September 23, 2018

জিয়াউর রহমানের ৮০তম জন্ম বার্ষিকী পালন করেছে যুক্তরাষ্ট্র ফোরাম

242
হাকিকুল ইসলাম খোকন,
বিশেষ সংবাদদাতাঃ  

গত ১৮ জানুয়ারী , সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের ইত্যাদি গার্ডেন রেষ্টুরেন্টে জাতীয়তাবাদী ফোরাম ইউএস ’র উদ্যোগে জিয়াউর রহমানের ৮০ তম জন্ম বার্ষিকী পালন করা হয়। সংগঠনের সভাপতি সারোয়ার হোসেন বাবুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ছাইদুর রহমান খান ডিউকের পরিচালনায় অনুষ্টিত হয়। এতে সম্মানীত অতিথি ছিলেন সাবেক সভাপতি রাফেল তালুকদার ,ড. নূরুল আমিন পলাশ , ফারুক হোসেন মজুমদার,মুক্তিযোদ্ধা গোলাম হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ডালিম। বক্তব্য রাখেন মাহবুবুর রহমান মুকুল , নাসির উদ্দিন, এম আই ডালি, আব্দুল মান্নান, সফিকুল সরদার রকেট ,সুলতান মাহমুদ, মনিরুল ইসলাম মনির, আবুল হোসেন, মোয়াজ্জেম হাসান কাজল, মোঃ জলি ও জাকির হোসেন নিশান প্রমুখ।

সভায় বক্তাগন বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮০তম জন্মবার্ষিকী আজ ১৯ জানুয়ারী। ১৯৩৬ সালের এই দিনে বগুড়া জেলার গাবতলী উপজেলার বাগমারা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার ডাকনাম কমল। প্রতি বছরের মতো এবারও দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছে বিএনপি। সকাল ১১টায় শেরেবাংলান গরস্থ জিয়াউর রহমানের মাজারে দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এছাড়া সারা দেশে বিএনপি নেতাকর্মীরা নানা আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে দিবসটি পালন করবে। মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার ও জেড ফোর্সের প্রধান হিসেবে জিয়াউর রহমান এদেশের মানুষের কাছে প্রথম পরিচিত হলেও পরে তিনি বাংলাদেশের ফেীজি রাষ্ট্রনায়কে পরিণত হন। তিনি বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদের আদর্শের ভিত্তিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) গঠনের মধ্যদিয়ে দেশে উন্নয়ন ও উৎপাদনের রাজনীতির সূচনা করেন। বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদের নতুন দর্শন উপস্থাপন করেন জিয়াউর রহমান।

তিনি ১৯ দফা কর্মসূচি দিয়ে দেশে উন্নয়ন ও উৎপাদনের রাজনীতি এগিয়ে নিয়ে যান। তার প্রতিষ্ঠিত বিএনপি দেশের মানুষের প্রিয় দল হিসেবে ’৭৯ সালের দ্বিতীয় সংসদ, ’৯১ সালের প ম সংসদ ও ষষ্ঠ এবং অষ্টম সংসদ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন করে। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের অধীনে অনুষ্ঠিত ’৮৬ সালের তৃতীয় ও ’৮৮ সালের চতুর্থ এবং মহাজোট সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৪ সালে ১০ম সংসদ নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি। বঙ্গবন্ধুর পক্ষে ৭১ সালে জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণা যেমন এ দেশের মুক্তিকামী মানুষকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে সাহস ও প্রেরণা জুগিয়েছিল, তেমনি ’৭৫ সালে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব যখন হুমকির মুখে, তখন সিপাহি-জনতার অভ্যুত্থান হয়। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে আসীন হন।
243
পররাষ্ট্রনীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন এনে জিয়াউর রহমান চীনসহ বিভিন্ন রাষ্ট্রের সঙ্গে নতুন সম্পর্কের সূচনা করেন। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সাতটি দেশকে নিয়ে ‘সার্ক’ গঠনের উদ্যোগ নেন। ওআইসিকে শক্তিশালী করার মাধ্যমে মুসলিম উম্মাহর সংহতি জোরদার করার জন্য তিনি সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। জিয়াউর রহমান প্রতিষ্ঠিত বিএনপি সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে বৃহৎ রাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। ১৯৮১ সালের ৩০ মে এক সামরিক বাহিনির সদস্যু ধারা জিয়াউর রহমান চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে নিহত হন। মুক্তিযুদ্ধে সাহসী অবদানের জন্য স্বাধীনতার পর  বঙ্গবন্ধুর সরকার তাকে বীরউত্তম খেতাবে ভূষিত করে।

সভায় বক্তাগন বলেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কর্মময় জীবনের উপর আলোকপাত করেন। সভায় বক্তাগন মার্টিন লুথার কিং এর ৮৭ তম জন্মবার্ষিকীর প্রতি ও শ্রদ্ধা জানান।
সভার প্রারম্ভে দাড়িয়ে সকল গনতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের প্রতি  শ্রদ্ধা জানানো হয়।
সভায়  বক্তাগন  বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বিএন পি. ও সকল সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের সবাইকে জিয়ার আদর্মে ঐক্য বদ্ধ হয়ে কাজ করাপর আহবান জানান।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts