September 20, 2018

ছেলেসহ মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী গ্রেফতার

ঢাকাঃ  যৌতুকের জন্য পুত্রবধূকে নির্যাতনের মামলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী রোকেয়া বেগম (৪৮) ও তার ছেলে আরাফাত আলম ভূঁইয়া ওরফে রাজীবকে (২৮)  গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার বিকালে উপজেলার কালিকচ্ছ দত্তপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে তাদের গ্রেফতার করে সরাইল থানা পুলিশ। এর আগে আরাফাত আলম ভূঁইয়া ওরফে রাজীবের স্ত্রী  মোছা. শারমীন সুলতানা যৌতুকের জন্য নির্যাতনের অভিযোগে সরাইল থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। মামলায় স্বামী রাজীব ও শাশুড়ি রোকেয়া বেগমকে আসামি করা হয়। মামলায় বলা হয়, ২০১২ সালের ১৪ জানুয়ারি ছয় লাখ টাকা  দেনমোহরে শারমীনের সঙ্গে রাজীবের বিয়ে হয়। বিয়ের সময়  যৌতুক হিসেবে একটি মোটরসাইকেল ও ৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কারসহ  বেশকিছু আসবাবপত্র দেওয়া হয়।

পরে মোটরসাইকেল ও স্বর্ণালঙ্কার বিক্রি করে বিদেশে পাড়ি জমান রাজীব। এরপর রাজীবের মা রোকেয়া বেগম বিভিন্ন সময় শারমীনের কাছে যৌতুকের টাকা দাবি করতে থাকেন। এর জন্য শারমীনকে বিভিন্ন সময় মারধর করে বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এ অবস্থায় গত ৫ জুলাই রাজীব বিদেশ থেকে দেশে ফিরে আসেন। এরপর গত ১৪ জুলাই তিন লাখ টাকা দাবি করে না পেয়ে রাজীব তাকে মারধর করে বাপের বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। এ ঘটনায় ১৬ জুলাই সরাইল থানায় মামলা করেন শারমীন। গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুন নাহারের আদালতে গ্রেফতার মা-ছেলের জামিনের আবেদন করা হয়। আদালত রোকেয়াকে জামিন দেয়। আর তার ছেলেকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।বিডি প্রতিদিন

Related posts