November 17, 2018

২ দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন!

রফিকুল ইসলাম রফিক, নারায়ণগঞ্জঃ  নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে পিরোজপুর ইউনিয়নের ঝাউচর গ্রামে প্রেমিকের বাড়িতে দুইদিন ধরে সাদিয়া আক্তার সুমি নামের এক যুবতী অবস্থান করে। বিয়ের দাবী সে ওই স্থানে অবস্থান নেয়। পরে সোমবার বিকেলে প্রেমিকের বাড়ির লোকজন তাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এ ঘটনায় ওই যুবতী সোনারগাঁ থানায় প্রেমিককে আসামী করে অভিযোগ দায়ের করেন।

সাদিয়া আক্তার সুমি জানান, ডেমরার নোয়াপাড়া গ্রামের বাবুল হোসেন মোল্লার মেয়ে সাদিয়া আক্তার সুমির চার বছর আগে সোনারগাঁয়ের আনন্দবাজার গ্রামে বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তার একটি তিন বছর বয়সী পুত্র সন্তান রয়েছে। উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ঝাউচর গ্রামের হাজী ইসলামের ছেলে ইমরান হোসেনের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। পরে ইমরান হোসেন তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময়ে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এক পর্যায়ের তার স্বামীকে তালাক না দিলে বিয়ে করবে না বলে ইমরান সুমিকে জানায়।

পরে সুমি ইমরানকে স্বামী হিসেবে পাওয়ার জন্য ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে আগের স্বামীকে তালাক দেয়। সুমির তালাকের পর থেকে ইমরান সুমির সাথে তালবাহানা শুরু করে। পরে রোববার সকালে সুমি বিয়ের দাবী নিয়ে ঝাউচর গ্রামে ইমরানের বাড়ির সামনে অবস্থান নেয়। অবন্থানের দ্বিতীয় দিন সোমবার বিকেলে সুমিকে ইমরানের বাড়ির লোকজন পিটিয়ে তাড়িয়ে দেয়। এ ঘটনার পর সুমি সোনারগাঁ থানায় ইমরানকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হারুনুর রশিদ জানান, অভিযোগ পেয়েছি। প্রেমিক ইমরানকে আটকের জন্য চেষ্টা চলছে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/১০ মে ২০১৬

Related posts