November 19, 2018

তৈমূরের স্বপ্নভঙ্গ!


রফিকুল ইসলাম রফিক,নারায়ণগঞ্জ:  দীর্ঘদিনের পুষে রাখা স্বপ্ন ভঙ্গ হলো নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি সভাপতি অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের। তবুও নাখোশ নন তিনি, কারণ স্বপ্নরূরণ হলে আবার জেলায় কোন কর্তৃত্ব থাকতো না তার। কারণ বিএনপির সর্বোচ্চ মহল থেকে ইতোমধ্যে এক নেতার এক পদ নীতি বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। আর অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার এখনো নারায়াণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি হিসেবেই দায়িত্বরত রয়েছেন। দীর্ঘদিন তিনি স্বপ্ন দেখেছেন কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হবার। এ জন্য তিনি বিভিন্ন সময় ঢাকার বিভিন্ন কর্মসূচীতেও নিজেকে সক্রিয় রেখেছেন, চালিয়ে গেছেন টক শো, লিখেছেন দলীয় বিভিন্ন বইও। কিন্তু সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে শনিবার (৯ এপ্রিল) দুপুরের পর কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিবের নাম ঘোষণা করলো দলটি। কিন্তু সেই নামের তালিকায় নেই অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার।

শনিবার (৯ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ এ নাম ঘোষণা করেন তিনি জানান, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব পদে ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, মজিবুর রহমান সারোয়ার, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, হারুনুর রশিদ ও লায়ন আসলাম চৌধুরী মনোনীত হয়েছেন।

তবে এ নিয়ে এখন নাখোশ নন জেলা বিএনপির বর্তমান সভাপতি অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার কারণ তিনি জানেন যদি তিনি যুগ্ম মহাসচিব হন তাহলে তাকে জেলা বিএনপির সভাপতি পদ ছেড়ে দিতে হবে, আর যেহেতু তিনি যুগ্ম মহাসচিব হননি সেহেতু তিনি জেলা বিএনপির সভাপতি হিসেবে পুনরায় দায়িত্ব পাওয়ার প্রত্যাশা করছেন। এখন দেখা যাক পরবর্তী জেলা বিএনপির সভাপতি হিসেবে তাকে আবার দল দায়িত্ব প্রদান করেন কিনা। এদিকে জেলার তৃনমূল বিএনপির নেতাকর্মীরা নতুন জেলা বিএনপির সভাপতি হিসেবে যিনি রাজপথে সক্রিয় ছিলেন, নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর নিয়েছেন, নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ রেখেছেন এমন নেতাকেই চাচ্ছে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/০৯ এপ্রিল ২০১৬/রিপন ডেরি

Related posts