September 19, 2018

ঝিনাইদহে ২০১৫ সালের আলোচিত ঘটনা শ্বাশুড়ি ও শ্যালিকাকে পুড়িয়ে হত্যা!

জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহ জেলায় ২০১৫ সালে সবচে আলোচিত ঘটনা ছিল ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার ফারাশপুর গ্রামে শ্বাশুড়ি তাসলিমা বেগম (৪৫) ও ১৮ মাস বয়সী শ্যালিকা তাসমিয়াকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা। আলোচিত এই নৃশংসতা হত্যার পর সারা জেলায় ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। হত্যাকারীর গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধনও করা হয়। পুলিশ ও প্রশাসনের একাধিক টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পুলিশের উপর মহল থেকে কঠোর ভাবে এই বিষয়টি তদন্ত ও ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ প্রদান করে।

পরবর্তীতে গত ২ নেভম্বর এই মামলার প্রধান আসামী জামাই কামাল হোসেন শেখ (৩০) র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে নিহত হন। এটিও ২০১৫ সালে জেলার একটি আলোচিত ঘটনা। ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন জানান, গত ২০ অক্টোবর ভোর রাতে ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ফরাশপুর গ্রামে যৌতুকের দাবিতে জামাই কামাল শেখ ঘুমিয়ে থাকা স্ত্রী উর্মি খাতুনকে হত্যা করতে ঘরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে তার শাশুড়ি তাসলিমা বেগম (৪৫) ও ১৮ মাস বয়সী শ্যালিকা তাসমিয়া দগ্ধ হয়ে মারা যায়। এ ঘটনায় কামালের শ্বশুর চান মিয়া ও স্ত্রী উর্মিও দগ্ধ হন।

এ ঘটনাটি দেশব্যাপী আলোচিত হয়। সে সময় কালীগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত জহির উদ্দিন জানান, নিহত তামলিমা বেগমের ছেলে টনি বিশ্বাস বাদি হয়ে কালীগঞ্জ থানায় ঘটনার দিন হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে প্রমানিত হয় ঘটনার দিন কামাল হোসেনসহ ২/৩জন ব্যক্তি ফারাশপুর গ্রামে অবস্থান করছিল এবং তারাই ঘরের জানালা দিয়ে পেট্রোল ঢেলে ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। এদিকে এ ঘটনার পর গত ২ নভেম্বর মধ্যরাতে কালীগঞ্জ উপজেলার কড়াইতলা নামক স্থানে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব) এর সাথে বন্দুক যুদ্ধে শ্বাশুড়ি ও শ্যালিকা হত্যা মামলার প্রধান আসামী কামাল হোসেন শেখ নিহত হন।

নিহত কামাল হোসেন যশোরের লেবুতলা এলাকার আগ্রাইল গ্রামের মৃত বাবুল হোসেনের একমাত্র ছেলে। ঘটনাস্থল থেকে র‌্যাব এক রাউন্ড গুলি সহ একটি বিদেশী পিস্তল উদ্ধারের দাবী করে। ঝিনাইদহ র‌্যাবের পক্ণ থেকে বলা হয় ঘটনার দিন রাত দেড়টার দিকে কালীগঞ্জ যশোর সড়কের বারোবাজার কড়াইতলা নামক স্থানে একটি মটর সাইকেলে চড়ে তিন জন আসেন। এ সময় টহলরত র‌্যাব সদস্যরা তাদের গতি রোধ করার চেষ্টা করলে তারা উল্টো পথে পালানোর চেষ্টা করে। র‌্যাব তাদের পিছু নিলে তারা গুলি ছুঁড়তে থাকে।

র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় মটর সাইকলের পিছনে বসে থাকা একজন গুলি বিদ্ধ হয়ে মাটিতে পড়ে যায়। বাকি দুইজন পালিয়ে যায়। গুলিবিদ্ধ আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন। গত ২ নভেম্বর সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নিহত ব্যক্তি কামাল হোসেন বলে তার স্বজনরা সনাক্ত করে।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts