September 19, 2018

টুপি খুলে ২০ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দিল শিক্ষক!

মোঃ আঃ রহিম রেজা,ঝালকাঠিঃ  ঝালকাঠির রাজাপুরের বাগড়ি গ্রামের নূরানী কিন্ডার গার্ডেন মাদ্রাসা ও হিফজখানার ২য় ও ৩য় শ্রেণির ২০ শিশু শিক্ষার্থীকে ক্লাস রুমে দাঁড় করিয়ে টুপি খুলে মাথার চুল কেটে দিয়েছে মোঃ রবিউল ইসলাম নামে ওই মাদ্রাসার এক শিক্ষক। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের এ ঘটনায় অভিভাবকদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের অভিযোগে জানা গেছে, ২০ এপ্রিল বুধবার (আজ) পরীক্ষা হওয়ায় গত কয়েক দিন ধরে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক রবিউল ইসলাম ২য় ও ৩য় শ্রেণির ছেলে শিক্ষার্থীদের মাথার চুল কেটে আসতে বলে। কিন্তু শিশু শিক্ষার্থীদের মাথার চুল ছোট হওয়ায় তারা চুল না কেটে মাদ্রাসায় এলে শিক্ষক রবিউল ইসলাম মঙ্গলবার দুপুরে সকল শিক্ষার্থীকে ক্লাসে দাঁড় করিয়ে টুপি খুলে কেচি দিয়ে প্রত্যেক ছেলে শিক্ষার্থীরা মাথার চুল কেটে দেয়। এ ঘটনা ওই শিক্ষার্থীরা বাড়িতে গিয়ে অভিভাবকদের কাছে বলে এবং দেখালে অভিভাবকরা মাদ্রাসায় গিয়ে এ ঘটনার কারনে জানতে চায়।

এদিকে এ ঘটনার পর অভিভাবকদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়ে শিক্ষক রবিউল ইসলাম আত্মগোপনে চলে যায়। এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক রবিউল ইসলাম জানান, ২য় ও তয় শ্রেণির ছেলে ছাত্রদের মাথার চুল বড় হয়ে যাওয়ায় তাদের অনেক দিন ধরে চুল কেটে আসতে বললেও তারা কেটে না আসায় কেচি দিয়ে প্রত্যেকের মাথায় একটি করে পোচ দিয়ে চুল কেটে দিয়েছি, যাতে বাড়িতে গিয়ে চুল কেটে আসে।

এ বিষয়ে নূরানী কিন্ডার গার্ডেন মাদ্রাসা ও হিফজখানার প্রধান শিক্ষক (বড় হুজুর) জয়নাল আবেদিন জানান, এ ঘটনা শুনে তাকে মাদ্রাসায় আসতে বলছি ও গালমন্দ করেছি। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/১৯ এপ্রিল ২০১৬/রিপন ডেরি

Related posts