November 18, 2018

ডু প্লেসিস শুনানিতে বিলম্ব; খেলবেন অ্যাডিলেড টেস্ট

hashim-amla1

দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস অ্যাডিলেড টেস্ট খেলবেন, এমনটাই আশা করা হচ্ছে। জানা গিয়েছিল বল টেম্পারিং এর অভিযোগে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হতে পারে প্রোটিয়া অধিনায়ক। তবে সর্বশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে, ডু প্লেসিসের বিষয়ে চূড়ান্ত শুনানিতে আইসিসির কিছুটা বিলম্ব হতে পারে। সেই হিসেবে অজিদের বিপক্ষে অ্যাডিলেড টেস্টে খেলবেন ডু প্লেসিস।
অস্ট্রেলিয়ান টিভি চ্যানেলের এক রিপোর্টার অ্যাডিলেড এয়ারপোর্টে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে ডু প্লেসিসকে কিছু প্রশ্ন করতে চেয়েছিলেন। তবে তাকে তৎক্ষণাৎ সেখান থেকে সরিয়ে দেন দক্ষিণ আফ্রিকার নিরাপত্তা ম্যানেজার। পরবর্তীতে জানা যায়, অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজ শেষ হওয়ার পূর্বে ডু প্লেসিসের বিরুদ্ধে আইসিসির কোন ধরনের শুনানির সম্ভাবনা নেই।

শুনানিতে বিলম্ব হওয়ার কারন হিসেবে সাউথ আফ্রিকান ক্রিকেট বোর্ড থেকে জানানো হয়, দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেট বোর্ড ডু প্লেসিসের জন্য আইনজীবী নিয়োগ করেছে। বোর্ড এবার ডু প্লেসিসের পক্ষ হয়ে আইসিসির বিপক্ষে লড়বে। যার ফলে শুনানি স্বাভাবিক সময় থেকে কিছুটা বিলম্বিত হবে। এক্ষেত্রে একজন প্লেয়ার এবং টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ নিয়ে আইসিসির ম্যাচ বিরুদ্ধে বোর্ড লড়াই করবে।

এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকান সিনিয়র ব্যাটসম্যান হাসিম আমলা মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে শুক্রবার বিকালে নিজ দলের সকল খেলোয়াড়দের পিছনে রেখে সংবাদ মাধ্যমকে বলেছিলেন, দক্ষিণ আফ্রিকা এবার ডু প্লেসিসের পক্ষ হয়ে আইসিসির বিরুদ্ধে লড়বে। তিনি আইসিসির আনীত এই অভিযোগকে হাস্যকর এবং কৌতুকপূর্ণ অভিব্যক্তি হিসেবে আখ্যায়িত করেছিলেন।

অ্যাডিলেড এয়ারপোর্টে সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলসহ সকল সদস্যরা পৌঁছালে সেখানে অস্ট্রেলিয়া গনমাধ্যমের সাংবাদিকগণ ডু প্লেসিসের সাথে কথা বলতে চাইলে দক্ষিণ আফ্রিকার নিরাপত্তা ম্যানেজার তাদেরকে সরিয়ে দেন। এ নিয়ে সাংবাদিকরা প্রেসার করলে তাদের উপর কিছুটা বিরক্ত হন দক্ষিণ আফ্রিকার নিরাপত্তা ম্যানেজার।

এ বিষয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ট্যুর ম্যানেজার মোহাম্মদ মোসাজি অস্ট্রেলিয়ান গনমাধ্যমের সমালোচনা করে বলেন, “আমরা প্রথম দিকে অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিকদের সাথে সমঝোতা করতে চেয়েছিলাম এবং ডু প্লেসিসকে কোন ধরনের প্রশ্ন করার থেকে বিরক্ত থাকতে বলেছিলাম। কিন্তু ‘চ্যানেল নাইন’ সাংবাদিকদের ব্যবহার অত্যন্ত হতাশাজনক। আমরা শুধু তাদের নয়, আমাদের দেশের সাংবাদিকদেরও এ বিষয়ে কিছু না বলার জন্য পরামর্শ দিয়েছি। শুক্রবার টিম হোটেল এরপর শনিবার এবং আজ (সোমবার) অ্যাডিলেড এয়ারপোর্টে তারা এ নিয়ে আমাদের নানারকম প্রশ্ন করছে এবং আমাদের বিরক্ত করছে। তৃতীয়বারের মত তারা আমাদের খেলোয়াড়দের আগ্রাসীভাবে হয়রানি করছে। যা মিডিয়ার জন্য অসম্মানজনক। আমরা সবসময়ের জন্য মিডিয়ার প্রতি শ্রদ্ধাশীল ছিলাম এবং সফরের শেষপর্যন্ত এটাই থাকতে চাচ্ছি”।

Related posts