November 15, 2018

দলীয় গুরুত্বপূর্ণ পদে আসছেন জয়!

308
ঢাকাঃ  ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের আসন্ন জাতীয় কাউন্সিলে গুরুত্বপূর্ণ পদ পেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা ও একমাত্র পুত্র সজিব ওয়াজেদ জয়। এছাড়া গুঞ্জন রয়েছে সাংগঠনিক গুরুত্বপূর্ণ পদ তৈরি করে এবারের কাউন্সিলে জয়কে দায়িত্ব দেয়া হতে পারে।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, এ লক্ষ্যেই আগামী কাউন্সিলে দলের গঠনতন্ত্র পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত আসতে পারে। যদিও দলীয় প্রতীকে স্থানীয় নির্বাচন হওয়ার কারণে আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র পরিবর্তনের বিষয়টি আগে থেকেই আলোচনায় ছিল।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর সঙ্গে কথা হয় সজিব ওয়াজেদ জয়-এর প্রসঙ্গে। জাগো নিউজকে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয় এ দেশের রাজনীতির উজ্জ্বল নক্ষত্র। তিনি এবারের কাউন্সিলে থাকার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন। আপাতত এটিই আমাদের কাউন্সিলের জন্য অন্যতম আকর্ষণ। তার নেতৃত্ব সর্বস্তরের মানুষের প্রত্যাশা। তবে দলের সাংগঠনিক দায়িত্বে তিনি থাকবেন কি না এবং থাকলেও কোন পদে আসছেন, তা কাউন্সিলের মধ্য দিয়েই নির্ধারিত হবে।”

এদিকে নাম প্রকাশ না করে দলের একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা জানান, এবারের কাউন্সিলের প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে সজিব ওয়াজেদ জয়ের সাংগঠনিক পদ পাওয়া। দৃশ্যমান কোনো পদে নাকি নতুন করে গুরুত্বপূর্ণ পদ তৈরি করে জয়কে দায়িত্ব দেয়া, বিষয়টি এখন দলের মধ্যে আলোচনার বিষয়।

নতুন করে পদ সৃষ্টি করে পদ দিতে গেলে দলের গঠনতন্ত্র পরিবর্তন করতে হবে, যা ইতোমধ্যেই আলোচনায় হয়েছে বলেও দলীয় সূত্র জানা যায়।

পারিবারিক ঐতিহ্য এবং ব্যক্তিগত প্রজ্ঞার কারণে জয় রাজনৈতিক অঙ্গণের তরুণ সমাজ, বিশেষ করে আওয়ামী লীগের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন তিনি। প্রত্যক্ষ রাজনীতিতে অংশ না নিলেও সরকারের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে জয়ের ভূমিকা ক্রমশই বৃদ্ধি পাচ্ছে। কথা বলছেন নানা গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে, যা দেশের গণমাধ্যমগুলোও গুরুত্বসহকারে প্রকাশ করে আসছে।

২০১০ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি জয় তার পিতৃভূমি রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্যপদ লাভ করেন। সদস্য পদ লাভ করার পর থেকেই দলের রাজনীতি এবং সরকারের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন তিনি। মা শেখ হাসিনার পাশাপাশি দলের হাল ধরবেন জয়, এমন গুঞ্জন দীর্ঘদিন থেকেই। বিশেষ করে যুবলীগ এবং ছাত্রলীগের রাজনীতিতে জয়ের উপস্থিতি এখন প্রধান অনুপ্রেরণা। গুরুত্ব পাচ্ছেন আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের কাছেও।

এছাড়া সরকারের ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে নিরলস কাজ কাজ করে যাচ্ছেন জয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়ে ইতোমধ্যেই বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি।

‘আওয়ামী লীগের ভবিষ্যৎ কাণ্ডারি সজিব ওয়াজেদ জয়’ এমনটি প্রত্যাশা করেন আওয়ামী লীগের প্রচার উপ-কমিটির সদস্য আমেনা কোহিনূর। জাগো নিউজের কাছে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে তরুণ এই নেত্রী বলেন, “শুধু পারিবারিক ঐতিহ্যের প্রশ্নেই নয়, সজিব ওয়াজেদ জয় তার প্রজ্ঞা আর মেধার প্রমাণ দিয়েই রাজনীতির কেন্দ্রে আসছেন। দলের মধ্যে তার উপস্থিতি আমরা গভীরভাবে প্রত্যাশা করছি, যা আসন্ন কাউন্সিলে পূরণ হতে পারে।”

দলের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এ ব্যাপারে বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয় দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে আসবেন, এটি সকলেই প্রত্যাশা করি। তার মতো ক্লিন ইমেজের ব্যক্তিত্ব দলের নেতৃত্বে এলে রাজনীতির ধারা আরো পরিশালীত হবে।”

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে জন্ম নেন সজিব ওয়াজেদ জয়। তার বাবা এম এ ওয়াজেদ মিয়া ছিলেন একজন খ্যাতনামা পরমাণু বিজ্ঞানী এবং মা শেখ হাসিনা বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী। ১৯৭৫ সালে তার নানা শেখ মুজিবুর রহমান নিহত হওয়ার পর মায়ের সঙ্গে জার্মানী-লন্ডন হয়ে ভারতে রাজনৈতিক আশ্রয় নেন। পরে শৈশব এবং কৈশর কেটেছে ভারতে।

ভারতের নৈনিতালের সেন্ট জোসেফ কলেজ হতে স্নাতক করার পর যুক্তরাষ্ট্রের দ্য ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস অ্যাট আর্লিংটন থেকে কম্পিউটার বিজ্ঞানে স্নাতক শেষ করেন। পরবর্তীতে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লোক প্রশাসন বিষয়ে স্নাতোকোত্তর শেষ ডিগ্রি অর্জন করেন। বর্তমানে স্থায়ীভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় বসবাস করছেন তিনি।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts