্তী। দশম শ্রেণীতে উঠতে না উঠতেই প্রেমে জড়িয়ে পড়ে সে। কিন্তু তার ভাই হয়ে হৃদয় কিভাবে এখনো কারো গলায় ঝুলে পড়তে পারেনি এই নিয়ে তার দুঃখের অবকাশ নেই। বিন্তী তার বান্ধবী পিঙ্কির সহায়তায় বড় বোন মিথিলার সাথে হৃদয়ের সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করে। হৃদয় প্রথমে রাজী না হলেও শেষপর্যন্ত ভাইয়ের মন গলাতে সক্ষম হয় বিন্তী। মিথিলার সাথে দেখা করতে গেলে তৈরি হয় আরেক বিপত্তি। এই যুগের মেয়ে মিথিলার সাথে নিজেকে কোনভাবেই খাপ খাইয়ে নিতে পারে না হৃদয়। একসময় এখানেও সম্পর্কে জড়াতে ব্যর্থ হয় হৃদয়।

অবশেষে কোন উপায় না দেখে বাবামা হৃদয়কে অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ করানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। কিন্তু ঘটকের উছিলায় গোটা ৫০ মেয়ের ছবি দেখেও হৃদয়কে পছন্দ করাতে পারে না তারা। তাহলে কি শেষপর্যন্ত অবিবাহিতই থেকে যাবে হৃদয় নাকি ঘটবে নতুন কোন বিপত্তি? সেই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে এবার ঈদে টেলিভিশনের পর্দায়।

নাটকটিতে প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করছেন নাইম, নাদিয়া, শারমিন আখি, মাহমুদুল হক মিঠু (বড়দা মিঠু), মনিরা মিঠু, সামিম হাসান সরকারসহ আরো অনেকে।

Related posts