September 19, 2018

জাতীয় পরিচয়পত্র পাচ্ছেন প্রবাসীরা


হাকিকুল ইসলাম খোকনঃ  বিদেশে থেকেই প্রবাসীরা হাতে পাবেন স্বপ্নের  জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি)। বাংলাদেশে ব্যাংকে একাউন্ট খোলা, জমি বিক্রি, ফোনের কানেকশন থেকে শুরু করে নানান কাজে দরকার হয় এ কার্ডের। প্রবাসীদের অনেকেই নিয়মিত দেশে যান বেড়াতে বা কাজে। কোন কাজ করতে গিয়ে আইডি কার্ডের অভাব বোধ করেন। চট জলদি কার্ডও তৈরি করা যায়না।

এ পরিস্থিতিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সুবিধার কথা চিন্তা করে এবার দূতাবাসের মাধ্যমে বিদেশেই জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দেওয়ার কথা চিন্তা করছে সরকার। এই ভাবনার বাস্তায়নে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয় একটি পরিকল্পনাও প্রস্তুত করে ফেলেছে। প্রচলিত আইনে সংশোধন এনে হলেও প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া হবে বলে একাধিক সরকারি কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন।

তারা জানান, সম্প্রতি মন্ত্রী পরিষদ বিভাগ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে প্রবাসীদের দূতাবাসের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র সরবরাহ বা সংশোধনের সুযোগ সৃষ্টির বিষয়ে মতামত চায়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আবার এ বিষয়ে ইসির মতামত চাইলে প্রচলিত আইনে বাধা না থাকলে প্রবাসীদের এনআইডি দিতে কোনো অসুবিধা নেই বলে জানায় ইসি সচিবালয়।

মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সমন্বয় শাখার সিনিয়র সহকারী সচিব ড. ফারুক আহাম্মদ গেল ২৫ মে পররাষ্ট্র সচিবকে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠিয়েছেন। এতে তিনি বলেছেন, ‘আগামী ২৬ থেকে ২৮ জুলাই পর্যন্ত তিন দিনব্যাপী জেলা প্রশাসক সম্মেলন ২০১৬ অনুষ্ঠিত হবে। ওই সম্মেলনে আলোচনার জন্য জেলা প্রশাসক বা বিভাগীয় কমিশনারদের কাছ থেকে প্রাপ্ত মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সম্ভাবনা, সমস্যা ও সুপারিশমালা প্রেরণ করা হলো’। ওই চিঠির সঙ্গে প্রবাসীদের এনআইডি প্রদান বা সংশোধন সংক্রান্ত প্রস্তাবটি সংযুক্ত করে দেয়া হয়েছে।

প্রস্তাবটি করেছেন ঢাকা’র জেলা প্রশাসক। যেখানে বলা হয়েছে, ‘প্রবাসী বাংলাদেশিদের এনআইডি প্রাপ্তি বা সংশোধনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশে এসে আবেদন করতে হয়। এতে তাদের প্রচুর অর্থ ও সময় ব্যয় হয়। তাই বিদেশে অবস্থিত দূতাবাসের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান বা সংশোধন করা যেতে পারে’। ড. ফারুক আহাম্মদের পাঠানো চিঠিতে পররাষ্ট্র সচিবকে সংযুক্ত প্রস্তাবটির উপর মতামত পাঠাতে বলা হয়েছে।

এ অবস্থায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রবাসীদের এনআইডি সরবরাহ ও সংশোধন সেবা দেওয়ার বিষয়ে অভিমত চেয়ে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়কে চিঠি দিয়েছে। মন্ত্রণালয়টির কন্স্যুলার ও কল্যাণ অনুবিভাগের মহাপরিচালক মোহাম্মদ লুৎফর রহমানের স্বাক্ষরিত ইসি সচিব সিরাজুল ইসলামকে দেওয়া চিঠিতে বলা হয়েছে,‘জেলা প্রশাসক সম্মেলনের আলোচনা সুচিতে প্রবাসীদের এনআইডি সরবরাহের বিষয়টি অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে’।

আলোচ্য সুচিতে বলা হয়েছে, প্রবাসী বাংলাদেশীদের জাতীয় পরিচয়পত্র প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বাংলাদেশে এসে আবেদন করতে হয়। এতে প্রবাসীদের প্রচুর অর্থ এবং সময় ব্যয় হয়। এই মর্মে সুপারিশ করা হয়েছে যে, বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনসমূহের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান বা সংশোধনের ব্যবস্থা করা যেতে পারে। যেহেতু ওই বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের আওতাধীন সেহেতু বিষয়টির উপর নির্বাচন কমিশনের অভিমত প্রয়োজন।

এ বিষয়ে ইসির এনআইডি অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান মোহাম্মদ সালেহ উদ্দীন গণমাধ্যমকে বলেন, ইতোমধ্যে আমরা একটি পরিকল্পনা তৈরি করেছি। দূতাবাসগুলোতে পাসপোর্ট যেভাবে করা হচ্ছে, সেভাবেই করা যেতে পারে। অর্থাৎ প্রবাসী বাংলাদেশিরা সংশ্লিষ্ট দেশের দূতাবাসেই ভোটার নিবন্ধন ফরম পূরণ, আঙুলের ছাপ প্রদান ও ছবি তোলার কাজ সম্পন্ন করতে পারেন। যা পরবর্তীতে অনলাইনে ইসিতে পাঠিয়ে দিলে আমরা তা যাচাই করে দেখে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে ভোটার করে নিতে পারি। আর তার জাতীয় পরিচয়পত্র পাঠিয়ে দিতে পারি।

তবে যেহেতু জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন, ভোটার নিবন্ধন আইনের আলোকেই করতে হয়, সেহেতু কিছু আইনি জটিলতা দেখা দেবে। কেননা, আইনে ভোটার হতে হলে সংশ্লিষ্ট উপজেলায় ভোটার হতে হয়। যেখানে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাই নিবন্ধন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এক্ষেত্রে বিদেশে প্রবাসীদের এনআইডি প্রদানের জন্য আইনে কোনো নিবন্ধন কর্মকর্তার কথা বলা হয়নি। তাই আমাদের পরিকল্পনাটির ওপর নির্বাচন কমিশন আইন দেখে কোনো সিদ্ধান্ত পৌঁছতে পারে।

এছাড়া আরেকটি পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে। সেটি হচ্ছে ভোটার নিবন্ধন নয়, বরং জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধনের জন্য আলাদা আইন প্রণয়ন করা যেতে পারে। তাহলে আর কোনো সমস্যা হবে না বলেও জানান এনআইডি মহাপরিচালক।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে কি অভিমত দেবেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রবাসীদের ভোটার করে নিতে বা এনআইডি দেওয়ার ক্ষেত্রে আমাদের কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু আইন দেখেই নির্বাচন কমিশনকে সিদ্ধান্ত দিতে হবে। তবে একথা ঠিক, আমরা অনলাইন সেবা চালু করেছিলাম প্রবাসীদের কথা মাথায় রেখেই। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে প্রায় ১ কোটি প্রবাসী। সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে তারা পর্যায়ক্রমে হাতে পাবেন এনআইডি।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ১৮ মে ২০১৬

Related posts