September 24, 2018

তিন প্রবাসী সাংবাদিককে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সম্মাণনা (ভিডিও)

মাহবুব রহমান, লন্ডন থেকেঃ বৃটিশ বাংলাদেশী সাংবাদিকদের প্রতিনিধিত্বশীল সংগঠন লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব তিনজন গুনি ব্যক্তিত্বকে সম্মান জানাতে ১৭ মে মঙ্গলবার আয়োজন করে বিশেষ এক সম্মাণনা অনুষ্ঠানের। (নীচে ভিডিও যুক্ত)

পূর্ব লন্ডনের মন্টিফিউরি সেন্টারে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে বাংলা একাডেমি কর্তৃক প্রবাসী লেখক পুরস্কার বিজয়ী প্রবীন সাংবাদিক ও লেখক জনাব ইসহাক কাজল ও লেখক গবেষক জনাব ফারুক আহমদ এবং কমনওয়েলথ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন ( সিজেএ ) এর ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় বিশিষ্ট সাংবাদিক জনাব সৈয়দ নাহাস পাশাকে স“র্ধনা প্রদান করা হয়।

লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি জনাব মাহবুব রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক জনাব এমদাদুল হক চৌধুরীর স ালনায় অনুষ্ঠিত এই সম্মাণনা অনুষ্ঠানের শুরুতে স“র্ধিত অতিথিবৃন্দকে ফুলের তোড়া উপহার দেন বিশিষ্ট লেখক জনাব ফরিদ আহমদ রেজা, সাংবাদিক জনাব মতিউর রহমান চৌধুরী ও জনাব আব্দুল আহাদ চৌধুরী বাবু। এছাড়া কমিউনিটির পক্ষ থেকে প্রবীণ ব্যক্তিত্ব আলহাজ্ব জিল্লুল হক, বাংলাদেশ সেন্টারে ভাইস প্রেসিডেন্ট জনাব মুহিবুর রহমান মুহিব ও বাংলাদেশ সেন্টারের প্রধান নির্বাহী জনাব মুস্তাফিজুর রহমান অতিথিদের ফুলের তোড়া উপহার দেন।

 

 

আলোচনার শুরুতে জনাব ইসহাক কাজল ও জনাব ফারুক আহমেদের জীবন ও কর্ম তুলে ধরেন সাংবাদিক জনাব মোহাম্মদ জুবায়ের ও সাংবাদিক জনাব আ স ম মাসুম। আর জনাব সৈয়দ নাহাস পাশার কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক সংক্ষেপে তুলে ধরেন প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জনাব এমদাদুল হক চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে লেখক ফরিদ আহমদ রেজা বলেন, আজকের তিন সংবর্ধিত গুনিজন যে কাজ করেছেন তা চির অম্লান হয়ে থাকবে। তিনি স“র্ধিত ব্যক্তিত্বদের সাফল্যকে উদযাপনে প্রেস ক্লাব এই আনন্দ অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় ক্লাব কর্মকর্তাদের প্রশংসা করেন।

সাংবাদিক আবু মুসা হাসান বলেন, যাঁরা লিখেন তারা জীবনের অনেক কিছু ত্যাগ করে রচনায় মগ্ন থাকেন। আর তাদের সেই লিখনির মাধ্যমেই আমরা নিজেদেরকে সমৃদ্ধ করি। আজকের অতিথিরা সেইসব গুনি মানুষদের একজন, যারা আমাদের সমৃদ্ধ করছেন।

প্রবীন সাংবাদিক জনাব শাহাব উদ্দিন আহমদ বেলাল বলেন, তিনজনই আমার কাছে গোলাপ ফুলের মত। গোলাপ ফুল বাসি হয়ে গেলেও সুগন্ধ ছড়ায়। এই তিনজন আমাদের মাঝে চিরকাল সুগন্ধ ছড়াবেন।

লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জনাব মোহাম্মদ আব্দুস সাত্তার বলেন, ইসহাক কাজলের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। ফারুক আহমদ এবং সৈয়দ নাহাস পাশা নিজেদের কাজের জন্যই প্রজন্মের কাছে অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন। তিনি বলেন, সাংবাদিকতার প্রতি নিষ্ঠা, আর নেতৃত্ব দেয়ার অসাধারণ গুণের কারণেই নাহাস পাশা আমাদের বৃটিশ বাংলাদেশী সাংবাদিকতাকে মূলধারায় নিয়ে গেছেন।

প্রখ্যাত টিভি উপস্থাপক উর্মি মাযহার বলেন, সৈয়দ নাহাস পাশা সাংবাদিকদের আন্তর্জতিক সংগঠন সিজেএ এর ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে মূলধারায় আমাদের অবস্থান মজবুত করেছেন। আর ইসহাক কাজল ও ফারুক আহমদ প্রবাস এবং মূলধারার মধ্যকার ব্যবধান ঘুচিয়ে দিয়েছেন বাংলা একাডেমি সম্মানণা অর্জনের মাধ্যমে।

