September 25, 2018

‘দুই মাসে আর কত শুকানো যায়’—-শাবনূর

নায়িকা শাবনূর।

ঢাকার ছবির শীর্ষস্থানীয় নায়িকা শাবনূর। যার নাম শুনলে চোখের সামনে ভেসে ওঠে ‘তোমাকে চাই’, ‘বিচার হবে’, ‘নারীর মন’, ‘বিক্ষোভ’, ‘চাওয়া থেকে পাওয়া’, ‘আনন্দ অশ্রু’, ‘স্বপ্নের ঠিকানা’, ‘বিয়ের ফুল’, ‘মোল্লাবাড়ীর বউ’সহ অসংখ্য হিট ছবির নাম। জনপ্রিয় এই তারকা অনেকদিন ধরে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী। তবে মাঝেমধ্যে দেশে আসেন। এবার দুই মাস পর গত ১৫ই নভেম্বর তার একমাত্র সন্তান আইজানকে নিয়ে দেশে এসেছেন তিনি। এ সময়ের ব্যস্ততা ও অন্য নানা প্রাসঙ্গিক বিষয়ে আজকের ‘আলাপন’-এ কথা বলেছেন শাবনূর।

তার সাক্ষাৎকারটি …..

কেমন আছেন? দেশে ফেরার পর কীভাবে সময় কাটছে?

আমি সব সময় ভালো থাকি। আমার সন্তান আইজানের বয়স এখন ২৩ মাস। তাকে নিয়েই আমার যত ব্যস্ততা। সারাদিন তাকে নিয়েই থাকি। আসার পর একটু অসুস্থ ছিল। বাইরের কোনো খাবার আমি ও আইজান কেউই খেতে পারি না। এটা অহঙ্কারের কোনো কথা না, সত্যিই কেন জানি আমার পেট খারাপ হয়। বিশেষ করে তেলের জিনিস খেলে তো আমি শেষ! আসলে আমাদের অনেক খাবার অস্বাস্থ্যকর।

এখন (সাক্ষাৎকার নেয়ার সময়) কেমন আছে আইজান?

আইজান এখন ঘুমাচ্ছে। ও ঘুমালে আমি একটু ফ্রি হয়ে যাই। তবে সারাক্ষণ একের পর এক ফোন আসে। আত্মীয়স্বজন, বন্ধু অনেকের সঙ্গে কথা বলতে থাকি। কথা বলতে অবশ্য আমার বেশ ভালোও লাগে। দেশের বাইরে যেমন ঘুরে বেড়াই আমি, দেশে এলে একটা দিনও আমি বাসায় থাকি না। আমার কাছে মনে হয়, একটি দিন ঘোরাফেরা মিস হলে আমার জীবন থেকে অনেক কিছু মিস হয়ে যাবে।

এ কয়েকদিন কোথায় কোথায় ঘুরলেন?

আমি নরসিংদীতে গিয়েছিলাম। সেখানে এক বান্ধবী থাকে আমার। কয়েকদিন পর তো শীত পড়ে যাবে। তখন আবারও যাবো। তার কাছে গিয়ে অনেক আড্ডা দেয়া হয়। ঢাকায়ও তার বাড়ি আছে। তার পরও আমার তার সঙ্গে কথা বলতে, ঘুরতে বেশ মজা লাগে।

শুনলাম, আগের চেয়ে অনেক স্লিম হয়ে ফিরেছেন?

আরে কি যে বলেন, কারা বলে এসব কথা। দুই মাসে আর কত শুকানো যায়! আমি যে পরিমাণ খেতে ভালোবাসি তাতে আর শুকানো সম্ভব না। আর আমি চেষ্টাও করতে চাই না।

খাবারের প্রসঙ্গে ফেরা যাক, কী ধরনের খাবার আপনার পছন্দের?

আমি অনেক দেশের খাবারের স্বাদ নিয়েছি। এই যেমন চায়নিজ, থাই, ভিয়েতনাম ফুড, জাপানিজ, তার্কি ফুড খেতে পছন্দ করি। তবে এ ধরনের সব খাবার আমার পছন্দ না। যেমন চায়নিজে সিজুয়ান ফুড আমার বেশ পছন্দ।

বাংলাদেশের খাবার পছন্দ না?

অবশ্যই পছন্দের। এই যেমন লাউ দিয়ে চিংড়ি মাছ আমার দারুণ পছন্দ। এছাড়া, খিচুড়িও বেশ ভালো লাগে আমার। আমি দেশে আসার পর আমাদের অমিত ভাইয়ের বউ (অমিত হাসান) তো নিজে রান্না করে খাওয়ালো। আমি আর অমিত ভাই আমরা প্রতিবেশী। পাশাপাশি বাসা আমাদের। তাই অনেক বেশি আড্ডা হয়। অমিত ভাইয়ের বউ অনন্যা তো আমার অনেক কাছের একজন বান্ধবী।

এবার কাজের প্রসঙ্গে কথা বলি, কবে আবার ক্যামেরার সামনে দাঁড়াবেন?

অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়ার আগে ‘পাগল মানুষ’ ছবির কিছু কাজ করেছি। এ ছবির গানের কাজ এখনও বাকি আছে। পরিচালক-প্রযোজক চাইলে সময় বের করে আগে এ ছবির অসমাপ্ত কাজ শেষ করব। পরিচালক এম এম সরকার তো আর নেই। বদিউল আলম খোকন এ ছবির বাকি কাজ শেষ করছেন। আর এ ছবিতে আমার বিপরীতে অভিনয় করছেন নবাগত শাহেন খান।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts