November 16, 2018

জেনে নিন নারকেল তেলের সাত গুণ

158
নারকেল তেলের গুণের কথা তো কমবেশি আমরা সবাই জানি। তবে ব্যক্তিগত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ক্ষেত্রে এটির কিছু ভালো ব্যবহার রয়েছে, যেমন এর প্রদাহরোধী গুণ। এ ছাড়া এর মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ও অ্যান্টিফাংগাল গুণ।

স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলদি ফুড টিম জানিয়েছে নারকেল তেলের কিছু গুণের কথা।

১. খুশকি দূর করতে
নারকেল তেলের মধ্যে অসাধারণ ময়েশ্চারাইজিং গুণ থাকার কারণে এটি খুশকি দূর করে এবং চুলকানি কমাতে সাহায্য করে। এটি মাথার ত্বক থেকে অতিরিক্ত তেল নিঃসরণ কমায়, এতে খুশকি উপদ্রব কমে।

ঘুমের আগে মাথায় নারকেল তেল মাখুন। সকালে চুল ধুয়ে ফেলুন। এটি খুশকি দূর করতে সাহায্য করবে।

২. ত্বকের ছিদ্র ভাব দূর করে
নারকেল তেল ত্বকের ছিদ্র ভাব দূর করে। এটি ব্রণ প্রতিরোধে সাহায্য করে। ত্বককে কোমল ও মসৃণ করতে নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন।

৩. চোখের পাপড়ি
চোখের পাপড়িও চুলের মতোই। একেও আর্দ্র রাখা প্রয়োজন। ঘুমের আগে পাপড়িতে সামান্য নারকেল তেল মাখুন। এটি পাপড়ি ভালো রাখতে সাহায্য করবে।

৪. ম্যাসাজ ওয়েল
শরীরের ম্যাসাজ করার জন্য নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। প্রদাহরোধী গুণের জন্য এটি পেশির টান ভাব প্রতিরোধ করবে।

৫. হাতের যত্নে
অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান থাকার কারণে নারকেল তেল খুবই উপকারী। হাত ধোয়ার পর ৩০ সেকেন্ড নারকেল তেল মাখুন। এর পর হাত ঢেকে ফেলুন। এটি শীতে হাত শুষ্ক হওয়া প্রতিরোধ করবে।

৬. ডিওডরেন
নারকেলের তেলকে ডিওডরেন হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। নারকেল তেলের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিফাংগাল উপাদান। এটি ফাঙ্গাস প্রতিরোধে সাহায্য করে। এ ছাড়া ছত্রাক ও ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ করে। গোসলের পর বগলে সামান্য নারকেল তেল ঘষুন।

৭. শেভ করার পর
শেভ করার পর সামান্য নারকেল তেল ত্বকে মাখতে পারেন। রেজার ব্যবহারের পর কোনো জায়গায় অস্বস্তি হলে এই তেল লাগালে ত্বক আরাম পাবে।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts