September 26, 2018

ধামরাইয়ে প্রধান শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিত, আ’লীগ নেতা আটক

ঢাকাঃ  নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক শ্যামলকান্তি লাঞ্ছিত হওয়ার রেশ কাটতে না কাটতে ধামরাইয়ের এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে এক স্কুল শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিতের অভিযোগ উঠেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

ধামরাই উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের ১১নং পশ্চিম সূত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মোসাম্মৎ ফৌজিয়া ইয়াসমিনের অভিযোগ, সোমবার স্কুল কমিটির সহ-সভাপতি স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মালেক তাকে লাঞ্ছিত করেন। এসময় তাকে সহযোগিতা করেছেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা কানিজ ফাতিমা ও সহকারী শিক্ষক আকতার হোসেন।

ফৌজিয়া ইয়াসমিন বলেন, ‘সহকারি শিক্ষকদের নিয়ে অফিসকক্ষের মালামাল পরিবর্তনের সময় সোমবার স্কুলে আসেন আব্দুল মালেক। পরে কথা কাটাকাটির সূত্র ধরে তিনি আমাকে মারতে আসেন। আমি টয়লেটে পালাতে চেষ্টা করলে আমার দুই সহকর্মী আমাকে টেনেহিঁচড়ে বের করে নিয়ে আসেন। একপর্যায়ে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি।’

তিনি জানান, পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। তিনি এ ঘটনায় ধামরাই থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ তাকে আটক করে।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা দৌলতুর রহমান বলেন, ‘বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। অন্যায়ভাবে শিক্ষিকাকে মারধর ও লাঞ্ছিত করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা। যদি প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ থাকে তা অফিসিয়ালি জানাতে পারতেন। কিন্তু তা করা হয়নি। এ বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।’

ধামরাই থানার পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) দীপক কুমার সাহা জানান, ঘটনাটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ১৪ মার্চ ধামরাইয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংস্কার কাজের তালিকায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোহাদ্দেস হোসেনের সুপারিশকৃত বিদ্যালয়ের নাম না থাকায় উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা দৌলতুর রহমানকে মারধর করেছিল মোহাদ্দেস হোসেন।

দ্য রিপোর্ট

Related posts