November 19, 2018

তিন ভাইয়ের বাহাদুরিতে বেচে গেল হাজার প্রাণ?

একটা জায়গায় প্রায় এক মিটারের অংশ ভাঙা

নয়াদিল্লি ডেস্কঃ ভারতের ডিব্রুগড়-নয়াদিল্লি রুটের রাজধানী এক্সপ্রেস তিন ভাইয়ের বাহাদুরি এবং বুদ্ধিমত্তার জোরে বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল। প্রাণে বাঁচলেন এক হাজারেরও বেশি যাত্রী।

রবিবার রাতে ভারতের বিহার রাজ্যের মোকামা স্টেশনে এই ঘটনা ঘটে। লোকাল ট্রেন ধরার জন্য মোকামা স্টেশনে অপেক্ষা করছিলেন তিন ভাই।

ট্রেন আসতে দেরি হওয়ায় প্ল্যাটফর্মেই পায়চারি করছিলেন তারা। ওই সময়েই ডিব্রুগড়-নয়াদিল্লি রাজধানী এক্সপ্রেস সেখান দিয়ে পাস করার কথা ছিল। ট্রেন আসতে তখনো কয়েক মিনিট দেরি।

ঠিক সেই মুহূর্তেই ওই তিন ভাইয়ের চোখে পড়ে লাইনের একটা জায়গায় প্রায় এক মিটারের অংশ ভাঙা। আসেপাশে তারা কোনো রেলকর্মীকে খুঁজে পাননি যে এই খবরটা দেবেন।

উপায়ন্তর না দেখে নিজেরাই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন। লাইনে নেমে অনবরত টর্চ জ্বালাতে-নেভাতে থাকেন। সঙ্গে থাকা লাল গামছাও ওড়াতে থাকেন তারা।

দূর থেকেই এই বিষয়টি দেখতে পান রাজধানী এক্সপ্রেসের চালক। সঙ্গে সঙ্গে আপত্কালীন ব্রেক কষে ট্রেনটিকে থামান।

চালক নেমে এসে দেখেন, লাইনের একটা জায়গায় এক মিটারের মতো অংশ গায়েব। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর রেলকর্মীরা ছুটে আসেন। মেরামত করা হয় লাইনের ভাঙা অংশটি। তিন ভাইয়ের বাহাদুরিতে খুশি রেলকর্মীরা।

তাদেরই এক জন জানান, সময়মতো লাইনের ভাঙা অংশটি না দেখলে বিশাল বড় দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারত।

প্রাথমিক তদন্তের পর রেল জানিয়েছে, কমলা-গঙ্গা ইন্টারসিটি এক্সপ্রেস ওই লাইন দিয়ে যাওয়ার পরই ক্ষতিগ্রস্ত হয় লাইনটি। তবে, আসল কারণ খোঁজার চেষ্টা করছে তারা।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts