November 13, 2018

জয়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী


হাকিকুল ইসলাম খোকন,
বিশেষ সংবাদদাতাঃ  
ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপমানিত করার লক্ষে মেন্দি সালাদির তথাকথিত সাক্ষাতকারের নামে মিথ্যা ভিডিও প্রচার ও দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী যুবলীগ।

গত ৩০ মে সোমবার ওয়াশিংটন ডিসির ৮৬০৯ সাউডলী রোড ৩০১ ম্যানাসাস এভিনিউতে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় এ দাবি জানানো হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক একেএম তারিকুল হায়দার চৌধুরী। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম মেম্বার নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন এমপি। পরিচালনা করেন যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক বাহার খন্দকার সবুজ।

বক্তব্য রাখেন, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের অন্যতম সদস্য আতিকুর রহমান সুজন, একরামুল হক সাবু, সাইফুল্লা ভূইঁয়া, স্বপন কর্মকার, ইসমাঈল হোসেন স্বপন, তানজীর আলম টিজে, এমডি রিয়াজুল কাদির লস্কর মিঠু, শাহ রহিম শ্যামল, আমিনুল হোসেন , সফি আনসারী, ফ্লোরিডা যুবলীগের সভাপতি দয়ান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক রমিজউদ্দিন আহমেদ, বৃহত্তর ওয়াশিংটন যুবলীগের আহবায়ক দেওয়ান আরশাদ আলী বিজয়, যুগ্ম আহবায়ক জাহিদ হোসেন। নিউইর্য়ক সিটি যুবলীগের আহবায়ক খন্দকার জাহিদুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ সুমন আলী, ম্যানহাটন বরো কমিটির আহবায়ক সামসুল আলম খান, যুগ্ম আহবায়ক আক্তারুজ্জামান ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।

একেএম তারিকুল হায়দার চৌধুরী বলেন, সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ছয়জন কংগ্রেসম্যানের সই জাল করে বিবৃতি  এবং সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণের ষড়যন্ত্রে ছিল যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি। এখন একই কায়দায় বিএনপির নেতাদের যোগসাজসে জামাতপন্থী একটি মিডিয়া সজীব ওয়াজেদ জয়ের বিরুদ্ধে মেন্দি সালাদির তথাকথিত সাক্ষাতকারের নামে মিথ্যা ভিডিও প্রচার করছে। তিনি বলেন, সই জাল করে ভুয়া বিবৃতি প্রচার করে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসম্যানদের কাছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সুনাম ক্ষুণ্ন করেছে। ঠিক তেমনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের বিরুদ্ধে কথা বলে পুরো জাতিকে কলংকিত করেছে এ চত্রুান্তকারী দলটি।

তিনি সংশ্লিষ্টদেরকে ভবিষ্যতে এ ধরনের মিথ্যাচার থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, বিএনপি বিভিন্ন নামে জামাতকে নিয়ে দেশে সন্ত্রাস করছে আর বিদেশে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল এবং পাকিস্তানের প্রেতাত্মা। বাংলাদেশে তাদের রাজনীতি করার কোনো অধিকার নেই। দেশে মানুষ এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার রাজনীতি চলবে।

তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি জি-৭ সম্মেলনের যোগদানে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, জি-৭ নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক প্রমাণ করে বাংলাদেশ এখন আরো তলাবিহীন ঝুড়িঁর দেশ নয়। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে চলছে।

অন্যান্য বক্তারা  বলেন, বিএনপির মিথ্যার রাজনীতির উত্তম দলিল। বাংলাদেশে যুবলীগের একজন কর্মী বেঁচে থাকলে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের পরিবারে প্রতি মিথ্যাচার, ষড়যন্ত্র সহ্য করবেনা। তারা আরো বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের সোনালী ভবিষ্যৎ। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার যোগ্য তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বে উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের অভিযাত্রায় অতীতের গৌরবময় ভুমিকার মতই দায়িত্বশীল ভুমিকা পালনে প্রতিশ্রুতিবদ্ব যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ।

সবার প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাকা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে  এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ২ জুন ২০১৬

Related posts