September 25, 2018

জয় বাংলা-জয় বঙ্গবন্ধু স্লোগানে মুখরিত বিশ্বনাথ

9.09.17

মো. আবুল কাশেম, বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু স্লোগানে স্লোগানে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা সদরের মুখরিত হয়ে উঠে। শনিবার বিকেলে দলীয় কর্মসূচি ছাড়াই হঠাৎ উপজেলা যুবলীগ-ছাত্রলীগের ব্যানারে উপজেলা সদরের মিছিল বের হয়। বৃষ্টি উপেক্ষা করে শতশত নেতাকর্মী মিছিলে অংশগ্রহন করেন। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে নেতাকর্মীরা মিছিলে অংশ নিতে শনিবার দুপুর থেকে উপজেলা সদরে অবস্থান করেন। উপজেলা সদরের পুরান বাজারস্থ আল-হেরা শপিং সিটির সামন থেকে মিছিলটি বের হয়ে প্রধান সড়কগুলো প্রদিক্ষণ শেষে স্থানীয় বাসিয়া সেতুর ওপর পথসভা মিলিত হয়।
সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী এবং বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে উপজেলা যুবলীগ-ছাত্রলীগের যৌথ উদ্যোগে এ বিক্ষোভ মিছিল ও সভা অনুষ্ঠিত হয়।

পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পংকি খান বলেন, জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়নের জন্য শফিক চৌধুরীর নেতৃত্বে বিশ্বনাথে আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে একটি সুসংগঠিত পরিবার পরিণত হয়েছে। আর সেই সু-সংগঠিত আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করার জন্য বিএনপি-জামায়াতের সাথে আতাত করে দলের ভিতরে থাকা একটি কুচক্রীমহল অপচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বেঁচে থাকতে শফিক চৌধুরী ও উপজেলা আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করা যাবে না।

সভায় বক্তারা বলেন, জননেতা শফিক চৌধুরীর নির্দেশে ও পংকি খানের নেতৃত্বে বিশ্বনাথে উপজেলার ৭২টি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ আজ অত্যান্ত শক্তিশালী ও সু-সংগঠিত। বিশ্বনাথ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কচুরীপানা নয়, যে বানের পানিতে ভাসিয়ে দেবেন। শফিক চৌধুরী, পংকি খান ও আওয়ামী লীগে উপর আঘাত এনে শান্ত বিশ্বনাথকে অশান্ত করার সকল অপচেষ্ঠা প্রতিহত করা হবে। সারা জীবন নিজেকে আওয়ামী লীগ নেতা হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসলেন আর জীবনে একটি বারও নৌকায় ভোট দিলেন না। আপনারা কেমন আওয়ামী লীগ নেতা বিশ্বনাথবাসী জানেন।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মকদ্দছ আলীর সভাপতিত্বে ও উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়ন যুগ্ম সম্পাদক শাহ বোরহান আহমদ রুবেলের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মোঃ আসাদুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক আমির আলী চেয়ারম্যান, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সদস্য আতাউল গণি আসাদ, রামপাশা ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম, দশঘর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আবুল হোসেন, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত আলী, অলংকারী ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক তফজ্জুল আলী, দৌলতপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল আজিজ।

সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক আলতাব হোসেন, সদস্য আবদুল আজিজ সুমন, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক, জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি সুহেল আহমদ মুন্না, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শীতল বৈদ্য, সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মুহিবুর রহমান সুইট।

বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভায় উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা মকদ্দুছ আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি সামছু মিয়া, প্রচার সম্পাদক নিখিল পাল, আইন সম্পাদক শফিক উদ্দিন স্বপন, বন ও পরিবেশ সম্পাদক রুনু কান্ত দে, ত্রান ও পুনর্বাস সম্পাদক ফজলু মিয়া, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি সুফি শামছুল ইসলাম, অলংকারী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আরশ আলী, দৌলতপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি হাজী আরিফ উল্লাহ সিতাব, লামাকাজী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি রইছ আলী, সাধারণ সম্পাদক গোলাম আহমদ, খাজাঞ্চী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আবদুন নুর মেম্বার, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মিজাজুল ইসলাম, দেওকলস ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আবদুল মোমিন, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন রুপন, রামপাশা ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক নজির আহমদ, দশঘর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস মিয়া, আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়ার মিয়া, রিয়াজুল হক, ইরন মিয়া, আহমদ আলী, আবদুর রহমান, এমদাদুল হক, আখতার হোসেন জুনেদ, শাখাওয়াত হোসেন, মিজানুর রহমান মিজান, আবদুল মতিন, শাহ নেওয়াজ চৌধুরী সেলিম, শানুর আহমদ জয়দু, জাহেদ আহমদ, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি ছুরাব আলী, সহ সভাপতি সাহাব উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক বদরুল ইসলাম, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি হাজী আমির আলী, কার্যকরী সমভাপতি ফজর আলী মেম্বার, নির্বাহী সম্পাদক আজাদ মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক আরান বৈদ্য, শ্রমিক লীগ নেতা আওলাদ আলী, জেলা যুবলীগ নেতা ইকবাল হোসেন, যুবলীগ নেতা রফিক হাসান মেম্বার, আনোয়ার মিয়া, নিজাম উদ্দিন, আবুল কাহার, আবদু রউফ, শামীম আহমদ, আবদুল হক, শফিক মিয়া, আবদুস শহিদ, কামরুজ্জামান সেবুল, জিয়াউল ইসলাম জিয়া, এনামুল হক এনাম, আঙ্গুর মিয়া, তোফায়েল আহমদ, গিয়াস উদ্দিন, তৈমুছ আলী, ফয়ছল আহমদ মেম্বার, হাবিবুর রহমান মিনু, সঞ্জিত আচায্য, দবির আহমদ, নজির আহমদ, লিটন মিয়া, মোহন মিয়া, সাদ নুর মাস্টার, ইউসুফ আলী, নন্দ লাল বৈদ্য, মাহমুদুল করিম মঞ্জুর, মাসুক মিয়া, জামাল উদ্দিন, ফজলুর রহমান শিপন, মনোহর হোসেন মুন্না, সুন্দর আলী রুহুল, মনসুর আলী, মোহাম্মদ আলী মামুন, আবুল কালাম আজাদ, সায়েদ আহমদ, আলমগীর হোসেন, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোসাদ্দিক হোসেন সাজুল, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি বদরুল আলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, যুগ্ম সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সাহিদ, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রফিক মিয়া, সুহেল খান, মাহফুজুর রহমান দুলু, সিজিল মিয়া, নিজাম উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি রেদুয়ানুল করিম মাছুম, শিপন আহমদ, মুজিবুর রহমান মঞ্জু, লিটন দে, নজরুল ইসলাম সাহেল, আলী আহমদ জুয়েল, মাহবুব হোসাইন মাসুম, নজরুল ইসলাম প্রিন্স, সুনিল শুল্ক বৈদ্য, যুগ্ম সম্পাদক জামাল মিয়া, দিপু ধর, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরান আহমদ, জুবায়ের আহমদ জয়, জাবেদ হাসান আবদার, মাসুদ আহমেদ, ছাত্রলীগ নেতা মির্জা গিয়াস, রাজু আহমদ খান, আবদুল মুকিদ সুমন, মাছুম আহমদ, শামীম আহমদ, মহসিনুর রহমান, রুহেল আহমদ, ফাহিম আহমদ, কবির আহমদ, এনাম আহমদ, আক্তার হোসেন শেখ, নাসির উদ্দিন, সবুর আহমদ, কয়েছ আহমদ, শিপন আহমদ, জুয়েল আহমদ, বিশ্বনাথ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা কামরুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম রুকন, পরিমল বৈদ্য, মাছুম আহমদ, মিয়াদ আহমদ, এস এম জুয়েল, আবিদুর রহমান আবিদ, আফরাফ উদ্দিন, সৌরভ বৈদ্য, অমিত দে, মিল্টন দাশ, ইকবাল হোসেন, জাকির হোসেন মামুন, ইমরান আহমদ প্রমুখ।

 

Related posts