November 16, 2018

ঝিনাইদহে চিত্র প্রদর্শনী

613
জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ   আলোকচিত্র প্রদর্শনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের স্বাধীনতা সংগ্রাম, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে সচেতন করে তোলার কাজ চলছে দেশব্যাপী। তারই অংশ হিসাবে শনিবার ঝিনাইদহ ফজর আলী গার্লস স্কুল এ্যান্ড কলেজ চত্বরে এক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর এর উদ্যোগে এসব কর্মসূচী নেওয়া হয়।

জানা গেছে, ঝিনাইদহ শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিতি ফজর আলী গার্লস স্কুল এ্যান্ড কলেজ। এ কলেজের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৫ শতাধিক। শিক্ষক মন্ডলী আছেন ৩২ জন। এই বিদ্যালয়ের সামনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর সংগ্রাম থেকে স্বাধীনতা অর্জনের প্রামান্য দলিলের অংশ থেকে ১০০ স্থির চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। দিনভর চলে এ প্রদর্শনী। শিক্ষার্থীরা ছোট ছোট দলে বিভক্ত হয়ে একজন দলনেতার নেতৃত্বে দেখতে থাকে এই স্থির চিত্র। শিক্ষার্থীরা ছাড়াও প্রদর্শনীতে আসেন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা, সমাজকর্মী ও রাজনীতিবিদ। এ প্রদর্শনী থেকে সবচেয়ে বেশী উৎসাহ পেয়েছে শিক্ষার্থীরা। মুক্তিযুদ্ধ দেখেনি, কিন্তু আলোকচিত্র প্রদর্শনী থেকে আজ তারা স্বাধীনতা সংগ্রাম, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে পারছে।

ওই বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী স্মৃতি ব্যানার্জী বলেন, মুক্তিযুদ্ধ তো আমি দেখিনি। কিন্তু এই চিত্র প্রদর্শণীর মাধ্যমে আজ বুঝতে পারছি আমাদের দেশ কিভাবে স্বাধীন হয়েছে। কিভাবে পাকিস্তানি পাক-সেনারা আমাদের উপর হামলা করেছিল। আজ এ চিত্র দেখে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদদের প্রতি আরও শ্রদ্ধাবোধ বেড়ে গেল।

১০ম শ্রেণীর ছাত্রী মেহজাবিন কাফী বলেন, বঙ্গবন্ধু সর্ম্পকে অনেক শুনেছি। আজ এই চিত্র দেখে বুঝতে পারলাম বাংলাদেশের জন্য তিনি কতবড় অবদান রেখেছিলেন। তিনি না থাকলে যে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না তা আজ বুঝতে পারছি।

একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী অন্তু জোয়ার্দ্দার বলেন, পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী কিভাবে বাংলাদেশের মানুষের উপর হামলা করেছিল তা আজ দেখতে পাচ্ছি। ৩০ লাখ মানুষের জীবনের বিনিময়ে আমাদের এই স্বাধীনতা কিভাবে হয়েছিল আজ তা উপলব্ধি করতে পারছি। এ ব্যাপারে আয়োজক ফজর আলী গার্লস স্কুল এ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ জয়ারাণী চন্দ বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাস আজ বিকৃত করা হচ্ছে। বর্তমান প্রজন্ম সঠিক ইতিহাস থেকে দুরে ছিটকে যাচ্ছে। যে কারণে শিক্ষার্থীদের সামনে সঠিক ইতিহাস তুলে ধরতে আমাদের এই আয়োজন। এর আগে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে উদ্বোধন করা হয়। পরে মুক্তিযুদ্ধের উপর আলোচনা করা হয়।

আলোচনা সভায় ফজর আলী গার্লস স্কুল এ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ জয়ারাণী চন্দ’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার দলিল উদ্দিন আহমেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী জেলা কমান্ডার শফিউল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক কানু গোপাল মজুমদার, প্রভাষক হামিদা খাতুন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রভাষক জাহিদুল ইসলাম।

বক্তারা বলেন, শুধু ঝিনাইদহের একটি স্কুল বা কলেজে নয়, দেশব্যাপী এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হলে স্বাধীনতা সংগ্রাম, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে পারতো শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণির মানুষ।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts