November 18, 2018

জিপিএস’র সাহায্য ছাড়া এই জাহাজে কিছু খুঁজে পাবেন না!

ডেস্ক রিপোর্টঃ    ১৯১২ সালের ২ এপ্রিল সাউদাম্পটন বন্দর। থিকথিকে ভিড়। আট থেকে আশি। কেউ দিচ্ছেন হাততালি। কেউ হতবাক। কেউ ওড়াচ্ছেন টুপি। ব্রিটেনে যেন উত্‍‌সব। ঠিকই আন্দাজ করেছেন। বিশ্বের বৃহত্তম জাহাজ টাইটানিকের যাত্রা শুরুর দিন। সেদিনের সাক্ষী নয় আজকের প্রজন্ম। সবই পরিচালক জেমস ক্যামেরনের চোখ দিয়ে দেখা। আর ইন্টারনেটে কিছু পুরনো ছবি। কাট টু ২০১৬। সেই সাউদাম্পটন বন্দর। এবারও কয়েক হাজার বিস্ময়, মুগ্ধ চোখ তাকিয়ে এক জলদৈত্যেরদিকে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রমোদতরী এল ব্রিটেনে। ৪টি ফুটবল মাঠের সমান সুবিশাল জাহাজটির নাম ‘হারমোনি অফ দ্য সিজ’।

দৈর্ঘ্য ১ হাজার ১৮৮ ফুটের এই জাহাজটির প্রথম ট্রায়াল হয়েছিল মার্চে। আপাতত চারদিন সাউদাম্পটনে থাকবে। ২৯ মের মধ্যে বার্সেলোনা পৌঁছাবে। বিশ্বের বৃহত্তম বিলাসবহুল প্রমোদতরী সম্পর্কে একটু বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক। প্রায় ৪টি ফুটবল মাঠের আয়তনের এই জাহাজটি ৬ হাজার ৭৮০ জন যাত্রী বহন করতে পারবে। বিলাসবহুল এই জাহাজের ওজন ২ লক্ষ ২৭ হাজার টন। থাকছে ২৩টি সুইমিং পুল, ১৬টি ডেক, পার্কে ৫২টি গাছ। এছাড়াও নান্দনিক সৌন্দর্যের জন্য ১১ হাজার ২৫২টি নানা ধরনের শিল্পকর্মও রয়েছে জাহাজটিতে। তাছাড়া রোবোট বারটেন্ডার, ক্যাসিনো তো রয়েইছে। ‘হারমোনি অফ দ্য সিজ’ টাইটানিকের থেকে ৩৩০ ফুট বেশি লম্বা। জিপিএস-এর সাহায্য ছাড়া জাহাজটিতে কিছু খুঁজে পেতে কালঘাম ছুটবে। হারিয়েও যেতে পারেন কোনো যাত্রী।

সূত্র: এই সময়

Related posts