November 13, 2018

ছেলে,মেয়ের বিরুদ্ধে মামলা করলেন ৮৫ বছরের বৃদ্ধ মা!

ছেলে,মেয়ের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করলেন ৮৫ বছরের একজন বিধবা বৃদ্ধ মা

এ কে আজাদ,চাঁদপুরঃ চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার ব্রাক্ষনী ছোঁয়া এলাকায় ভরন পোষণ না পেয়ে এবং বিভিন ভাবে বিভিন্ন সময় নির্যাতনের শিকার হয়ে ছেলে,ছেলের স্ত্রী ও ২ মেয়ের বিরুদ্ধে চাঁদপুর আদালতে মামলা করলেন ৮৫ বছরের একজন বিধবা বৃদ্ধ মা। মানবেতর জীবন যাপন ও নির্যাতনের শিকার হয়ে পিতা-মাতার ভরন পোষণ আইন ২০১৩ইং এর ৫(১)(২)তৎসহ দন্ড বিধি ৩২৩/৫০৬(২)/৩৪ ধারায় তিনি সন্তানদের বিরুদ্ধে আদালতে এ মামলা করেন। যার নং- সিআর ২৯৮/১৫

মামলা সূত্রে জানা যায়, কোন রকমে চলতে পারা ৮৫ বছরের বিধবা বৃদ্ধ মহিলা মোসাঃ রাহিমা খাতুন প্রায় আড়াই যুগ পূর্বে ৪ ছেলে ও ৩ মেয়ে সন্তান রেখে তার স্বামী আলী আহাম্মদ খন্দকার মৃত্যু বরণ করেন। বড় সংসারের অভাব অনটনের কারনে তার স্বামী আলী আহাম্মদ মৃত্যুকালে বহু টাকা ঋনি ছিলেন। পরে তিনি সন্তানদের অসহযোগিতার কারনে স্বামীর রেখে যাওয়া কিছু সম্পত্তি বিক্রি করে দেনার দায় মুক্তি করেন। এছাড়া ধার দেনা করে তিনি তার ছোট মেয়েকে বিয়ে দেন। কিন্তু তার বড় ছেলে মা রাহিমা খাতুনকে হাত করে তার মেঝো ছেলেকে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে সম্পত্তি বিক্রি করে ৮০ হাজার টাকা নেয়।

এরই মাঝে রাহিমা খাতুনের বয়স বাড়ার সাথে সাথে নিয়মিত ভরন পোষণের অভাবে অসহায় হয়ে পড়েন। তার সন্তানেরা তাকে রীতিমত ভরন পোষণ ও ওষুধ পত্র দেন না। এছাড়া খোজ খবর নেওয়া বন্দ করে দেন। এক কথায় তিনি দীর্ঘ দিন যাবত ভাত কাপড় ও ওষুধে ভিষন কষ্ঠের মাঝে বেঁচে আছেন। এরই মাঝে ছেলে, মেয়ে ও বউ মিলে গত ২০ নভেম্বর তার উপর অমানষিক নির্যাতন চালানো হয়। তাই তিনি ভরন পোষণ আইনে তাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেন। মামলাটি পরিচালনা করছেন এ্যাডঃ মনির হোসেন।

বৃদ্ধ বিধবা রাহিমা খাতুন আরো অভিযোগ করেন, অসহায়ত্বের কারনে তিনি তার বড় ছেলের নাতিকে দেওয়া ৮০ হাজার টাকা ফেরত চাইলে তার ছেলে মোঃ মজিবুর রহমান, স্ত্রী ফাতেমা বেগম, বোন শামছুন্নাহার খুকি ও পারুল বেগমকে নিজের আয়ত্বে নিয়ে মা রাহিমা বেগমকে নির্যাতন করেন। তাকে ভরন পোষণ দেওয়া ছেলে নজরুলকে তারা মেরে ফেলার হুমকি দমকি দিচ্ছে। এছাড়া মা রাহিমা খাতুনের নামে থাকা সম্পত্তি তাদের নামে লিখে দেওয়ার জন্য ভীষণ চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। এতে তিনি অসহায়ত্বের কারনে ভীষণ মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

সূত্রমতে আরো জানা যায়, বিধবা বৃদ্ধ মহিলা রাহিমা খাতুন ভরন পোষণ না পেয়ে এবং বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়ে ৫/৬ বছর আগে হাজীগঞ্জ জিআর ১০৩/১০ইং দন্ড বিধি ৩২৩/৩২৪//৩০৭/৩৭৯/৫০৬(২)/৩৪ধারায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে ভরন পোষণ করা শর্তে ক্ষমা চেয়ে ঐ মামলা থেকে অব্যাহতি পান। এর পর থেকে তারা পুনরায় তাকে ভরন পোষণ না দিয়ে বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করে আসছে। তাই তিনি উপায়ন্ত না পেয়ে পুনরায় আদালতে ভরন পোষনের আর একটি মামলা করেন। বর্তমানে বৃদ্ধ বিধবা রাহিমা খাতুন অসহায়ত্বে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts