September 19, 2018

তারুণ্য ধরে রাখার জাদুকরী খাবার

বৃদ্ধ বয়সে মানুষের শরীরে বিভিন্ন রোগব্যাধি বাসা বাঁধে।এই সময় দেখা দেয় নানা শারীরিক জটিলতা, ঘাটতি দেখা দেয় কর্মস্পৃহায়ও। তবে বয়সকে থামানো না গেলেও দীর্ঘদিন তারুণ্য ধরে রাখার গোপন উপায় বর্ণনা করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, দৈনন্দিন খাবারেই লুকিয়ে আছে এর গোপন রহস্য। চলুন জেনে নেয়া যাক তারুণ্য ধরে রাখার বিশেষজ্ঞদের দেয়া কিছু টিপস।

তারুণ্য ধরে রাখতে যারা বদ্ধপরিকর তাদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ হচ্ছে ডায়েটে প্রোটিনযুক্ত খাবার রাখা। মুরগির মাংস, ডিম, সামুদ্রিক খাবার, বাদামের মাখন, চর্বিমুক্ত দুধ, দই, কম চবির্যুক্ত পনির ইত্যাদি খাবার তারুণ্য ধরে রাখতে সহায়তা করে।

দ্বিতীয় ধাপে খেতে পারেন বেগুনি রঙের খাবার। যেমন, পাম ফল, বেরি, বাঁধাকপি, কিডনি শিম(পটাসিয়াম এবং জিঙ্ক সমৃদ্ধ)। এসব খাবার আপনার ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করবে এবং বার্ধক্য প্রতিরোধ করবে।

শাকসবজির গুরুত্ব বা উপকারিতার কথা নতুন করে বলার কিছুই নেই। তবে কোন ধরনের সবজি কেমন উপকারে আসে তা জানা গুরুত্বপূর্ণ। ঘন সবুজ শাকসবজি হাড়ের ক্ষয় রোধ এবং চোখের জ্যোতি বৃদ্ধি করে। প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ গাজর এবং টমেটোও বার্ধক্য প্রতিরোধ করে। ব্রকোলিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন-সি এবং তারুণ্য ধরে রাখার উপাদান রয়েছে। এটি হৃদরোগ প্রতিরোধেও সাহায্য করে। আপনার ডায়েটে আরেকটি খাবার রাখতে পারেন। সেটি হচ্ছে বাদাম। কাজুবাদাম এবং আখরোট শক্তি বৃদ্ধি করে এবং মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়ায়। তবে মিষ্টিযুক্ত একটি খাবার ডায়েটে অবশ্যই রাখবেন। সেটি হচ্ছে কালো চকোলেট। তারুণ্য ধরে রাখার জাদুকরী খাবার বলা হয় কালো চকোলেটকে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/১১ এপ্রিল ২০১৬/রিপন ডেরি

Related posts