September 22, 2018

‘তুরস্কের পররাষ্ট্রনীতির ব্যাপারে নাক গলানোর অধিকার ন্যাটো’র নেই’

ঢাকাঃ তুরস্ক কোন্ দেশের সঙ্গে সম্পর্ক করবে সে ব্যাপারে নির্দেশনা দেয়ার অধিকার ন্যাটো’র নেই বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ায় নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত উমিত ইয়াদিম। সম্প্রতি তুরস্ক ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্টদের মধ্যে বৈঠকের পরিপ্রেক্ষিতে পশ্চিমা এ মিত্রবাহিনী চরমভাবে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে বলে সংবাদ মাধ্যমে খবর বের হওয়ার পর আজ (বৃহস্পতিবার) এ মন্তব্য করলেন তিনি।

ইয়াদিম মস্কোয় বলেন, ‘অন্যান্য দেশের সঙ্গে আঙ্কারার সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে ন্যাটো কোনো রকম সীমাবদ্ধতা আরোপ করতে পারে না। এর অর্থ হচ্ছে, কার সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং যোগাযোগ করা উচিত অথবা উচিত নয় সে ব্যাপারে ন্যাটো তার নিজের নীতি আমাদের ওপর চাপিয়ে দিতে পারে না।’

দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বাড়ানোর পাশাপাশি সিরিয়া বিষয়ে যোগাযোগ বাড়ানোর ক্ষেত্রে মস্কো এবং আঙ্কারা সম্মত হয়েছে বলে জানান তিনি। তুরস্ক এবং রাশিয়া যখন সিরিয়ায় সংঘর্ষরত পরস্পর বিরোধী পক্ষগুলোকে আলাদাভাবে সমর্থন দিয়ে আসছে তখন ইয়াদিমের এই মন্তব্য এলো।

মস্কোর সেইন্ট পিটার্সবার্গে অনুষ্ঠিত তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান এবং রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মধ্যে বৈঠক ‘খুবই সফল’ হয়েছে বলে গত মঙ্গলবার রাষ্ট্রদূত জানিয়েছিলেন। মস্কো এবং আঙ্কারার মধ্যে সম্পর্ক এই অঞ্চল এবং পুরো বিশ্বের জন্য লাভজনক বলেও উল্লেখ করেন ইয়াদিম।

তিনি বলেন, ‘এ‌ই অঞ্চলের জন্য রাশিয়া এবং তুরস্ক খুবই গুরুত্বপূর্ণ দেশ। দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক পুরো অঞ্চলের ওপর প্রভাব ফেলবে। আর এটা বলা অতিরঞ্জিত হবে না যে, সম্ভাব্য সম্পর্ক গোটা বিশ্বের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ।’
সূত্রঃ pars today

Related posts