November 19, 2018

‘জঙ্গি মতিয়ারের মামা আ’লীগের রাজনীতির সাথে জড়িতঃ পুলিশ সুপার

ঢাকাঃ রাজধানীর কল্যাণপুরে জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৯ জঙ্গির মধ্যে মতিরার রহমানের বাড়ী সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ওমরপুর গ্রামে। তার বাবার নাম নাসির উদ্দিন।

নিহত মতিয়ার রহমান রাজধানী ঢাকায় পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। সে তার মামার বাড়িতে মাঝে মাঝে আসা যাওয়া করতো। তার বাবা মায়ের বিবাহ বিচ্চেদ হওয়ার পর থেকেই তার মামা আব্দুল গাফ্ফার দেখাশুনা করতেন।

সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন জানিয়েছেন, তার মামা স্থানীয় আ’লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। এঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মতিয়ারের মামা আব্দুল গফফারকে পাটকেলঘাটা থানা পুলিশ আটক করেছে। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় র‌্যাব ও পুলিশের একাধিক টিম জঙ্গি মতিয়ারের মামার বাড়ি থেকে তার মামাকে আটক করেন।

তালা উপজেলার পাটকেরঘাটা থানার ধানদিয়া ইউনিয়নের ওমরপুর গ্রামের মতিয়ার রহমান ৪ বছর বয়সে মায়ের হাত ধরে তার বাবা নাসিরউদ্দীনের বাড়ী থেকে বেরিয়ে আশ্রয় নেন নানান বাড়ী কাটাখালি-ধানদিয়া গ্রামে। তার মা খায়রুন্নেছার সঙ্গে তার বাবার বনিবনা না হওয়ায় দুই বছর বয়সে মায়ের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে।

ওমরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেনী পর্যন্ত লেখাপড়া করে মতিয়ার রহমান মামাদের সাথে তরকারির ব্যবসা, কখনও কসাই এর কাজ করত (মাংস ব্যবসায়ী)। আবার কখনও সে ডাবের ব্যবসা করে জিবিকা নির্বাহ করতো।

গ্রামপুলিশ আব্দুল মজিদ জানান, জঙ্গি হিসেবে মতিয়ার রহমানের নিহতের খবরে হতবাক হয়েছে এলাকার মানুষ। অভাব অনটনে ছোট বেলা থেকে বেড়ে উঠা এমনকি মা-বাবার আদর-যত্ন না পাওয়া মতিয়ার জঙ্গি হওয়ার খবরে এলাকার মানুষ হতবাক হয়েছে।

ধানদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, মতিয়ারের মা খায়রুন্নেছার সঙ্গে নাসিরউদ্দীনের বিবাহ বিচ্ছেদের তার নানার বাড়িতেই থাকছে। মতিয়ার রহমান পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত পড়েছে ওমরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ছোট বেলা থেকে মতিয়ার রহমান ছিল ধর্মীয় মনোভাবাপন্ন।

তার বাবা নাসিরউদ্দীন ৪ টি বিয়ে করেছেন এবং মা খায়রুন্নেছারও একাধিক বিয়ে করেছেন। মতিয়ারের মা খায়রুন্নেছা দুবাইতে গেছেন গৃহ পরিচারিকার কাজে। মতিয়ার রহমান ১২ বছর বয়সে ঢাকার গাজীপুরে গিয়ে একটি গার্মেন্সে চাকরী করত। দুই বছর আগে একবার বাড়ীতে নাসিরউদ্দীনের বাড়ীতে আসে। ৩ দিন থেকে সে আবার বাড়ী থেকে ঢাকায় চলে যায়। এলাকার মানুষ তাকে গার্মেন্সকর্মী হিসেবে জানে। তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, তিনি খবর পেয়ে রাতে ঘটনাস্থলে গেছেন খোজ খবর নিয়ে পরে তথ্য দিতে পারবেন বলে জানান।

পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন সাংবাদিক বলেন, কল্যাণপুরের নিহত জঙ্গির মধ্যে মতিয়ারের বাড়ি সাতক্ষীরাতে। তার বাবা বিএনপির সমর্থক। তার বয়স যখন যখন ৩/৪ বছর তখন তার বাবা মায়ের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। ওর মামারা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মতিয়ারের মামা আব্দুল গফফারকে পাটকেলঘাটা থানা পুলিশ আটক করেছে বলে জানান তিনি।

Related posts