September 22, 2018

জিয়া কি খুন হয়েছিলেন!

আত্মহত্যার প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে আগেই সরব হয়েছে জিয়ার পরিবার। কিন্তু এবার আর শুধু প্ররোচনা নয়। সিবিআইয়ের চার্জশিট এবং ফরেনসিক দফতরের রিপোর্ট তুলে ধরছে বেশ কিছু অজানা তথ্য।

ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ আর কে শর্মা মূলত চারটি তথ্য তুলে ধরেছেন সিবিআইয়ের কাছে । এই চারটি বিষয় স্পষ্ট ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, জিয়া খানের মৃত্যু আত্মহত্যা না-হয়ে হত্যা হতে পারে। হত্যার সপক্ষেই ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ তুলে ধরলেন এই তথ্যগুলি-

১। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট সঠিক নয়। ঠোঁটের উপরের আঘাত এবং বাহুর আঘাতকে ঠিকভাবে পরীক্ষা করা হয় নি।

২। জিয়ার সমস্ত আঘাত একটা বিষয়েই ইঙ্গিত করছে, যে মৃত্যুর আগের মুহূর্তে তিনি কোনও ব্যক্তিকে আঁকড়ে ধরার চেষ্টা করেছিলেন।

৩। তাঁর দেহে প্রচুর মাত্রায় অ্যালকোহল পাওয়া গিয়েছে। যে অবস্থায় কোনও সবল লোকের পক্ষে মৃতব্যক্তির দেহকে অনায়াসে তুলে নিয়ে গিয়ে ঝুলিয়ে দেওয়া সম্ভব।

৪। জিয়ার নখের নমুনা সংগ্রহ করে যে ডিএনএ পরীক্ষা করা হয়েছিল, তাতেও বিস্তর ত্রুটি আছে বলেই দাবি করেছেন চিকিৎসক শর্মা।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/মেহেদি/ডেরি

Related posts