September 22, 2018

ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ৮ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

রফিকুল ইসলাম রফিক
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
নারায়ণগঞ্জে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তর। বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা থেকে বিকাল বিকাল ৪ টা পর্যন্ত যাত্রাবাড়ি থেকে কাঁচপুর ব্রিজ পর্যন্ত ৮ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রট মিজানুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী আলীনুর হোসেন, ইঞ্জিনিয়ার জাকির হোসেন, সহকারী ইঞ্জিনিয়ার সোহেল মাহমুদ অন্যান্য কর্মকর্তারা। সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রট মিজানুর রহমান জানান, যাত্রবাড়ি থেকে কাঁচপুর ব্রিজ পর্যন্ত সাড়ে ৭ কিলোমিটার ৮ লেনের মহাসড়কটি ১৩ আগষ্ট মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করবেন। তাই সড়কের পাশ ঘেষে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। এর আগে পত্রিকার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ও মাইকিং করা হয়ছে অবৈধ স্থাপনা সড়িয়ে নেওয়ার জন্য। এদিকে সানারপাড় এলাকার নাসিক ৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন আহম্মেদের ৪টি দোকান রহস্য জনক কারনে উচ্ছেদ না করায় সড়ক ও জনপদের নির্বাহী প্রকৌশলী আলীনুর হোসেনের ভূমিকাকে রহস্য মনে করছেন এলাকাবসী।

আরও খবর………।।

বিয়ের প্রলোবনে ধর্ষন

সোনারগাঁওয়ে বিয়ের প্রলোবান দেখিয়ে আখিঁ (২৩) নামের এক সন্তানের জননিকে ৪ মাস আটকে রেখ একাদিকবার ধর্ষন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে মো:মামুন(৩২),মো:কবির(৫০),মোসা: ফাতেমা বেগম (৫৫) মো:আকতার মিয়া (৬০) মো: রাজন মিয়া (৩২) সহ ২/৩ জনকে অজ্ঞাত নামা আসামী করে গত ১০ আগষ্টট সোনারগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

ধর্ষিতা ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মোগরাপাড়া ইউপির ভাটিপাড়া গ্রামের আকতার মিয়ার ছেলে মো:মামুন একই এলাকার সেলিমের স্ত্রী আখিঁকে বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আখিঁ কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মামুন গৃহবধুর ভাড়াটিয়া বাড়ী সামনে এসে বিভন্ন সময় ভয়ভীতি দেখাত। গত ১১/৪/২০১৬ তারিখে সন্ধ্যায় গৃহবধু তার মেয়ে নুসরাতকে নিয়ে পিতার বাড়ীর উর্দ্দেশ্যে রওনা দেই। এসময় পথিমধ্যে ভাটিপারা গ্রামের আকতার মিয়ার ছেলে ধর্ষক মো:মামুন, মৃত আ: লতিফের ছেলে মো: মো:কবির, আকতার মিয়ার স্ত্রী মোসা: ফাতেমা বেগম, মো: কিরু মিয়ার ছেলে মো: রাজন সহ আজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জনের সহযোগিতায় এটি সাদা মাইক্রোবাসে তুলে আখিঁ ও তার মেয়ে নুসরাতকে অপহরন করে পিরোজপুর গ্রামের জনৈক ইয়াকুবের বাড়ীতে আটক করে ধর্ষন করে।

পরে গৃহবধুর মেয়েকে একটি কক্ষে জিম্মি করে আখিঁর স্বামীকে তালাক দিতে বাধ্য করে। মামুন গত ৩ মার্চ গোহাট্রা গ্রামে একটি ভাড়া করা বাড়িতে গৃহবধুকে আটকে রেখে বিয়ের প্রলোবন দেখিয়ে ইচ্ছের বিরুদ্ধে একাধিক বার ধর্ষন করে। পরবর্তীতে বিষয়টি জানাজানি হলে ধর্ষিতার স্বজনেরা তাকে ৪ মাস পর উদ্ধার করে। এঘটনায় গত ১০-৮-১৬ ইং তারিখে ধর্ষিতা বাদী হয়ে সোনারগাঁও থানায় একটি মামলাদায়ের করে।

মামলার তদন্ত কারী কর্মকর্তা (এস আই) নাজমুল আলম জানান, ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালা
সিদ্ধিরগঞ্জে দু’পক্ষের দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়াঃ আহত ২৫

সিদ্ধিরগঞ্জ আদমজীতে কোমল পরিবহনের শ্রমিক সংগঠনের অফিস দখলকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের ও শ্রমিকদের সঙ্গে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষে ২০/২৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের বিভিন্ন হসাপাতলে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলো, রুবেল, কালাম, আসরাফ, সাকিব ,লিটন, শাহাদাৎ, সালাউদ্দিন, শাহজালাল, নবী হোসেন, রহমত আলী, আঃ সাত্তার। অন্যাদের নাম জানা যায়নিই। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ করেছেন। এদিকে শ্রমিকদের উপর হামলা ও মামলা হওয়ার কোমল পরিবহন শ্রমিকরা গাড়ি বন্ধ করে বৃহস্পতিবার পুর্ণ দিবস প্রতিবার করেছে। বুধবার রাত সাড়ে ১০ টায় আদমজী বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। এনিয়ে আদমজীতে কোমল পরিবহনের শ্রমিক ও কাউন্সিলর আলা বাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহুত্বে উভয় গ্রুপ রক্তক্ষই সংর্ঘষে জড়িয়ে যেতে পারে। বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় পুলিশের টহল বৃদ্ধি করা হয়েছে। এদিকে নাসিক ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলী হোসেন আলা হামলার কথা স্বীকার করেনি।

জানাগেছে, ঢাকা আদমজী রোডে প্রতিদিন কোমল পরিবহনের ৬০টি বাস চলাচল করে। দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে শ্রমিক সংগঠন নামে বাসষ্ট্যান্ডে সালাউদ্দিন ও শাহাজালাল দখল করে নিজেদের মনমত কমিটি করে শ্রমিকদের ন্যাজ্জ অধিকার আদায় করছেনা। তাই শ্রমিকরা শ্রমিক সংগঠনের নির্বাচন বা পুর্নরায় কমিটি করার জন্য বারবার বলার পরেও তারা কমিটি করছেনা। মঙ্গলবার কোমল পরিহবনের শ্রমিকরা অফিস নিজেদের দখলে নিলে সালাউদ্দিন ও শাহাজালাল সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে অফিস ছাড়াতে বলে। বুধবার রাত সাড়ে ১০ টার সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক ও নাসিক ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলী হোসেন আলা, থানা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক সালাউদ্দিন , কোমল পরিবহনের সাধারন সম্পাদক শাহজালাল, কাউন্সিলর আলার পিএস মোস্তাফা, আলা বাহিনীর ক্যাডার রাজু, রিপন, আমজাদ, আরিফসহ শ্রমিক নেতা রুবেল ও চান্দুকে অফিস থেকে জোর করে তারিয়ে অফিসটি দখলে নেয় এবং তালা মারে। পরে অন্যান্য শ্রমিকরা বাধা দিলে কাউন্সিলর আলার নিদের্শে তার বাহিনী লাটি সোটা ও দেশী অস্ত্র দিয়ে শ্রমিকদের উপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে অন্যান্য শ্রমিকরা আসলে কাউন্সিলর আলা বাহিনীর সাথে দফায় দফায় দাওয়া পাল্টা দাওয়ার ও সংঘর্ষ হয় পরিবহন শ্রমিকদের। এতে উভয় গ্রুপের ২০/২৫ জন আহত হয়। এ সময় আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়। রাত ১০টা থেকে ৩ টা পর্যন্ত কয়েক দফা দাওয়া চলা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ কয়েক বার উভয় গ্রুপকে দাওয়া দেয়। এদিকে রাত সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক ও নাসিক ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলী হোসেন আলার নিদের্শে থানা শ্রমিকলীগের সভাপতি কোমল পরিবহন ১০ শ্রমিক নেতার বিরোদ্ধে থানায় মামলা করেছে। যার নং ২৩।

অপর দিকে মামলার খবর পেয়ে সকাল ৬ টা থেকে বিকাল ৬ টা পর্যন্ত শ্রমিকরা আদমজী কোমল পরিবহনের সকল বাস বন্ধ করে শ্রমিক নেতাদের বিরোদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গাড়ি বন্ধ করে প্রতিবাদ করছে। তারা কাউন্সিলর আলা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর বিরোদ্ধে বিভিন স্লোগা দেন। এর আগে দুপুর ১২ টার কোমল পরিবহনের শ্রমিক নেতা রুবেল বাদি হয়ে কাউন্সিলর আলা বাহিনী ৮ জনের নাম উল্লেখ ও ১৫-২০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে থানা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

এদিকে আহত শ্রমিক আবুল কালাম বলেন, কাউন্সিলর আলার নিদের্শ আমাদের উপর হামলা করা হয়েছে। কাউন্সিলর আলা কথায় কথায় সংসদ শামীম ওসমানের নাম ব্যবহার করে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। তার একটি সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে নাসিক ৭নং ওয়ার্ড দখল করেছে। এখন ৬নং ওয়ার্ডে শ্রমিক সংগঠনটির অফিস দখল করে নেওয়ার জন্য এ হামলা চালিয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মুঃ সরাফাত উল্লাহ সংঘর্ষের কথা স্বীকার করে বলেন, শ্রমিক পরিবহনের অফিস দখল করা নিয়ে এ সংঘর্ষ হয়েছে। উভয় গ্রুপ থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবে। সংঘর্ষ স্থানে পুলিশের টহল বৃদ্ধি করা হয়েছে।

তৈমূরকে সিদ্ধিরগঞ্জ বিএনপির শুভেচ্ছা

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি এডঃ তেমূর আলম খন্দকার বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা হওয়ায় তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায় সিদ্ধিরগঞ্জের ৮নং ওর্য়াড বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে নারায়গঞ্জ জেলা আইনজীবি সমিতি ভবনের সামনে এ শুভেচ্ছা জানানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা বিএনপির ভারপ্রপ্ত আহবায়ক আলী হোসেন প্রধান, বিএনপি নেতা অহিদ মিয়া, জাকির হোসেন, আওলাদ হোসেন, আহমেদ হুমায়ন কবীর, মোতালীব হোসেন, যুবদল নেতা মিদুল, মোঃ আনু, আব্দুর রহমান, ছাএদল নেতা লিমন,ও রাসেল গরীবুল্লা প্রমূখ।
কোরবানীর পশুর জবাই ১৮১ স্থান নির্ধারণ এনসিসি’র

কোরবানির পশু জবাইয়ের জন্য নারায়নগঞ্জ সিটি করপোরেশনে ১৮১ স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। কোরবানির ১০ থেকে ১৫ দিন আগে কখন কোন এলাকার বা বাড়ির পশু জবাই হবে, তার বিবরণ-সংবলিত প্রতিটি বাড়িতে পৌঁছানো হবে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার, পলী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এ তথ্য জানান মন্ত্রণালয়ের ঐ বৈঠকে মেয়র আইভী উপস্থিত ছিলেন।

বেলা ১১টায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সভাকক্ষে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ‘কোরবানির পশু নির্ধারিত স্থানে জবেহকরণ ও দ্রুত বর্জ্য অপসারণে করণীয়’ বিষয়ে দেশের সব সিটি করপোরেশন ও সংশিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠকে এ তথ্য জানান মন্ত্রী। তিনি বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। মেয়র আইভী ছাড়াও এতে দেশের ১১টি সিটি করপোরেশনের মেয়র, ভারপ্রাপ্ত মেয়র, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশনসহ সংশিষ্ট সংস্থা ও দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে জানানো হয়, কোরবানির পশু জবাইয়ের জন্য দেশের সব সিটি করপোরেশন ও জেলা শহরে সম্ভাব্য ৬ হাজার ২৩৩টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে দেশের ১১টি সিটি করপোরেশনের জন্য ২ হাজার ৯৪৩টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের জন্য ৫৬৭টি এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জন্য ৫৮৩টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এ ছাড়া চট্টগ্রামে ৩৮৭টি, রাজশাহীতে ২২৪টি, খুলনায় ১৬০টি, গাজীপুরে ৪২৬টি, নারায়ণগঞ্জে ১৮১টি, সিলেটে ২৭টি, রংপুরে ৯৯টি, বরিশালে ১৪০টি এবং কুমিলা সিটি করপোরেশনে ১৪৯টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। সিটি করপোরেশনগুলোতে পশু কোরবানিতে অংশ নেবেন ৪ হাজার ৮৮৫ জন ইমাম ও ১২ হাজার ৬৩৮ জন কসাই। সিটি করপোরেশনগুলোর নিজস্ব ওয়েবসাইটে এ তালিকা পাওয়া যাবে।

বৈঠকে মন্ত্রী বলেন, ধর্মীয় মূল্যবোধ সমুন্নত রেখে জনস্বাস্থ্য ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা এবং পরিবেশ সুরক্ষার বিষয়কে বিবেচনায় রেখে কোরবানির পশু নির্দিষ্ট স্থানে জবাই করতে জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। তিনি এ ব্যাপারে এখন থেকে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে সিটি করপোরেশনসহ সংশিষ্ট ব্যক্তিদের নির্দেশ দেন।

বৈঠকে জানানো হয়, কোরবানির ১০ থেকে ১৫ দিন আগে—কখন কোন এলাকার বা বাড়ির পশু জবাই হবে, তার বিবরণ-সংবলিত প্রতিটি বাড়িতে পৌঁছানো হবে। কোরবানির অন্তত ১০ দিন আগে এলাকাভিত্তিক পশুর হাটে এবং প্রতিটি ওয়ার্ডে পশু জবাইয়ের নির্ধারিত স্থানের তালিকা ব্যানারে টাঙিয়ে দেওয়া হবে। পশু কোরবানির পর পরিত্যক্ত বর্জ্য অপসারণের জন্য প্রয়োজনীয় যান ও যন্ত্রপাতি প্রস্তুত রাখতে হবে। ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে স্থানটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে ব্যবহারের উপযোগী করার ব্যবস্থা নিতে হবে।

এতে আরও জানানো হয়, সার্বিক ব্যবস্থাপনা ঠিক রাখতে সিটি করপোরেশনের স্থানীয় কাউন্সিলরদের নেতৃত্বে স্থানীয় ইমামদের অন্তর্ভুক্ত করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। ১৮ বছরের কম বয়সী মাদ্রাসাছাত্রদের পশু জবাইয়ের কাজে অন্তর্ভুক্ত না করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
শ্রবণের অঝোর ধারার বৃষ্টিতে থমকে গেছে নহরীর জনজীবন

শ্রবণের অঝোর ধারার বৃষ্টি ও যানজটে থমকে গেছে নারায়ণগঞ্জের জনজীবন। একদিন বিরতী দিয়ে দিয়ে অঝোর ধারার বৃষ্টি। অন্যদিকে যানজটে থমকে গেছে নারায়ণগঞ্জের জনজীবন।
ফলে জেলার ছিন্নমূল ও শ্রমজীবী মানুষসহ সাধারণ নাগরিকদের দুর্ভোগের অন্ত নেই। যানজট ও সড়কের বেহাল অবস্থার কারণে যথাসময়ে কর্মস্থলে পৌঁছানোই নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। অফিস শেষে বৃষ্টি ও অসহনীয় যানজটে আবার শুরু হয়েছে বাসায় ফেরার যুদ্ধ।
বর্ষণে জেলার বিভিন্ন ভাঙ্গা সড়কের বেহাল দশা। সদর উপজেলার বেশ কিছু সড়কে চলছে খোঁড়াখুঁড়ি। পাড়া-মহল্লা থেকে শুরু করে অভিজাত আবাসিক এলাকাগুলোতে চলছে একই কাজ।
ফতুল্লার নয়ামাটির বাসিন্দা সালমা বেগম বলেন, বর্ষা শুরু হলেই রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ির কাজ শুরু করে কর্তৃপক্ষ। আর দুর্ভোগ পোহাতে হয় সাধারণ মানুষকে। সামান্য বৃষ্টিতে জেলার সড়কগুলো জলাশয়ে পরিণত হয়। পানি ওঠে ঘরে।

জেলার প্রধান এলাকাগুলোর পাশাপাশি নিম্না লের মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। রাস্তায় রিকশা-গাড়ি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ময়লা পানির ওপর দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে নারায়ণগঞ্জবাসীকে।

সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান বলেন, কর্তৃপক্ষ সঠিক সময়ে রাস্তার সংস্কার এবং ড্রেনেজ ব্যবস্থা না করার কারণেই পানি সরতে পারছে না। ফলে স্থায়ী জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে।
শহরের চাষাড়া এলাকারবাসীন্দা জানান, বৃষ্টির সময় বিভিন্ন স্থানে পানি ওঠে। রাস্তায় গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় ফুটপাত দিয়েও মানুষ হাঁটতে পারে না। রাস্তায় সিটি করপোরেশনের ময়লা-আবর্জনাগুলো পানিতে ভেসে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে।

চাষাড়া ফুটপাতে হকারদের পণ্যের বর্জ্য ও ময়লা ছড়িয়ে ছিটিয়ে ফেলে রাখা হয় হকাস্ মার্কেটের সামনে। বৃষ্টি হলে আবর্জনায় ড্রেনের মুখ বন্ধ হয়ে যায়।

বিবি রোডের গৃহিণী হাবিবা সুলতানা বলেন, রাস্তা সংস্কারের কাজ ও বৃষ্টির কারণে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে মার্কেটগুলোর সামনে রাস্তায় যত্রতত্র গাড়ী পাকিং করে রাখায় যানজট আরও ভয়াবহ রূপ নিয়েছে।

প্রতিদিন এই যানজট ও জলাবদ্ধতার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হচ্ছে নগরবাসীর। দুর্ভোগের অবসান হবে কত দিনে? এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানে না নগরবাসী।

জিহাদের অপব্যাখ্যায় জঙ্গীবাদ সৃষ্টি করছেঃ এসপি

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান মিঞা বলেছেন, ইসলামের নামে মানুষ কোনটা ভুল করছে আর কোনটা সঠিক সেই ভুলটা তুলে ধরার দায়িত্ব আলেম ওলামাদের। আর নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মঈনুল হক বলেছেন, জিহাদের অপব্যাখ্যা দেয়া হয়। জঙ্গীবাদ সৃষ্টিতে এটাও একটা কারণ।

সন্ত্রাস, নাশকতা ও জঙ্গীবাদ প্রতিরোধে মাদরাসা প্রধান ও ওলামায়ে কেরামের ভূমিকা শীর্ষক মত বিনিময় সভায় নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপার উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলার ৬৫টি মাদরাসার প্রতিনিধিদের সঙ্গে এ মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান মিঞা আরো বলেছেন, ইসলামের নামে মানুষ কোনটা ভুল করছে আর কোনটা সঠিক সেই ভুলটা তুলে ধরার দায়িত্ব আলেম ওলামাদের। কারণ আলেম ওলামারাই ইসলাম সম্পর্কে জ্ঞান রাখেন। আর আলেম সমাজ সমাজের সব স্থানে যোগাযোগ করতে পারেন। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কাছেও আলেম ওলামাদের যোগাযোগ থাকে। তাই আলেম সমাজকেই সকলকে বুঝানোর দায়িত্ব পালন করতে হবে। সচেতন করতে হবে।

জেলা পুলিশ সুপার মঈনুল হক বলেন, জিহাদের অপব্যাখ্যা দেয়া হয়। জঙ্গীবাদ সৃষ্টিতে এটাও একটা কারন। আলেম ওলামারা ভাল জানেন। সকলকে মনে রাখবে এদেশটা আমার আপনার সবার। সবাই ভাল থাকলে আমরা ভাল থাকবো।

নারায়ণগঞ্জ জেলা টিচার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হাকিম মুহাম্মদ আবদুল হাইয়ের সভাপতিত্বে এ মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) গাউছুল আজম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) শাহীন আরা বেগম, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, জেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুস সামাদ, সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার চৌধুরী, আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল হোসেন, জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ইমরুল হাসান, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নাফিজ আশরাফ প্রমুখ।

না’গঞ্জে ৮৪ জন আইনজীবীকে লিগ্যাল প্রশিক্ষণ

বাংলাদেশ বার কাউন্সিল থেকে সদ্য সনদপত্র পাওয়া ৮৪ জন নতুন আইনজীবীকে দুদিন ব্যাপী লিগ্যাল বিষয়ক প্রশিক্ষন দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি। ‘লিগ্যাল ট্রেনিং প্রোগ্রাম’ নামে এ প্রশিক্ষন শেষে বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা আইনজীবী সমিতির ভবনের ৪র্থ তলায় এসব আইনজীবীদের মধ্যে সনদ পত্র বিতরণ করা হয়েছে। এর আগে এসব আইনজীবীরা নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য পদ সংগ্রহ করেছেন।
সনদ পত্র বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ফিন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট স.ম রেজাউল করিম, লিগ্যাল এডুকেশন চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট কাজী নজিবুল্লাহ হিরু, নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ সৈয়দ এনায়েত হোসেন, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অশোক কুমার দত্ত প্রমুখ।
দুদিন ব্যাপী এ প্রশিক্ষন কর্মশালা ও সনদ পত্র বিতরনী অনুষ্ঠানে আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ মোহসীন মিয়া সহ সমিতির অন্যান্য আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন।
বন্যার্তদের কাছে না’গঞ্জের ত্রাণ যাবে কাল

দেশের বিভিন্ন এলাকাতে বন্যার্তদের সহযোগিতায় চাল, ডাল ও শুকনা খাবার নিয়ে আগামী শনিবার যাত্রা করবে নারায়ণগঞ্জের শিক্ষার্থীরা। এ লক্ষ্যে ১২ আগস্ট শুক্রবার রাত পর্যন্ত অর্থ ও ত্রাণ সংগ্রহের কার্য্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে তারা।
বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) সকাল থেকেই বৃষ্টি উপেক্ষা করেই অন্যান্য দিনের মতো সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বানবাসী মানুষের জন্য অর্থ সংগ্রহ করতে দেখে গেছে তাদের। তিনটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে তারা শহরের ও আশের পাশের দোকান ও স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অর্থসংগ্রহ করে তারা।
গত বুধবার (১০ আগস্ট) দিনব্যাপী কখনো ভারী আবার কখনো গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির কারণের অর্থ গ্রহণের কার্য্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটে। ফলে এখনও আশানুরুপ সংগ্রহ না হওয়ায় এ কার্যক্রম বাড়িয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের লোকজন।
‘অর্থ-শ্রম ও ত্রাণ দিয়ে বানবাসী মানুষের পাশে দাঁড়ান’ আহবানে ওই কর্মসূচির আয়োজক বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মশিউর রহমান রিচার্ড জানান, গত রোববার সকাল থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হওয়ার ৪ দিনের কর্মসূচি শেষদিন ছিল বুধবার। তবে বুধবার প্রচন্ড বৃষ্টির কারণে অর্থসংগ্রহ কার্যক্রম ব্যাহত হয়। এছাড়াও লক্ষ্য অনুযায়ী এখনও অর্থসংগ্রহ না হওয়ার ফলে কর্মসূচি বাড়িয়ে আগামী শুক্রবার (১২ আগস্ট) পর্যন্ত নির্ধারন করা হয়েছে।
মশিউর রহমান রিচার্ড আরো জানান,‘শুক্রবার ত্রান সংগ্রহ কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর আগামী শনিবার রাতে বন্যার্তদের সহযোগিতার সব কিছু নিয়ে যাত্রা শুরু করা হবে। এর আগে সংগ্রহনের অর্থ দিয়ে ওইসব মানুষের জন্য চাল,ডাল,লবন, খাবার স্যালাইন, মোম, ম্যাচ ও শুকনা খাবার কেনা হবে। যার পরে প্যাকট করে যাত্রা শুরু হবে।’
বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটিতে নাগঞ্জের ১১নেতা নেই শো ডাউন উচ্ছ্বাস

গত ৬ আগস্ট বিএনপির পূর্ণাঙ্গ নির্বাহী কমিটি ঘোষণা করা হয় যার মধ্যে ১৯ সদস্যের স্থায়ী কমিটির সদস্য ছাড়াও রয়েছেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ৭৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান ৩৫ এবং যুগ্ম মহাসচিব সাতজন। এই কমিটিতে বিভিন্ন পদে নারায়ণগঞ্জের ১১ জন বিএনপি নেতার ঠাই হয়েছে।
বিএনপির নতুন কমিটিতে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হিসেবে ঠাঁই হয়েছে ৭৩ জনের। চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হয়েছেন জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক পেয়েছেন আড়াইহাজার থানা বিএনপির সভাপতি বদরুজ্জামান খসরু, সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন নজরুল ইসলাম আজাদ। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে কার্যকরী সদস্য হিসেবে নতুন করে স্থান পাওয়া চার বিএনপি নেতা হলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ও সোনারগাঁও থানা বিএনপির সেক্রেটারী এম এ মান্নান, যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ কোষাধ্যক্ষ ও রূপগঞ্জের বিএনপি নেতা মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া দিপু, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক এমপি গিয়াসউদ্দিন ও যুবদলের কেন্দ্রীয় নেতা আড়াইহাজারের বিএনপি নেতা এফ এম ইকবাল। এছাড়া পুরাতন সদস্য হিসেবে সাবেক দুইজন এমপি রেজাউল করিম ও আবুল কালাম এবং জেলা বিএনপির সেক্রেটারী কাজী মনিরুজ্জামান মনির ও সহ সভাপতি শাহ আলমের নাম রয়েছে।
এদিকে এতজনের নাম থাকলেও কোন আনন্দ মিছিল, জেলা বিএনপির কার্যালয়ে কোন মিলাদ-দোয়া অথবা তেমন কোন আলোচনা পাওয়া যায়নি দলের মধ্যে। তবে এখন পর্যন্ত বিচ্ছিন্নভাবে নেতারা বিভিন্ন স্তরের কর্মীদের ফুলের শুভেচ্ছা গ্রহণ করেছেন। জেলা বিএনপি কার্যালয়ে তৈমূর ও মান্নান একসঙ্গে হলেও আর কাউকেই একসঙ্গে দেখা যায়নি। শাহআলম ফতুল্লায় তার ব্যবসার প্রতিষ্ঠানে নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছা নিয়েছেন। রূপগঞ্জে দিপু ভূইয়াকে সেখানে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। নিজের বাসায় গিয়াসউদ্দিন নিয়েছেন শুভেচ্ছা। তবে এ নিয়ে জেলা বিএনপির নেতারা তেমনভাবে উচ্ছ্বাসিতও নয়।

তৈমূরকে আইনজীবীদের সংবর্ধনা

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ৭৩ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য নির্বাচিত করায় নারায়ণঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারকে সংবর্ধনা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের আদালতের বিএনপি পন্থী একাংশের আইনজীবীরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির ভবনের নিচ তলায় জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম, শহীদ জিয়া আইনজীবী সংসদ ও জাতীয়তাবাদী যুব আইনজীবী ফোরামের ব্যানারে এ সংবর্ধনা দেয়া হয়।
অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেছেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দাবিদার অ্যাডভোকেট আব্দুুল বারী ভূইয়া। এতে উপস্থিত ছিলেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ খান ভাসানী ভূইয়া, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সামসুজ্জামান খান খোকা, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লা, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান মোল্লা, শহীদ জিয়া আইনজীবী সংসদের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজিজ আল মামুন, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এসএম গালিব, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শরীফুল ইসলাম শিপলু, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আশরাফুল আলম সিরাজী রাসেল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন মাসুম, অ্যাডভোকেট আলী হোসাইন, অ্যাডভোকেট রাসেল প্রধান, সহ অন্যান্য আইনজীবীরা।
অনুষ্ঠানে আইনজীবীদের তিনটি সংগঠনের নেতারা তৈমূর আলম খন্দকারকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এছাড়াও জেলা শহীদ জিয়া আইনজীবী সংসদের নেতারা তৈমূর আলম খন্দকারকে মানপত্র প্রদান করেন। এর আগে মানপত্র পাঠ করেন শহীদ জিয়া আইনজীবী সংসদের সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট একেএম ওমর ফারুক নয়ন।
এখানে উল্লেখ্য, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটিতে এবারো বিএনপির সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম সদস্য পদ বহাল থাকায় এর আগের দিন বুধবার দুপুরে আইনজীবী সমিতির ভবনের নিচ তলায় আবুল কালামকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছিলেন বিএনপির অপর অংশের আইনজীবীরা যারা বৃহস্পতিবার তৈমূর আলমকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না।

চাষাঢ়া ময়লার স্তুপ

নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের চলাফেরা হয় এই ব্যস্ততম জায়গাটিতে। শহীদ মিনারের প্রধান ফটকের ঠিক সামনেই রয়েছে ফুটপাত।
শহীদ মিনারের সামনে পুরো ফুটপাতটি দখল করে রেখেছে বেশ কয়েকটি ভ্রাম্যমান খাবারের দোকান। সেই সাথে ফুটপাতে ফেলে রাখা হয়েছে সদ্য ড্রেন থেকে তুলা ময়লা। ফুটপাতে সারি বেধে রাখা সেই ময়লার স্তুপ থেকে নাকে আসছে বিদঘুটে গন্ধ। এরকম পরিবেশেই ফুটপাতের ভ্রাম্যমান খাবার দোকান থেকে মানুষ খাবার কিনে খাচ্ছে আর পথচারীরা খুব কষ্ট করে তাদের গন্তব্যের দিকে ছুটছেন।
বৃহস্পতিবার (১১ আগষ্ট) সন্ধ্যার ঠিক আগ মূহূর্তের চাষাঢ়া শহীদ মিনারের দৃশ্য এটি। এরই মাঝে ফুটপাতে নাকে রুমাল দিয়ে হাটতে থাকা এক পথচারী সনদ সাহা সানির সাথে কথা হল।
তিনি বললেন, প্রতিদিনই আমার মত অনেক মানুষকে এই ফুটপাত দিয়ে চলাফেরা করতে হয়। প্রতিনিয়তই আমাদের এসকল দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আমি যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করব যেন তারা শহরের ব্যস্ততম ফুটপাতটি পথচারীদের চলাচলের উপযুক্ত করে তুলেন এতে আমরা পথচারীরা উপকৃত হব।
এইএসসি পাশ করে এমবিবিএস ডাক্তার বনে যায় পন্ডিত মেয়ের জামাতার ২বিয়ে!

নারায়ণগঞ্জ শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে অবস্থিত ন্যাশনাল মেডিক্যাল সেন্টারে র‌্যাবের অভিযানে ভুয়া ডাক্তার গৌরি চাঁদ পন্ডিত ওরফে সুবিরকে (৪০) গ্রেফতারের পর ভ্রাম্যমান আদালতের ২ বছরের কারাদ- দেয়ার ঘটনা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুক জুড়ে বইছে সমালোচনার ঝড়। ভুয়া চিকিৎসক পন্ডিতকে গ্রেফতার ও সাজা দেয়ার পর বেরিয়ে আসছে নানা চা ল্যকর তথ্য। ফেসবুকে একজন লিখেছেন ভুয়া ডাক্তার গৌরি চাঁদ পন্ডিত ওরফে সুবির এক হিন্দু নেতার মেয়ের জামাতা। আরেকজন লিখেছেন ভুয়া ডাক্তার গৌরি চাঁদ পন্ডিত ওরফে সুবির দু’টি বিয়ে করেছে। ভুয়া চিকিৎসক পরিচয়ে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণার পাশাপাশি বিভিন্ন ডায়াগনষ্টিক সেন্টার থেকেও কমিশন হাতিয়ে নিয়ে সে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে।
সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুক এফ এইচ প্রত্যয় লিখেছেন, ‘এই লোক তো নারায়ণগঞ্জ হিন্দু নেতা তারাপদ আচাযের মেয়ের জামাই।’
মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা নাননু লিখেছেন, ‘এই লোকের সাজা এত কম হলো কিভাবে। ২০/২৫ বছরের জেল হওয়া উচিৎ ছিল।’
বিশ্বজিত দাস লিখেছেন, ‘উনার ২টা বউ, একটা প্রেম করে বিয়ে সেই বউ নিয়ে গলাচিপা আয়কর আইনজীবী এনায়েত উল্লাহর বাড়ির নিচ তলায় থাকতো।
জাকির হোসেন লিখেছেন, ‘আঙ্গুল ফুলে শুধু কলা নয় গাছ নয় এতদিনে বট গাছ হয়েছে, এত অল্প টাকা তার কাছে বটপাতা মাত্র, আইনের ফাঁকফোকরে জেল থেকে ছাড়া না পেলে কিছুটা শাস্তি পেয়েছে মনে হবে, তবে আদালত ভাল বুঝেন।
উল্লেখ্য নারায়ণগঞ্জ শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে অবস্থিত ন্যাশনাল মেডিক্যাল সেন্টারে অভিযান চালিয়ে গৌরি চাঁদ প-ীত ওরফে সুবির (৪০) নামে এক ভূয়া ডাক্তারকে ২ বছরের কারাদ- দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। একই সঙ্গে আরো ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। দন্ডপ্রাপ্ত ভূয়া ডাক্তার গৌরি চাঁদ প-ীত ওরফে সুবিপর কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী এলাকার সতেন্দ্র প-ীতের ছেলে। বুধবার (১০ আগস্ট) বিকালে অভিযান চালিয়ে ভুয়া চিকিৎসককে আটক করে র‌্যাব। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নারায়ণগঞ্জ সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাসুম আলী বেগের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ওই সাজা দেয়া হয়। এসময় ন্যাশনাল মেডিক্যাল সেন্টারের পরিচালক মো. কামাল হোসেন (৪৫) ও ম্যানেজার শুকলা সাহাকে (৫২) ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ফতুল্লায় অটো চাপা শিশু আহত
ফতুল্লা থানার মুসলিম নগর এলাকায় ব্যাটারীচালিত অটোবাইকের চাপায় পড়ে গুরুতর আহত হয়েছে ৫ বছরের শিশু আলিফ। ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায়। তাকে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের জরুরী বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: মো: আব্দুল মান্নান ভূইয়া জানান। সে এ এলাকার মো: আবুল হোসেন মিয়ার ছেলে। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রাস্তা পার হবার সময় ব্যাটারীচালিত অটোবাইকের চাপায় পড়ে গিয়ে আলিফ আহত হয়।

সিদ্ধিরগঞ্জে পুকুর ডুবে শিশুর মৃত্যু

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সানারপাড় লন্ডন মার্কেট সংলগ্ন এলাকায় খেলার ছলে পা ফসকে পুকুরে পড়ে গিয়ে মর্মান্তিকভাবে মৃত্যু হয়েছে ৪ বছরের শিশু সিফাতের। ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায়। বেঁচে আছে মনে করে সিফাতকে পুকুর থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: মো: আব্দুল মান্নান ভূইয়া তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। সে এলাকার মো: ইউছুফ মিয়ার ছেলে।
রূপগঞ্জে ট্রাক-লরির
মুখোমুখি সংঘর্ষে
আহত ৪

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের এশিয়ান হাইওয়ে(বাইপাস) সড়কে সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক ও মালবোঝাই লরির মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় গাড়ী চালক ও হেলপারসহ ৪জন আহত হয়। সংঘর্ষের ফলে ট্রাকটি সড়কের পাশে খাদে পড়ে যায় ও লরিটি সামনের অংশ সড়কের একপাশে পড়ে যাওয়ায় পিছনের অংশটি সড়কের মাঝামাঝি স্থানে পড়ে থাকে। এতে সড়কের উভয় দিকে প্রায় ৮কিলোমিটার দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। যার দরুন চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় দুরপাল্লার বিভিন্ন যানবাহন ও যাত্রীদের। বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টারদিকে উপজেলার এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের চরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিকাল ৩টার দিকে চট্রগ্রাম গামী মালবোঝাই লরি (চট্রগ্রাম মেট্রো-ঢ-৮১-০২৬৭)এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের চরপাড়া এলাকায় পৌছেলে গাজীপুর গামী সিমেন্ট বোঝাই একটি ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে করে ট্রাকটি সড়কেরপাশে একটি খাদে পড়ে যায় ও লরিটি সড়কের মাঝামাঝি স্থানে পড়ে যায়। সংঘর্ষে গাড়ীর ড্রাইভার আলাউদ্দিন, হেলপার এরশাদসহ ৪ জন আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় ও যানজট নিরশনের চেষ্টা চালায়। এদিকে লরিটি সড়কে মাঝামাঝি পড়ে থাকায় উভয় দিকে প্রায় ৮ কিলোমিটর দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। যার দরুন চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় দুরপাল্লার বিভিন্ন মালবাহী যানবাহন ও যাত্রীদের। পুলিশ রেকার দিয়ে প্রায় ২ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে দূর্ঘটনা কবলিত ট্রাক ও লরিটিকে উদ্ধারের করে। পরে বিকাল সোয়া ৫টারদিকে সড়কের যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।
রূপগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জসিমউদ্দিন বলেন, দূর্ঘটনার খবর পেয়ে সাথে সাথে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়ে। রেকার দিয়ে চেষ্টা চালিয়ে দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ি দুইটিকে উদ্ধার করে সড়কের পাশে রাখার হয়েছে। বর্তমানে সড়কে যানচলাচল স্বাভভাবিক রয়েছে।
কেন্দ্রীয় বিএনপির কমিটিতে স্থান পেয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের গিয়াসউদ্দিন
দর্শক গ্যালারি থেকে খেলোয়াড় হয়ে নামছি
তিনি ভাগ্যবানই বটে। ২০০১ সালে জাতীয় নির্বাচনের অল্প কিছুদিন আগে বিএনপিতে যোগ দিয়েই মননোয়ন পেয়ে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের। এর আগে আওয়ামীলীগ ও জাপার রাজনীতিতেও দাপুটে অবস্থা ছিল তার। নারায়ণগঞ্জ সদর আসনের বিএনপির হাল যখন তিনি ধরলেন তখন থেকেই প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে যারা দলের রাজনীতি করে জেল-জুলুমের স্বীকার হয়েছিলেন সেই সকল নেতা-কর্মীদের রাজনীতির মাঠ থেকে তাড়িয়ে দিয়ে নিজের লোকদের প্রতিষ্ঠিত করেন। ওই ৫ বছরের দুঃশাসনে তার পরিচিতি সারাদেশে নেতিবাচক ভাবে ছড়িয়ে পড়ে। ১/১১ এর সময় প্রকাশিত দুর্নীতির প্রথম তালিকায় তার নাম আসে। গ্রেফতার হয়ে কারাগারের তার সময় কাটে। তার সহযোগী রাজু, মাজেদুল, বাদল, হালিম গং সংস্কারপন্থী মান্নার ভূইয়ার বাসায় বৈঠকও করে।
মহাজোট ক্ষমতায় আসার পর জেল থেকে ছাড়া পেয়ে তিনি আর বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন না। ২০১০ সালে গিয়াস উদ্দিনে সভাপতিত্বে ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচী পালন করেন। এ নিয়ে দলের ভিতরে ক্ষোভ সৃষ্টি হয় নেতা-কর্মীদের মাঝে। তবে গিয়াস উদ্দিনের সাথে তার এক সময়ের সহযোগী নূর হোসেনের সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের কারণে কয়েকটি মামলায় আসামী হতে হয়েছে তার। অবশ্য গত ৭ বছরে একবারের জন্যও তাকে জেলে যেতে হয়নি।
অপরদিকে সিদ্ধিরগঞ্জে ৫ মে’র ঘটনা সহ বহু ঘটনায় অসংখ্য নেতাকর্মী মামলার আসামী হয়েছেন। পুলিশের নির্যাতন সয়েছেন, কারাভোগ করেছেন বহু নেতাকর্মী। মহাজোটের গত ৭ বছর নিরবে সময় কাটিয়ে দুদিন আগে ঘোষিত বিএনপি’র নির্বাহী কমিটিতে জায়গা করে নিয়েছেন গিয়াসউদ্দিন। এটাই তার বড় চমক। তিনি সব সময়ই চমক দেখিয়েছেন, দেখাবেনও। গত দু’দিনে তিনি তার সহযোগীদের বলেছেন, আমি এতদিন দর্শক গ্যালারিতে ছিলাম এখন খেলোয়াড় হয়ে মাঠে নেমেছি। দলকে তিনি ঢেলে সাজাবার ঘোষনাও দিয়েছেন তিনি। আর এতেই শংকিত হয়ে পড়েছেন নির্যাতিত নেতা-কর্মীরা যারা মহাজোটের পুরো সময়টা দলের জন্য শ্রম দিয়ে ত্যাগ স্বীকার করেছেন। কারণ গিয়াস উদ্দিনের অতীত ইতিহাস তাদের জানা আছে। অনিশ্চয়তায় পড়া শত শত নেতা-কর্মী এখন নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর কমিটির দিকে তাকিয়ে আছেন। এরপরই তারা সিদ্ধান্ত নিবেন রাজণীতি তাদের করার সুযোগ থাকবে কি থাকবে না। প্রতিবেদনটি নির্যাতিত নেতা-কর্মীদের সাথে কথা বলে তৈরি করা হয়েছে। তবে তারা নিজেদের নাম এখনই প্রকাশ হোক তা চান না।
খালেদার জন্মদিন পালন
সিদ্ধান্ত হীনতায়
না’গঞ্জ বিএনপি
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী তথা আগামী ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবসের দিন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন করবেন কিনা, এনিয়ে সিদ্ধান্তহীনতায় রয়েছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি।
কেননা, সাম্প্রতিক সময়ে দেশব্যাপী জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস দমনে খালেদা জিয়া জাতীয় ঐক্যের ডাক দিলেও তাতে এখনও কোন সাড়া দেয়নি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ। বেশ কয়েকজন মন্ত্রী মন্তব্য করেন, শোক দিবসের দিন যদি খালেদা জিয়া জন্মদিন পালন না করেন এবং জামায়াতের সঙ্গ ছাড়েন তাহলে বিএনপির সাথে জাতীয় ঐক্যের ব্যাপারে আলোচনার ব্যাপারে চিন্তা করে দেখবেন। তাই আগামী ১৫ আগষ্ট খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন করবেন কিনা এনিয়ে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর জন্য অপেক্ষা করছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ।
এব্যাপারে সদ্য নিযুক্ত বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি এড. তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, জন্মদিন পালনে কেন্দ্রীয় ভাবে নির্দেশনা দেয়ার পরেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
কেন্দ্রীয় কমিটিতে সদ্য পুনরায় কার্যকরী সদস্য হিসেবে নিযুক্ত নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাবেক সাংসদ এড. আবুল কালাম জানান, ১৫ আগষ্ট এখনো অনেক দেরী। খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালনে পরে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও মহানগর বিএনপি নেতা এড. সাখাওয়াত হোসেন খানও বলেন, ১৫ আগষ্টের আরো কয়েকদিন বাকী আছে। তাই সেদিন বিএনপি চেয়ারপার্সনের জন্মদিন পালন করা হবে কিনা পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
তবে ভিন্নমত পোষণ করেছেন নগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক এটিএম কামাল। তিনি জানান, আগামী ১৫ আগষ্ট অবশ্যই বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন করা হবে। এজন্য কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় থাকার যথার্থ কারন নেই।
ঐক্যবদ্ধ ভাবে শোক দিবস পালন
না’গঞ্জে প্রস্তুত আ’লীগ
সম্প্রতি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা ও তার পুত্র শেখ কামালের জন্মদিন পালনে নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগ নিষ্ক্রিয় থাকলেও আগামী ১৫ আগষ্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে শাহাদাৎ বার্ষিকী পালনে ঐক্যবদ্ধ ভাবে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে মহানগর আওয়ামীলীগ। জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে প্রত্যেক উপজেলা, থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ে দলীয় নেতৃবৃন্দরা প্রতিদিনই প্রস্তুতি মূলক সভা করছে।
এব্যাপারে মহানগর আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন জানান, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ১৫ আগষ্ট দলীয় কার্যালয়ে কালো পতাকা উত্তোলন, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল এবং আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া প্রত্যেক ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ঐক্যবদ্ধ ভাবে শোক দিবস পালনের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। কেননা, সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান বলেছেন, দীর্ঘ ২০ বছর পর নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগ আবারো ঐক্যবদ্ধ হয়েছে।
এদিকে, জাতীয় শোক দিবস পালনে আওয়ামীলীগ ছাড়াও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দরা বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে মহানগর ছাত্রলীগ মাস ব্যাপী কর্মসূচী শুরু করেছে। যার মধ্যে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে রচনা ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। প্রত্যেক ওয়ার্ডে দোয়া, মিলাদ ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট একদল বিপদগামী সেনার হাতে স্বপরিবারে নিহত হন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তবে তখন ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর কণ্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার ছোট বোন শেখ রেহানা। ওই হত্যাকান্ডের ঘটনার ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালে দায়ের করা হয় হত্যা মামলা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর ওই ঘটনায় মামলা দায়ের করতে লেগেছিল দুই যুগেরও বেশী সময়। বাঙ্গালীর জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের অবিসংবাদিত এই নেতাকে হত্যা করেছিল সে সময় সেনাবাহিনীর একটি চক্রান্তকারী চক্র। তাকে হত্যার পর ক্ষমতা কুক্ষিগত করেন ওই সময়কার আওয়ামী লীগ নেতা ও বানিজ্যমন্ত্রী খন্দকার মোশতাক আহমেদ। তিনি খুনীদের রক্ষায় জারী করেন দায়মুক্তি অধ্যাদেশ। আর সেই অধ্যাদেশ বাতিল করতে বাঙ্গালী সময় নেয় ২১ বছর। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয়ী হলে ওই বছরই নভেম্বর মাসে বাতিল করা হয় কুখ্যাত এই অধ্যাদেশটি। আর একই বছরের অক্টোবরের ২ তারিখে বঙ্গবন্ধুর আবাসিক ব্যক্তিগত সহকারী আ ফ ম মুহিতুল ইসলাম ধানমন্ডি থানায় ১৫ই আগস্টের হত্যাকান্ডের ঘটনায় ২৪ আসামির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। চার আসামী মারা যাওয়ায় ২০ জনের বিরুদ্ধে ওই মামলার বিচার কার্যক্রম শুরু হয় ১৯৯৭ সালের ১২ই মার্চ, ঢাকার দায়রা জজ আদালতে।
দেড়শ’ কার্য দিবস শুনানির পর ১৯৯৮ সালে দায়রা জজ গোলাম রসুল ২০ আসামির মধ্যে ১৫ জনের মৃত্যুদন্ডাদেশ দেন। ওই সময় পাঁচ আসামী ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন। হাইকোর্ট ২০০১ সালের ৩০ এপ্রিল এই মামলায় ১২ আসামীকে ফাসিঁর দন্ডাদেশ দেন।
নূর হোসেনের
মামলায় নান্নু
মুন্সির হাজিরা

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার একটি মামলায় আদালতে হাজিরা দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা আমীর নান্নু মুন্সি। বৃহস্পতিবার (১১ আগষ্ট) নারায়ণগঞ্জ চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট শহিদুল ইসলামের আদালতে তিনি হাজিরা দেন।
হাজিরা শেষে ইসলামী আন্দোলন জেলা আমীর নান্নু মুন্সি বলেন, নারায়ণগঞ্জের চা ল্যকর সাত খুন মামলার প্রধাণ আসামী নুর হোসেনের অনৈতিক কার্যকলাপের প্রতিবাদ করায় ২০১১ সালে আমিসহ আরো ৬০ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। কিন্তু ধর্মের কল বাতাসে নড়ে! আজ সেই অপকর্মের হোতা নুর হোসেনের সকল কীর্তি ফাঁস হয়ে গেছে। আমরা এক আল্লাহ ছাড়া আর কারো কাছে মাথানত করবো না। যত অপশক্তিই আমাদেরকে ভয় দেখাক না কেন, আমরা অন্যায়ের প্রতিবাদ করেই যাবো। সত্যের জয় একদিন হবেই। নান্নু মুন্সির পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এড. বোরহানউদ্দিন সরকার।
মহানগর ছাত্রলীগের
শোক র‌্যালী কাল

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে মহানগর ছাত্রলীগের মাসব্যাপী কর্মসূচী পর্যালোচনা ও বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এক বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে মহানগরের ২৭টি ওয়ার্ডে নেতাদের নিয়ে এই বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত।
সরকারি তোলারাম কলেজ প্রঙ্গনে মহানগর ছাত্রলীগের আহবায়ক ও সরকারি তোলারাম কলেজের ভিপি হাবিবুর রহমান রিয়াদের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভা পরিচালনা করেন মহানগর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক হাসনাত রহমান বিন্দু ও নাছিম মাহামুদ তপন।
সভা সমাপ্তির বক্তব্যে হাবিবুর রহমান রিয়াদ বলেন, আগামী ১৩ আগষ্ট নগরীতে শোক র‌্যালী অনুষ্ঠিত হবে। ১৫ আগষ্ট দিন ব্যাপী মহানগরের ২৭টি ওয়ার্ডে জাতির জনক সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের আত্মার মাগফেরাত কামনায় মিলাদ, দোয়া ও রান্না করা খাবার বিতরণ করা হবে।
আগামী ১৫ আগষ্ট খালেদা জিয়ার বানানো জন্মদিন পালনের লক্ষে কেক না কাটে, সেদিকে খেয়াল রাখতে প্রতিটি নেতাকর্মীদের সজাগ থাকার আহবান জানিয়েছেন রিয়াদ।
আলীগঞ্জে প্রীতি ফুটবল টুর্ণামেন্ট——————————
না’গঞ্জ সোনালী অতীত ক্লাব জয়ী

নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী আলীগঞ্জ ক্লাবের উদ্যোগে এবং ক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব কাউসার আহমেদ পলাশের সার্বিক তত্বাবধানে এক প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করা হয়েছে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়ারদের অংশগ্রহনে অনুষ্ঠিত এ প্রীতি ম্যাচে নারায়ণগঞ্জ সোনালী অতীত ক্লাব ২-১ গোলে শ্যামপুর সোনালী অতীত ক্লাবকে পরাজিত করে। বৃহস্পতিবার (১১ আগষ্ট) বিকেলে আলীগঞ্জ মাঠে এ প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়।
খেলার শুরু থেকেই উভয় দলের খেলোয়াররা আক্রমন পাল্টা আক্রমন করে খেলে উপস্থিত দর্শকদের মুগ্ধ করে রাখেন। ম্যাচের প্রথমার্ধে ২০ মিনিটের মাথায় শ্যামপুর সোনালী অতীত ক্লাবের মনির গোল করে দকে ১-০ গোলে এগিয়ে নেন। এরপর নারায়ণগঞ্জ সোনালী অতীত ক্লাবের খেলোয়াররা গোল শোধে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে। কিন্তু ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় প্রথমার্ধে কোন গোল করতে পারেনি।
দ্বিতীয়ার্ধের ৪৬ মিনিটে নারাণগঞ্জ সোনালী অতীত ক্লাবের মুজিবুর রহমান ঋতু জাকিরের পাস থেকে দর্শনীয় শটে গোল করে খেলায় সমতা নিয়ে আসেন। খেলা শেষ হওয়ার মিনিট পাচেক আগে সেই ঋতু একক প্রচেষ্টায় জয়সূচক গোল করে নারায়ণগঞ্জ সোনালী অতীত ক্লাবকে জয়ের বন্দরে পৌছে দেন। জয়ী দলের রবিন ও বিজিত দলের মনির যৌথভাবে সেরা খেলোয়ার নির্বাচিত হন।

কোকোর জন্মদিন
জেলা নগর বিএনপির
দোয় মাহফিল
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে মরহুম আরাফাত রহমান কোকোর ৪৭তম জন্মদিন উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল আয়োজন করেছে দলটি। কেন্দ্রীয় কমিটির ন্যায় নারায়ণগঞ্জেও পালন করবে জেলা ও নগর বিএনপি।
জেলা বিএনপির সভাপতি এড. তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, আগামী কাল শুক্রবার বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে মরহুম আরাফাত রহমান কোকোর ৪৭তম জন্মদিন উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল আয়োজন করা হয়েছে। তবে কোথায় অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হবে তা জানা যায়নি।
নগর বিএনপি সাধারণ সম্পাদক এটি এম কামালের উদ্যেগে শুক্রবার বাদ আছর এ মিলাদ মাহফিল অনুষ্টিত হবে।
এটি এম কামাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লাইভ নারাযণগঞ্জকে জানান মিলাদ মাহফিলে দলটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন। তিনি আরো বলেন, এক মাদ্রাসায় এতিমদের মাঝে খাবার বিতরন করবো।
নৈরাজ্য জঙ্গি প্রতিরোধে
আ’লীগের বিক্ষোভ
সন্ত্রাস-নৈরাজ্য, মৌলবাদ ও জঙ্গি প্রতিরোধে রাজধানীর ডেমরায় বিক্ষোভ সবাবেশ ও মিছিল করেছে ডেমরা থানা আওয়ামী লীগ। বৃহস্পতিবার বিকালে ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার এলাকায় ডেমরা থানা আ’লীগ সভাপতি এডভোকেট রফিকুল ইসলাম খান মাসুদের নের্তৃত্বে ও বিএইচএস-৯০ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সভাপতি ও যুবলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার মো. আসাদুর রহমান মিলনের স ালনায় এ বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় সভাবেশ শেষে মিছিলটি ঘন্টাব্যাপী ডেমরার মহাসড়কসহ বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে।
সমাবেশ ও মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিনের ডেমরা থানা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, আওয়ামী ওলামালীগ যুবলীগ, কৃষকলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিকলীগ, ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ এলাকার সকল শ্রেণী পেশার মানুষ।
সমাবেশে এড.রফিকুল ইসলাম খান মাসুদ রাজধানীর হলি আর্টিজন হোটেল ও শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ সংলগ্নে জঙ্গি হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ডেমরায় সন্ত্রাস-নৈরাজ্য, মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদের কোন ঠাঁই নেই। প্রয়োজনে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নির্মূলে আমরা ডেমরা থানার প্রতিটি ঘরে ঘরে অনুসন্ধান চালাব এবং শক্তহাতে তাদের প্রতিহত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসব। যে কোন মূল্যে জঙ্গী প্রতিরোধে মাননীয় প্রধানন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করব বলেও বলেন এড. মাসুদ।
সমাবেশে অন্যান্য বক্তারা বলেন, দেশের এ সংকটময় পরিস্থিতিতে ডেমরা থানা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী অংগসংগঠন চুপ করে ঘরে বসে থাকবেনা। প্রয়োজনে নেতাকর্মীরা জঙ্গী নির্মূলে দিনরাত পালাক্রমে ডেমরায় কাজ করবে।

কমিউনিস্ট পার্টির জেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি
আহ্বায়ক রবীন্দ্র যুগ্ম বিমল কান্তি

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
আগামী ২৮-৩১ অক্টোবর ঢাকায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র একাদশ কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হবে। ২৮ অক্টোবর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে লক্ষ লোকের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। জেলায় জেলায় কংগ্রেসের প্রস্তুতিমূলক কাজ এগিয়ে চলছে। গত ২২ জুলাই শুক্রবার নারায়ণগঞ্জ জেলা কার্যালয়ে জেলার সকল পার্টি সদস্যদের নিয়ে দিনব্যাপী একাদশ কংগ্রেসের রাজনৈতিক প্রস্তাবের উপর সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম। একাদশ কংগ্রেসের রাজনৈতিক প্রস্তাব পাঠ করেন শিবনাথ চক্রবর্তী, বিমল কান্তি দাস ও সুমাইয়া আক্তার সেতু। প্রস্তাবের ব্যাখ্যা করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি কেন্দ্রিয় প্রেসিডিয়াম সদস্য হায়দার আকবর খান রনো। রাজনৈতিক প্রস্তাব আলোচনা শেষে পার্টি সদস্যদের এই সাধারণ সভায় নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির পক্ষ থেকে জেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি ঘোষনা করা হয়। প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক রবীন্দ্র দাস ও বিমল কান্তি দাসকে যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়। আট সদস্য বিশিষ্ট সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির অন্যরা হচ্ছেন শিবনাথ চক্রবর্তী, ফুয়াদ মহসিন, আব্দুল মান্নান, সুজয় রায় চৌধুরী বিকু, কৃষ্ণা ঘোষ ও সুমাইয়া আক্তার সেতু। জেলা সম্মেলন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য অর্থ উপ- পরিষদ, প্রচার ও জমায়েত উপ-পরিষদ, দপ্তর, সাংস্কৃতিক ও সাজসজ্জা উপ-পরিষদ, খাদ্য উপ-পরিষদ, ও স্বেচ্ছাসেবক উপ-পরিষদসহ ৬টি উপ পরিষদ গঠন কর হয়। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ও ১ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ চাষাড়া শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে নারায়ণগঞ্জ জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। কেন্দ্রিয় সংগ্রেস ও জেলা সম্মেলনকে সামনে রেখে জেলার সকল শাখা সম্মেলন সমাপ্ত হয়েছে।
রূপগঞ্জ সম্মেলন
১০ জুলাই রবিবার সকাল ১০টায় কমরেড আনিছুর রহমান এর সভাপতিত্বে রূপগঞ্জ শাখা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা কমিটির প্রতিনিধি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শিবনাথ চক্রবর্তী। সম্মেলনে মনিরুজ্জামান চন্দনকে সম্পাদক করে ৪ সদস্য বিশিষ্ট শাখা গঠন করা হয়।
ফতুল্লা সম্মেলন
১৫ জুলাই শুক্রবার সকাল ৯টায় কমরেড আমজাদ হোসেনের সভাপতিত্বে ফতুল্লা শাখা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা কমিটির নেতা শিবনাথ চক্রবর্তী ও বিমল কান্তি দাস। রনজিত কুমার দাসকে সম্পাদক করে ৯ সদস্য বিশিষ্ট ফতুল্লা শাখা গঠন করা হয়।
আড়াইহাজার সম্মেলন
১৫ জুলাই শুক্রবার বিকাল ৪টায় কমরেড মিন্টু বর্মনের সভাপতিত্বে আড়াইহাজার শাখা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা কমিটির প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কমরেড রবীন্দ্র দাস। সম্মেলনে বিমল বর্মণকে সম্পাদক করে ১৮ সদস্য বিশিষ্ট আড়াইহাজার শাখা গঠন করা হয়।
গোদনাইল সম্মেলন
১৫ জুলাই শুক্রবার বিকাল ৪টায় কমরেড মাসুদা সুলতানার সভাপতিত্বে গোদনাইল শাখা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রতিনিধি ছিলেন কমরেড হাফিজুল ইসলাম ও দুলাল সাহা। সম্মেলনে কমরেড গুলজারকে সম্পাদক করে ৬ সদস্য বিশিষ্ট গোদনাইল শাখা গঠন করা হয়।

হোসিয়ারী সম্মেলন
২৩ জুলাই শনিবার বিকাল ৫টায় কমরেড হুসেনের সভাপতিত্বে হোসিয়ারী শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা কমিটির পক্ষ থেকে হাফিজুল ইসলাম, বিমল কান্তি দাস ও সুজয় রায় চৌধুরী বিকু উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনে ৯ সদস্য বিশিষ্ট হোসিয়ারী শাখা গঠন কর হয়। গোপাল রক্ষিত সম্পাদক নির্বাচিত হন।
শিশু কিশোর সম্মেলন
২৩ জুলাই শনিবার বিকাল ৫টায় কমরেড জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে শিশু কিশোর শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রতিনিধি ছিলেন হাফিজুল ইসলাম ও শিবনাথ চক্রবর্তী। সম্মেলনে ৬ সদস্য বিশিষ্ট শিশু কিশোর শাখা গঠন করা হয়। জহিরুল ইসলাম সম্পাদক নির্বাচিত হন।
সংস্কৃতি সম্মেলন
২৪ জুলাই সন্ধ্যা ৭টায় কমরেড দুলাল সাহার সভাপতিত্বে সংস্কৃতি শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা কমিটির পক্ষ থেকে বিমল কান্তি দাস ও আব্দুল হাই শরীফ উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনে ৫ সদস্য বিশিষ্ট সংস্কৃতি শাখা গঠন করা হয়। সুজয় রায় চৌধুরীকে সম্পাদক নির্বাচন করা হয়।

ধামগড় সম্মেলন
২৫ জুলাই সোমবার বিকাল ৫ টায় কমরেড আঃ করিমের সভাপতিত্বে ধামগড় শাখা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রতিনিধি ছিলেন রবীন্দ্র দাস ও দুলাল সাহা। পাভেল খান কে সম্পাদক করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট ধামগড় শাখা গঠন করা হয়।
নারী সম্মেলন
২৫ জুলাই সোমবার সন্ধ্যা ৭ টায় কমরেড শাহানারা বেগমের সভাপতিত্বে নারী শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রতিনিধি ছিলেন বিমল কান্তি দাস ও আঃ হাই শরীফ। সম্মেলনে ৬ সদস্য বিশিষ্ট নারী শাখা গঠন করা হয়। শোভা সাহা সম্পাদক নির্বাচিত হন।
ছাত্র সম্মেলন
২৬ জুলাই মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় কমরেড মৈত্রী ঘোষের সভাপতিত্বে ছাত্র শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা কমিটির পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন হাফিজুল ইসলাম, শিবনাথ চক্রবর্তী ও আঃ হাই শরীফ। সুমাইয়া আক্তার সেতু কে সম্পাদক নির্বাচিত করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট ছাত্র শাখা গঠন করা হয়।
জালকুড়ি সম্মেলন
২৮ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ টায় কমরেড তোতা মিয়ার সভাপতিত্বে জালকুড়ি শাখা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা কমিটির পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন হাফিজুল ইসলাম ও দুলাল সাহা। সম্মেলনে ৩ সদস্য বিশিষ্ট জালকুড়ি শাখা গঠন করা হয়। তোতা মিয়াকে সম্পাদক নির্বাচন করা হয়।
১৩ নং ওয়ার্ড সম্মেলন
২৯ জুলাই শুক্রবার বিকাল ৫ টায় কমরেড আঃ সোবাহানের সভাপতিত্বে ১৩ নং ওয়ার্ড শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রতিনিধি ছিলেন বিমল কান্তি দাস, আঃ হাই শরীফ ও সুজয় রায় চৌধুরী বিকু। সম্মেলনে ৬ সদস্য বিশিষ্ট ১৩ নং ওয়ার্ড শাখ গঠন করা হয়। বিজয় কর্মকার সম্পাদক নির্বাচিত হন।
সোনারগাঁ সম্মেলন
৬ আগষ্ট শনিবার সকাল ১০ টায় কমরেড খালেকের সভাপতিত্বে সোনারগাঁও শাখা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রতিনিধি ছিলেন শিবনাথ চক্রবর্তী ও বিমল কান্তি দাস। সম্মেলনে ৬ সদস্য বিশিষ্ট সোনারগাঁও শাখা গঠন করা হয়। কমরেড নাছিরকে সম্পাদক নির্বাচন করা হয়।
হাজীগঞ্জ সম্মেলন
৮ আগষ্ট সোমবার সন্ধ্যা ৭ টায় কমরেড নাছির উদ্দিনের সভাপতিত্বে হাজী গঞ্জ শাখা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা কমিটির পক্ষ থেকে রবীন্দ্র দাস ও বিমল কান্তি দাস সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনে ৫ সদস্য বিশিষ্ট শাখা গঠন করা হয়। নাছির উদ্দিনকে সম্পাদক নির্বাচন করা হয়।
২৯ জুলাই শুক্রবার জেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি, ২৮ জুলাই বৃহস্পতিবার অর্থ উপ-পরিষদ ও ৩১ জুলাই রবিবার প্রচার ও জমায়েত উপ-পরিষদ, ৬ আগষ্ট শনিবার সেচ্ছা সেবক উপ-পরিষদ সভা করে নারায়ণগঞ্জ জেলা সম্মেলন সফল করার জন্য ব্যপক প্রস্তুতি ও কর্মসূচি গ্রহণ করি।

Related posts