September 20, 2018

জবির আন্দোলন যৌক্তিক বলে মনে ক‌রেছেন শিক্ষামন্ত্রী!

ঢাকাঃ শিক্ষামন্ত্রী নরুল ইসলাম নাহিদের বরাত দিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান ব‌লেছেন, ‘আবাসন সংকট নিরসনের দাবিতে জবি শিক্ষার্থী‌দের আন্দোলন যৌক্তিক বলে মনে ক‌রেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।’

বুধবার (২৪ আগস্ট) বিকেল ৪টার দি‌কে জবি উপাচার্যের ভাড়া বাসায় জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্য দেন উপাচার্য।

জবি উপাচার্য সাংবাদিকদের বলেন, ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক সময়ের পরিস্থিতি নিয়ে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সচিবলায়ে আমার সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর জরুরি সভা হয়। সভায় আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়টির সমস্যা সমাধানের কী করণীয় তা মন্ত্রীকে অবহিত করা হয়।’

‌তি‌নি আরও ব‌লেন, ‘মন্ত্রী আমাকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আবাসন সমস্যা সমাধানে সরকার সচেষ্ট।’

এ সময় উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ে সামগ্রিক চলমান উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে ব‌লেন, ‘জ‌বি‌তে ছাত্রী‌দের জন্য এক হাজার আসন বি‌শিষ্ট বঙ্গমাতা ফ‌জিলাতু‌ন্নেছা মু‌জিব হল হ‌চ্ছে। নতুন ভব‌নের ৭ তলা থে‌কে ১৩ তলার উ‌ন্নীতকর‌ণে ঊর্ধ্বমুখি সম্প্রসারণ কাজ চল‌ছে।’

‌তি‌নি সাংবা‌দিক‌দের ব‌লেন, ‘ছাত্রী হ‌লের কাজ ২০১৪ সা‌লের ডি‌সেম্বর মা‌সে এবং নতুন ভব‌নের ঊর্ধ্বমুখি সম্প্রসারণ ২০১৫ সা‌লের ফেব্রয়ারি মা‌সের শে‌ষের দি‌কে শুরু হয়। শিক্ষার্থীরা ম‌নে ক‌রেন অনেক আগে এ কাজগু‌লো শুরু হ‌য়ে‌ছে। আস‌লে এ কাজ ঘো‌ষিত সম‌য়ের আগে শুরু করা হয়নি।’

‌তি‌নি আরও ব‌লেন, ‘ছাত্রী হলের কাজ আরও তাড়াতা‌ড়ি এগো‌তে পার‌তো। পা‌রেনি। কারণ, এখা‌নে পর্যাপ্ত জায়গার অভাব র‌য়ে‌ছে। কাজ করার জন্য যে জায়গা দরকার তা ছিল না। প্রথম তলার ছাদ ঢালা কাজ শেষ হ‌লেই বা‌কি কাজ দ্রুত শেষ হ‌বে।’

সংবাদ স‌ম্মেল‌নে ভি‌সি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আসু প্রায় পৌনে তিনশ কোটি টাকার নতুন একটি প্রকল্পের বিষয় তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে কেরানীগঞ্জের বঙ্গবন্ধুর না‌মে হল নির্মাণ করা। পুরাতন বিজ্ঞান ভবন ভেঙ্গে নতুন বিশ তলা বিজ্ঞান ভবন করা।’

জেলখানা চে‌য়ে শিক্ষার্থী‌দের যে দা‌বি এ বিষ‌য়ে জান‌তে চাই‌লে ভি‌সি ব‌লেন, ‘সরকারিভা‌বে আমি যতটুকু জা‌নি, সরকার এখ‌নও জেলখানা নি‌য়ে কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি।’

এ সময় তি‌নি ব‌লেন, ‘পূর্বাচল সি‌টি‌তে ৫০ একর জ‌মির জন্য ১৫ লাখ টাকা দি‌য়ে আবেদন করা হ‌য়ে‌ছে। সেখা‌নে সরকার আমা‌দের অগ্রা‌ধিকার দে‌বে ব‌লে আশ্বাস দি‌য়ে‌ছেন।’

Related posts