September 20, 2018

দ্বিতীয় ম্যাচেও হারল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ

স্পোর্টস ডেস্কঃ   নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। শনিবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে কলকাতা নাইট রাইডার্সের কাছে ৮ উইকেটে হেরেছে মুস্তাফিজুর রহমানরা। ম্যাচটিতে মূলত লড়াই ছিল বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের। সেই লড়াইয়ে জিতলেন সাকিব। টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেটে ১৪২ রান করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। জবাবে ১০ বল হাতে রেখেই মাত্র দুই উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌছে যায় কলকাতা নাইট রাইডার্স।

কলকাতার জয়ের নায়ক অধিনায়ক গৌতম গাম্ভীর। ৬০ বলে যিনি খেলেছেন অপরাজিত ৯০ রানের ঝড়ো ইনিংস। যেখানে ছিল ১৩টি চার ও একটি ছক্কার মার। ফলে অনুমিতভাবে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেছেন তিনিই।

১৪৩ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে কলকাতার হয়ে উড়ন্ত সূচনা করেন দুই ওপেনার গৌতম গাম্ভীর ও রবিন উথাপ্পা। মুস্তাফিজ ছাড়া বলতে গেলে সব বোলারদের ভালোমতো পেটান তারা। উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৯২ রান। দ্বিতীয় স্পেলে বল করতে আসেন মুস্তাফিজ। মাত্র তিন রান দেন তিনি। ১২.৩ ওভারে উদ্বোধনী জুটি বিচ্ছিন্ন করেন আশিষ রেড্ডি। ৩৪ বলে ৩৮ রান করা উথাপ্পাকে এলবিডব্লিউর শিকার বানান রেড্ডি।

উথাপ্পার ইনিংসে ছিল তিনটি চার ও একটি ছক্কার মার। পরের ওভারেই আঘাত হানেন মুস্তাফিজুর রহমান। যেটি ছিল মুস্তাফিজের ব্যক্তিগত তৃতীয় ওভার। মাঝে দ্বিতীয় ওভারে রান দেন মাত্র ৫। তৃতীয় ওভারে এসেই উইকেটের দেখা পান তিনি। ১৩.৪ ওভারে মুস্তাফিজের করার ইয়র্কঅর লেন্থের বল রক্ষণাত্মক ভঙ্গিতে ঠেকাতে চেয়েছিলেন আন্দ্রে রাসেল। কিন্তু পারেননি। স্ট্যাম্প ছত্রখান। দেহের ভারসাম্য রক্ষা করতে না পারায় ক্রিজেই পড়ে যান রাসেল। উইকেট প্রাপ্তির উল্লাসে মাতেন মুস্তাফিজুর রহমান। পাঁচ বলে মাত্র ২ রান করে সাজঘরে ফেরেন রাসেল। নিজের তৃতীয় ওভারে মুস্তাফিজ দেন সাত রান।

তবে জয়ের জন্য বাকি কাজটুকু পান্ডেকে সঙ্গে নিয়ে করেছেন অধিনায়ক গৌতম গাম্ভীর। ৬০ বলে ৯০ রানে গাম্ভীর ও পান্ডে ১১ বলে ১১ রানে থাকেন অপরাজিত। ১৮.২ ওভারে ১৪৬ রান সংগ্রহ করে কলকাতা। সানরাইজার্সের হয়ে একটি করে উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান ও আশিষ রেড্ডি। মুস্তাফিজুর ৪ ওভারে রান দিয়েছেন ২৯।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/১৬ এপ্রিল ২০১৬/রিপন ডেরি

Related posts