November 16, 2018

তিনদিন পর খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম সড়কে যান চলাচল শুরু

আল-মামুন,
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ  খাগড়াছড়ি হাটহাজারী মালিক শ্রমিক ইউনিয়ন সমযোতার বৈঠক তিনদিন পর খাগড়াছড়ি চট্টগ্রাম সড়কে যান চলাচল শুরু গত বৃহস্পতিবার অক্সিজেন কাউন্টারে গাড়ীর সিরিয়াল নেওয়া ও টিকেট কাটাকে কেন্দ্র করে নাজির হাট লাল কার্ড ও হাটহাজারী কালো কার্ড শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্যরা খাগড়াছড়ি শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্য ড্রাইবার মনির হোসেনকে রট ও গাড়ীর জগ লিভার দিয়ে মেরে আহত করে।

এদিকে ড্রাইবার মনির হোসেনকে রট ও গাড়ীর জগ লিভার দিয়ে মেরে আহত করার খবর যানাযানি হলে ক্ষোভে ফুসেঁ উঠে খাগড়াছড়ি শ্রমিক ইউনিয়ন। এরই জের ধরে খাগড়াছড়ি বাস টার্মিনালে নাজির হাট পরিবহনের সদস্য কার্ড বিহিন হেলপার মোঃ বাবুলকে মারধর করে অন্ন্য হেলপাররা, এখবর পাওয়ার পর পর  নাজির হাট লাল কার্ড ও হাটহাজারী কালো কার্ড শ্রমিকরা এর প্রতিবাদে চট্টগ্রাম সড়কে যান চলাচল বন্দ করে দেয়।

এতে জন দুর্ভোগে পরে হাজার হাজার যাত্রী। যাত্রীদের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে খাগড়াছড়ি মালিক গ্র“ফ ও শ্রমিক ইউনিয়ন চট্টগ্রাম সড়কে যান চলাচল অব্বাহত রাখে। কিন্ত যাত্রী নিয়ে খাগড়াছড়ি থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যাওয়া গাড়ী গুলি জেলার মানিকছড়ি পার হয়ে নাজির হাট বা হাটহাজারীতে গেলে লাল কালো নাম ধারি শ্রমিকরা গাড়ী থেকে নামিয়ে ও অক্সিজেনসহ বিবিন্ন টার্মিনালে হামলা চালিয়ে ড্রাইবার আব্দুল মান্নান, মনির হোসেন, জহিরুল ইসলাম, মোঃ হোসেন ড্রাইবার ও হেলপার মোঃ বাবুলসহ অন্তত আট দশ জনকে মেরে আহত করে।

হামলার প্রতিবাদে রবিবার (২৯মে) থেকে বন্দ হয়ে যায় খাগড়াছড়ি চট্টগ্রাম সড়কের যান চলাচল। এদিকে ২৯মে বিকালে চট্টগ্রাম জেলা বাস-মিনিবাস যানবাহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক মুহাম্মদ হারুনের সাক্ষরিত এক বহিস্কার বিজ্ঞপ্তির মাধমে  জানানো হয় গত ২৮মে বিকাল ৪টার সময় বড় দিঘীর পারসহ বিবিন্ন স্থানে খাগড়াছড়ি গামী বাস এর চালক ও সহকারীদেরকে নিু বর্ণিত ব্যক্তিগন হামলা চালিয়ে লাইনে বিশৃংখলা সৃষ্টি করায় তাদেরকে লাইন থেকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য বহিস্কার ও তাদেও বিরুদ্ধে থানায় আইনগত ভাবে মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।

এমতা অবস্থায় তাদেরকে কোন বাস-মিনিবাসে চাকুরি না দেওয়ার জন্য সংগঠনের পক্ষ থেকে নির্দেশ দেওয়া গেল। লাল কালো কার্ড নাম ধারী ঘটনার সাথে জরিতরা হলেন জালিয়া পাড়ার টুটুল ড্রাইবার, বাগান বাজারের মোঃ জামাল উদ্দীন, দিঘীনালার অবৈধ ও বহিরাগত শ্রমিক রিপন, নাজির হাটের অবৈধ ও বহিরাগত শ্রমিক বাদশা, দিঘীনালার আর এক অবৈধ ও বহিরাগত শ্রমিক রাশেল ও মেখল এলাকার অবৈধ ও বহিরাগত শ্রমিক নুরুল আলম। দীর্গ তিন দিন বন্দ থাকার পর মঙ্গলবার সকালে খাগড়াছড়ি পৌর বাস টার্মিনালে শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে তিন সংগঠন নাজির হাট লাল কার্ড, হাটহাজারী কালো কার্ড শ্রমিক ইউনিয়ন ও খাগড়াছড়ি শ্রমিক ইউনিয়নের মধ্যে সমযোতার বৈঠকে ঘটনার সাথে জরিতদের বিরুদ্ধে যথাযত সাংগঠনিক ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে কল্পে বিকাল থেকে খাগড়াছড়ি চট্টগ্রাম সড়কে যান চলাচল শুরু হয়েছে।

সমযোতা বৈঠকে হাটহাজারী শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি একরাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে  অনুষ্টিত সভায় উপস্থিত ছিলেন,  হাটহাজারী শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক মোঃ হারুন, যুগ্ন সম্পাদক মোঃ শাহিন ও খাগড়াছড়ি বাস-মিনিবাস মালিক গ্র“পের দপ্তর সম্পাদক অনন্ত বিহারী চাকমা,মলিক গ্র“পের লাইন নিয়ন্ত্রক ও নব নির্বাচিত শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ আবু তাহের, শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল আজিম, সাধারন সম্পাদক মাহাবুব উল আলম, রনজিৎ দে, সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল উদ্দীন, রতন ত্রিপুরা ও নকুল দেবনাথ প্রমূখ।

খাগড়াছড়ির আরো খবর।

কোমলমতি শিশুদের জীবন বাচাঁতে এগিয়ে আসুন  

খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলার সীমান্তবর্তী হাতীমুড়া বাজার এলাকায় প্রতিনিয়ত ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা। এসব দুর্ঘটনায় অনেকেই অকালে হারিয়েছে জীবন, কেউবা আবার আজীবনের জন্য পঙ্গুত্ব বরণ করছে। স্থানীয়দের দাবী দুর্ঘটনা রোধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের।

স্থানীয়দের দাবী, খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম আঞ্চলিক মহাসড়কটির দক্ষিণ পাশ্বে অবৈধ দখল মুক্ত করে সড়কটি বাজার সংলগ্ন হইতে সরিয়ে নিয়ে সোজা করলে দূর্ঘটনা রোধ করার পাশাপাশি হাতীমুড়া বাজারটি আরো সম্প্রসারণ করা সম্ভব হবে। এতে একদিকে কমবে সড়ক দূর্ঘটনা অন্যদিকে হাতিমুড়া বাজারটি আরো উন্নত ও আধুনিকায়ন করা সম্ভব হবে।

সরেজমিনে দেখা যায়, চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কের হাতীমুড়া বাজারের সন্নিকটে প্রায় ৯০ডিগ্রী বাঁকা মোড়ের কারনে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। বাজারের প্রায় ২০গজের মধ্যেই রয়েছে একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। ছোট ছোট শিশুরা বিদ্যালয়ে যাওয়ার সময় দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। ইতিপূর্বে হাতীমুড়া ওসমান পল্লী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী রেদোয়ান সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হয়ে সারাজীবনের জন্য পঙ্গত্ব বরণ করেছে। হারিয়েছে তার একটি পা। এছাড়াও শাহনাজ আক্তার নামের এক প্রতিবন্ধীও রেদোয়ান মত পঙ্গুত্বের দূর্ষহ জীবন কাটাতে হচ্ছে। ছাত্র/ছাত্রীর পাশাপাশি এলাকার মোটর সাইকেল আরোহীরা প্রায়ই দূর্ঘটনায় পতিত হচ্ছে মারাত্মক এই মোড়ের কারণে।

এব্যাপারে হাতীমুড়া ওসমান পল্লী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি এম জুলফিকার আলী ভুট্টু ও বাজার কমিটির সাধারন সম্পাদক মো: জাহিদুল ইসলাম এবং শাহাদাৎ হোসেন রিপন জানান, বর্তমান উন্নয়ন মুখী সরকার যদি হাতীমুড়া বাজার সংলগ্ন ঝুকিপূর্ণ মোড়টি দক্ষিণ দিকে সরিয়ে দিলে বাজার ব্যবসায়ীদের যেমন মঙ্গল হবে তেমনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের সমস্যা সড়ক দূর্ঘটনা রোধ করা সম্ভব হবে। জনস্বার্থে তাই সরকারের কাছে মোড়টি দ্রুত সরিয়ে নেওয়ার দাবী জানিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মোসলে উদ্দিন জানান, এ বিষয়ে আমাদের কাছে আবেদন এসেছে, আমরা সরেজমিনে জায়গাটি পরিদর্শন করে জনস্বার্থে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ৩১ মে ২০১৬

Related posts