November 20, 2018

ঢাকার বাড়ছে আকার!

ঢাকাঃ  ঢাকা মহানগরীর আকার বাড়ছে। সম্প্রসারিত ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সঙ্গে আটটি ইউনিয়ন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সঙ্গে আটটি ইউনিয়ন যুক্ত হবে। স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন, ২০০৯-এর ৪ ধারা অনুযায়ী এ সম্প্রসারণ হতে যাচ্ছে। সিটি করপোরেশন এলাকা সম্প্রসারণ বিষয়টি আজ প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি (নিকার)’র বৈঠকে অনুমোদনের জন্য উঠছে । বেলা ১২টায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উচ্চ পর্যায়ের এ সভায় অনুমোদন মিললেই ঢাকা মহানগরীর আওতাভুক্ত হবেন ১৬ ইউনিয়নের বাসিন্দারা। স্থানীয় সরকার বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সঙ্গে বেরাইদ, বাড্ডা, ভাটারা, সাতারকুল, হরিরামপুর, উত্তরখান, দক্ষিণখান ও ডুমনী ইউনিয়নের সব মৌজা অন্তর্ভুক্ত হতে যাচ্ছে।

তবে ঢাকুলী, ঢকদ্বিগুণ ও শৈলপুর মৌজার ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের অধিগ্রহণকৃত ভূমি এবং এর আগে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত হওয়া এলাকা ছাড়া মৌজার বাকি জমিও উত্তর সিটি করপোরেশনের সঙ্গে যোগ হবে। অন্যদিকে শ্যামপুর, মাতুয়াইল, ডেমরা, দনিয়া, সারুলিয়া, দক্ষিণগাঁও, নাসিরাবাদ ও মান্ডা ইউনিয়নের সব মৌজা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত হবে। নিকার বৈঠকের জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের সার সংক্ষেপে বলা হয়েছে, আর্থসামাজিক ও নাগরিক সুবিধার কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে রাজধানী ঢাকার সংলগ্ন পার্শ্ববর্তী এলাকায় নগরায়ন ক্রমশ বেড়ে চলছে। রাজধানী ঢাকা মহানগরের অন্তর্গত ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বর্তমান সীমানার বাইরে ঢাকা জেলার প্রশাসনিক সীমানাভুক্ত তেজগাঁও সার্কেলের বিদ্যমান ১৬টি ইউনিয়নের নগরায়ন বিস্তৃত হয়েছে।

মহানগর সংলগ্ন এ এলাকায় ইতিমধ্যে বৃহৎ আকারের বিভিন্ন আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবন, শিল্প প্রতিষ্ঠান, কল- কারখানা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, ক্লিনিক ইত্যাদি গড়ে উঠছে। এর পাশাপাশি বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানি সরবরাহের মতো নাগরিক সুযোগ-সুবিধাও বিস্তৃত হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের সাংগঠনিক সক্ষমতায় এলাকার নাগরিক সুবিধার বিভিন্ন ইউটিলিটি, পরিকল্পিত নগরায়ন, পয়ঃপ্রণালী, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পানি নিষ্কাশন, রাস্তাঘাট নির্মাণ, সড়ক বাতি স্থাপন, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন, কবরস্থান- শ্মশান ব্যবস্থাপনা তথা সার্বিক উন্নয়ন বাস্তবায়ন ও কল্যাণ সেবা পৌঁছে দেয়া সম্ভব নয়। বাস্তবে শহরে রূপান্তরিত এসব ইউনিয়নকে সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্তির জন্য বিভিন্ন সময়ে জনগণের প্রত্যাশা ও দাবি উত্থাপিত হয়েছে। এ কারণে সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, তেজগাঁও সার্কেলের ১৬টি ইউনিয়ন সিটি করপোরেশনে যুক্ত করার জন্য প্রথমে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। এরপর শুনানি করে মতামতসহ প্রতিবেদন পাঠানোর জন্য ঢাকার ডিসিকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে অনুরোধ করা হয়।

মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক গত বছরের ২২শে নভেম্বর গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে ঢাকার ডিসি অফিস। ওই গণশুনানিতে ২১টি আপত্তি পাওয়া যায়। ওই সব আপত্তি নিষ্পত্তির পর বিষয়টি প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটিতে ওঠানো হলে তাতে অনুমোদন দেয়া হয়। সচিব কমিটির অনুমোদন শর্তের ভিত্তিতেই বিষয়টি নিকার বৈঠকে উঠতে যাচ্ছে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/৯ মে ২০১৬

Related posts