November 20, 2018

‘তথ্য বের হলে সরকার জড়িয়ে পড়বে, তাই ক্রসফায়ারের নির্দেশ’

ঢাকাঃ  তথ্য বের হলে সরকার জড়িয়ে পড়বে, তাই ক্রসফায়ারবিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, সাঁড়াশি অভিযানের নামে যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে, তাদের রিমান্ডের নামে ক্রসফায়ারে দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, প্রকৃত ঘটনা ও অপরাধীদের আড়াল করতেই রিমান্ডে থাকা আসামিকে ক্রসফায়ারের নামে হত্যা করা হচ্ছে। শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটলে আয়োজিত এক ইফতার মাহফিলে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন। জাগপা এ ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেছে।

খালেদা জিয়া বলেন, গুপ্তহত্যায় সরকারের সম্পৃক্ততা বেরিয়ে পড়ার ভয়ে দু-একজন প্রকৃত অপরাধী ধরা পড়লেও তাদের ‘ক্রসফায়ারে’ দেয়া হচ্ছে।

খালেদা জিয়া অভিযোগ করেন, উচ্চ আদালত নির্দেশনা দিয়েছেন বিনা ওয়ারেন্টে, সাদা পোশাকে কাউকে গ্রেফতার করা যাবে না। কিন্তু সে নির্দেশনা মানা হচ্ছে না। খালেদা অভিযোগ করেন, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী না অন্য কারও নির্দেশ পালন করেন তা নিয়ে প্রশ্ন আছে।

খালেদা জিয়া বলেন, দেশের স্বাধীনতা বিপন্ন হতে চলেছে। এ অবস্থায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান ও সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মাওলানা আব্দুল হালিম, জাতীয় পার্টির (জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, এলডিপির মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ, বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণি, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের (বিএমএল) সভাপতি এএইচএম কামরুজ্জামান খান, খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির মাওলানা মুজিবুর রহমান পেশোয়ারী, এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাওলানা আব্দুর রাকিব, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, পিপলস লীগের সভাপতি গরীবে নেওয়াজ, ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান আবু তাহের চৌধুরী, বিজেপির প্রেসিডিয়াম সদস্য সালাহউদ্দিন মতিন প্রকাশ, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক সাঈদ আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ১৮ মে ২০১৬

Related posts