September 22, 2018

জন্মবার্ষিকী পালন করলো লেবানন বিএনপি

Untitled-1

বাবু সাহা, লেবাননঃ স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮০ তম জন্মদিন পালন করলো বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটি, লেবানন।জন্মবার্ষিকী পালিত হয়েছে লেবাননের আইন আল রোমানী এলাকায় আবস্থিত বাবু ইস্ট হোটেলে ২৪ জানুয়ারী রবিবার স্থানীয় সময় দুপুর ৩.০০ ঘটিকায়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটি, লেবানন এর সভাপতি মানিক মোল্লা, প্রধান অতিথি ছিলেন, বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটি, লেবানন এর নীতি নির্ধারনী ফোরাম এর সদস্য মোঃ রুহুল আমিন, বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম মজুমদার, সহ-সাধারন সম্পাদক মোঃ মজিবুল হক, দপ্তর সম্পাদক ওয়াসিম আকরাম, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোঃ জাকির হোসেন। প্রধান বক্তা ছিলেন, যুবদল এর ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মোঃ জসিম সরকার।

অনুষ্ঠানে আলোচ্য বিষয় বস্তুর মধ্যে ছিল, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮০ তম জন্মদিন পালন, আরাফাত রহমান কোকোর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী ও বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য প্রয়াত প্রকোশলী আব্দুল গণির আত্মার মাগফেরাত কামনা।শুরুতেই কোরান তেলওয়াত করেন, তরুন উদীয়মান বক্তা ও কামিল মোঃ সারোয়ার বিন হোসাইনি।

সভাপতি মানিক মোল্লা তাঁর বক্তৃতায় বলেন,জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের ইতিহাসে এক ক্ষনজন্মা রাষ্ট্রনায়ক। নানা কারণে তিনি বাংলাদেশের জাতীয় ইতিহাসের গুরুত্বপূর্ণ ও গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায়ে স্থান করে নিয়েছেন। তার সততা, নিষ্ঠা, গভীর দেশপ্রেম,পরিশ্রমপ্রিয়তা, নেতৃত্বের দৃঢ়তা প্রভৃতি গুণাবলি এ দেশের গণমানুষের হৃদয়কে স্পর্শ করেছিল। তিনি ছিলেন একজন পেশাদার সৈনিক ও রাষ্ট্রনায়ক।তিনি বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ জাতি-ধর্ম-বর্ণ-লিঙ্গ-সংস্কৃতি নির্বিশেষে সকল নাগরিকের ঐক্য ও সংহতির ওপর গুরুত্ত্ব আরোপ করেন। নির্বাচন ব্যবস্থা পুনর্বহাল এবং অবাধ রাজনৈতিক কর্মকান্ডের সুযোগ প্রদানের লক্ষ্যে জিয়াউর রহমান যত দ্রুত সম্ভব রাজনীতির গণতন্ত্রায়নে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। এর প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে তিনি বাংলাদেশ কৃষক-শ্রমিক আওয়ামী লীগের আমলে নিষিদ্ধ ঘোষিত রাজনৈতিক দলগুলিকে তাদের কার্যক্রম পুনরুজ্জীবিত করতে পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। এইভাবে, তিনি সংবাদপত্রের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেন, সংবাদপত্রের মাধ্যমে তথ্যের অবাধ প্রবাহ পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেন।দেশে কৃষি বিপ্লব, গণশিক্ষা বিপ্লব ও শিল্প উৎপাদনে বিপ্লব ও সেচ ব্যবস্থা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে স্বেচ্ছাশ্রম ও সরকারী সহায়তার সমন্বয় ঘটিয়ে ১৪০০ খাল খনন ও পুনর্খনন করেন।তিনি বর্তমান জুলুমবাজ সরকার দ্বারা তার দলের নেতা কর্মীদের উপর চালানো নির্যাতন, হত্যা, গুম সহ বিভিন্ন কর্মকান্ডের তীব্র সমালোচনা করেন।

আরো বক্তব্য রাখেন, মোঃ ইকবাল মিয়া, মোঃ জাহাঙ্গীর, মিন্টু মাল, মোঃ মিজান, যুবদল দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রহিম ও সাহাবউল্লা আটিয়া।উপস্থিত ছিলেন, লেবানন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটি ও শাখা কমিটির নেতৃবৃন্দ সহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী।

আলোচনা সভা শেষে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান, আরাফাত রহমান কোকো ও প্রয়াত প্রকোশলী আব্দুল গণির রোহের মাগফেরাত এবং দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান সহ সমগ্র মুসলিম উম্মদের সুস্বাস্থ্য-দীর্ঘায়ু কামনা করে মোনাজাত করা হয়।সবশেষে লেবানন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটি ও শাখা কমিটির নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে কেক কেটে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮০ তম জন্মদিন পালন সম্পন্ন করে।

Related posts