November 21, 2018

ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো পুলিশ!

ঢাকাঃ  কেন্দ্র দখল করে জাল ভোট দেয়ার চেষ্টাকালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শামছুজ্জামান তুহিন পুলিশের পিটুনিতে আহত হয়েছেন। তাকে উদ্ধারের পর শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহত তুহিনের বাবার নাম সেকান্দার আলী মোল্লা। বসন্তপুর গ্রামে তাদের বাড়ি। তার বাবা ত্রিবেনী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বিন্দিতা করছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আজ শনিবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে শৈলকুপার ত্রিবেনী ইউনিয়নের বসন্তপুর ভোট কেন্দ্রে অবৈধ প্রবেশের জন্য ছাত্রলীগ নেতা শামছুজ্জামান তুহিন দলীয় লোকজন নিয়ে জটলা করতে থাকে। এসময় পুলিশ তাকে বাধা প্রদানের চেষ্টা করলে তিনি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এক পর্যায়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি হেড কোয়াটার) শাহাবুদ্দীন আহম্মেদকে কটাক্ষ করে তুহিন কথা বলতে থাকলে পুলিশ সদস্যরা তাকে নিবৃত্ত করার চেষ্টা করে। কিন্তু তিনি বসন্তপুর ভোট কেন্দ্রের ভিতরে প্রবশে করার সিদ্ধান্তে অনড় থাকলে পুলিশ তুহিনসহ তার বাবার সমর্থকদের লাঠি পেটা করে ছত্র ভঙ্গ করে দেন। পুলিশের লাঠিপেটায় ছাত্রলীগ নেতা তুহিন মাথা ও হাতে আঘাত পান।

শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ রাকিব জানান, তুহিনকে সাড়ে ৫টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার মাথা ও ডান হাতে আঘাত লেগেছে।

ঝিনাইদহের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি হেড কোয়াটার) শাহাবুদ্দীন আহম্মেদ জানান, ভোট চলার সময় বসন্তপুর কেন্দ্রের বাইরে কিছু মানুষ বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের প্রতিহত করে। শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম জানান, এমন ঘটনা তিনি শুনেছেন। তবে বিস্তারিত কিছুই জানেন না বলে জানান তিনি।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ৫ মে ২০১৬

Related posts