September 19, 2018

ধর্ষণের অভিযোগে লন্ডনের শহিদ মিয়ার জেল

লন্ডন ডেস্কঃ গতকাল বৃহস্পতিবার মাতাল একজন মহিলাকে পিছু নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে আদালত ৫ বছর ৪ মাসের জেলদন্ড প্রদান করে লন্ডনের বাঙালী পাড়া বলে খ্যাত টাওয়ার হ্যামলেটসের শহিদ মিয়াকে । তিনি কিংস আর্মস কোর্টের বাসিন্দা পেশায় একজন সেইফ (বাবুর্চি)।

জানা গেছে, ৩৪ বছর বয়সী শহিদ মিয়া গত বছরের ২০ শে এপ্রিল রাত প্রায় সাড়ে ১০টার দিকে হোয়াইচ্যাপল রোড থেকে ২০ বছর বয়সী এই মহিলার পিছু নেন। ওল্ড মন্টেগো স্ট্রীটের কিংস আর্মস কোর্টের নির্জন একটি জায়গায় একজন মহিলাকে একজন পুরুষ জোরপূর্বক যৌন হয়রানীর চেষ্টা করছে, সিসিটিভি ক্যামেরায় এমন দৃশ্য দেখে ক্যামেরা মনিটরিং স্টাফ পুলিশ ডাকেন।

পুলিশ এসে দেখতে পায় শহিদ মিয়া ট্রাউজার পরছেন এবং ঐ মহিলা হতাশাগ্রস্ত হয়ে মেঝেতে বসে আছেন।

এখান থেকে ধর্ষণের সঙ্গে সংশ্লিস্ট সন্দেহে শহিদ মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে তিনি পুলিশকে কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে অস্বীকৃতি জানান। পরবর্তীতে লিখিত আকারে বিবৃতিতে দাবী করেন, তিনি অভিযোগকারীর প্রস্তাবে অর্থাৎ সম্মতিতে সারা দিয়েছেন। তবে পুলিশী তদন্ত এবং আদালতের শুনানি শেষে শহিদ মিয়া নিজের দোষ স্বীকার করেন।

১১ মার্চ স্নেয়ারব্রুক ক্রাউন কোর্টে একই মহিলাকে ধর্ষণের দুটি অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয় তাকে।

Related posts