November 16, 2018

‘তুইসহ সব সাংবাদিকের নলা কেটে ফেলব’

2015_12_17_12_41_16_sBzKYwV4hsMl6MeQQYABXWXfpunXAJ_original

চবি : চট্টগ্রামের আঞ্চলিক পত্রিকা ‘দৈনিক পূর্বদেশ’ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) প্রতিনিধি মিজানুর রহমান মিজানকে বেধড়ক মারধর করেছে চবি শাখা ছাত্রলীগের বগি ভিত্তিক সংগঠন ‘সিক্সটি নাইন’ গ্রুপের কর্মীরা। এসময় মিজান সাংবাদিক পরিচয় দিলে তাকেসহ সব সাংবাদিকের নলা কেটে ফেলারও হুমকি দেয়া হয়।

রোববার দুপুর দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় অগ্রণী ব্যাংকের সামনে এ ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার মিজানুর রহমান মিজান বিশ্ববিদ্যালয় লোক প্রশাসন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

অভিযুক্তরা হলেন- সাইকোলজী ডিপার্টমেন্টের ২০১২-১৩ সেশনের সুরুজ মিয়া ও রবিন। তারা দু’জনই সদ্য স্থগিত করা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আলমগীর টিপুর অনুসারী ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের অগ্রণী ব্যাংকের সামনে মার্কেটিং বিভাগের পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশনের টাকা জমা দিতে লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন সাদ্দাম হোসেন। পিছনে ছিলেন চবি শাখা ছাত্রলীগের বগি ভিত্তিক সংগঠন ‘সিক্সটি নাইন’ গ্রুপের কয়েকজন কর্মী। এসময় ছাত্রলীগ কর্মীরা সাদ্দামকে তাদের আগে দিয়ে পিছনে দাঁড়াতে বললে তর্কাতর্কি হয়। পরে মিজানকে বিষয়টা জানানো হলে তিনি এসে সমাধান করার চেষ্টাকালে সাদ্দামকসহ মিজানকে মারধর করে ছাত্রলীগ কর্মীরা।

মারধরের শিকার হওয়া মিজানুর রহমান মিজান বলেন, ‘সাদ্দাম সেই সকাল থেকে টাকা জমা দিতে লাইনে দাঁড়িয়েছিল। হঠাৎ করে সুরুজ মিয়া ও রবিন নামে ওই দুই ছাত্রলীগ কর্মী আমাকেসহ সাদ্দামকে গলাটিপে ধরে মারধর করে। এসময় সাংবাদিক পরিচয় দিলে, আমাকেসহ সব সাংবাদিকের নলা কেটে ফেলারও হুমকি দেন তারা ।’

এদিকে এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের স্থগিত হওয়া কমিটির সভাপতি আলমগীর টিপু বাংলামেইলকে বলেন, ‘হাল্কা কথা কাটাকাটি হয়েছে। এর বাইরে কিছু হয়নি। সাংবাদিককে মারধরের বিষয়টি সত্য নয়।’

এদিকে এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রলীগ কর্মীদের শাস্তির দাবিতে প্রক্টর বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন মারধরের শিকার হওয়া মিজান ও সাদ্দাম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর আনোয়ার চৌধুরী বাংলামেইলকে বলেন, ‘এ ধরনের একটি অভিযোগ আমাদের কাছে দেয়া হয়েছে। তবে অফিস আওয়ার শেষ হওয়ার কারণে সাইন হয়নি। আগামীকাল বিষয়টি দেখা হবে।’

Related posts