September 18, 2018

তুরস্কে বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলা<<নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫০

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ তুরস্কে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০ জনে। দেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় গাজিয়ানটেপ শহরের ওই হামলায় আহত হয়েছে আরো ৯৪ জন। এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান বলেছেন, জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট ওই হামলা চালিয়ে থাকতে পারে।

রোববার সকালে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ভয়াবহ হামলায় অর্ধশত মানুষ নিহত হয়েছে বলে গভর্নরের কার্যালয় থেকে বিবৃতি দেয়া হয়েছে।

তবে এখনো পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী ওই হামলার দায় স্বীকার করেনি। রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম আনাদোলু নিউজ এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, এক বিবৃতিতে এরদোয়ান বলেছেন, তার সরকারের সঙ্গে বিরোধ আছে এমন তিনটি সংগঠন আইএস, পিকেকে এবং ফেটোর কার্যক্রমের মধ্যে কোনো তফাৎ নেই। এর আগে গত মাসে দেশটিতে ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাসিত ধর্মীয় নেতা ফেতুল্লাহ গুলেনকে দায়ী করেন এরদোয়ান। তবে গুলেন তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

খবরে বলা হয়েছে, একটি সড়কে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। দেশের দক্ষিণাঞ্চলে এটা খুব স্বাভাবিক ঘটনা। সেখানে প্রায়ই সড়কের মধ্যে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে দেখা যায়।

এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এক আত্মঘাতী হামলাকারী একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ওই বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে।

সিরীয় সীমান্ত থেকে ৬৪ কিলোমিটার দূরে গাজিয়ানটেপ শহরটি অবস্থিত।

দেশের উপ-প্রধানমন্ত্রী সিমসেক এই হামলাকে বর্বর হামলা বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি আরো বলেছেন, আল্লাহ চাইলে আমরা অবশ্যই এই অবস্থা অতিক্রম করতে পারব।

Related posts