প্রবীণ সাংবাদিক জনাব হামিদ মোহাম্মদ বলেন, আজকের সংবর্ধিত অতিথিবৃন্দ তাদের নিজ নিজ কাজে নিবেদিত প্রাণ। কলমকে তারা ব্যবহার করছেন মানুষের কল্যানে।

সাংবাদিক সৈয়দ মনসুর উদ্দিন বলেছেন, সম্মানিত তিন অতিথি আমাদের নতুন পথের দিশা দিয়েছেন। সৈয়দ নাহাস পাশা আমাদের তরুণ সাংবাদিকদের কাছে অনুকরণীয়।

টিভি উপস্থাপক ও সাংবাদিক জনাব বুলবুল হাসান বলেছেন, ইসহাক কাজল মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে যে কাজ করেছেন তার গুরুত্ব অপরিসীম। ফারুক আহমদকে তিনি একজন ভিন্ন ধারার গবেষক এবং ইতিহাস তুলে ধরার কারিগর হিসেবে বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, সৈয়দ নাহাস পাশা বিলেতে সাংবাদিক হিসেবে একজন পথনির্দেশক।

লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জনাব মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন আহমদ বলেন, আজকের তিন গুনি ব্যক্তিত্ব যা করেন তা অনেক বেশি আস্থার সাথে করেন।

সাপ্তাহিক জনমত এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর, জনাব আমিরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, সংবর্ধিত ব্যক্তিত্বরা আমাদের কমিউনিটিকে আলোকিত করে চলেছেন।

লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি জনাব নবাব উদ্দিন বলেন, তিন গুনি ব্যক্তিত্বকে একসাথে সম্মান জানাতে পারা আমাদের জন্য গৌরবের। তিনি বাংলা একাডেমির পুরস্কার পাওয়ার পর পরই এমন আয়োজন করতে না পারায় দুচ্ঞখ প্রকাশ করেন এবং আজকের আয়োজনে সবার প্রাণজ উপস্থিতির জন্য কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

সংবর্ধিত অতিথি লেখক ও গবেষক জনাব ফারুক আহমদ তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলা একাডেমি থেকে আরো কয়েকজন প্রবাসী লেখক সাহিত্যিক পুরস্কার অর্জন করেছেন, তাদেরকেও সম্মাণ জানানো উচিত।

প্রবীণ সাংবাদিক জনাব ইসহাক কাজল বলেন, মানুষকে ভালোবাসার কোন বিকল্প নেই। মানুষকে ভালো বাসতে পারলে জীবনের সফলতা আসবেই।

সাংবাদিক জনাব সৈয়দ নাহাস পাশা বলেন, যে কোন কাজ আন্তরিকতার সাথে করতে হবে। তাহলেই সাফল্য আসবে। সংবাদের পেছনে ছোটার নেশা এখনও আমাকে ছুটিয়ে নিয়ে যায় পৃথিবীর নানা প্রান্তে। আমি উপভোগ করি আমার সাংবাদিক জীবনের প্রতিটি মূহুর্ত।

অনুষ্ঠানে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে স“র্ধিত তিন অতিথিকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সর্বজনাব, অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশী এসোসিয়েশন আয়েবার কোষাধ্যক্ষ মুহিবুর রহমান মুহিব, সাপ্তাহিক নতুন দিনের ডিরেক্টর আব্দুল মতিন, ইউকে বাংলাদেশী ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন (ইউকেবিসিএ) এর সাধারণ সম্পাদক শাহনুর খান, মাসিক দর্পনের সম্পাদক রহমত আলী, সাপ্তাহিক পত্রিকার সাবেক নির্বাহী সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন, সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী, বাংলা টিভির হেড অব নিউজ এন্ড কারেন্ট এফেয়ার্স মিলটন রহমান, ইকরা টিভির হেড অব প্রোগ্রাম হাসান হাফিজুর রহমান পলক, সাংবাদিক এম এ কাইয়ূম, কলিন চৌধুরী, সাপ্তাহিক জনমতের নির্বাহী সম্পাদক সায়েম চৌধুরী, সাপ্তাহিক নতুন দিনের সৈয়দ আব্দুল কাদির প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে সম্প্রতি টাওয়ার হ্যামলেটস’ কাউন্সিল কর্তৃক সিভিক এওয়ার্ড লাভ করায় প্রেসক্লাবের সদস্য সৈয়দ জহুরুল হককেও ফুলের তোড়া দিয়ে অভিনন্দন জানানো হয়।

ভিডিওঃ  তিন প্রবাসী সাংবাদিককে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সম্মাণনা

 

Related posts