September 20, 2018

‘চোখে দেখা ও স্পর্শের অনুভূতি অন্যরকম’

111

ঢাকাঃ  যতই ই-বুক আসুক, কাগজের বইয়ের আবেদন কখনওই কমবে না বলে মনে করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন, কাগজের বই চোখে দেখা ও স্পর্শের অনুভূতি অন্যরকম।

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণের নজরুল মঞ্চে তথ্য-প্রযুক্তি সচিব শ্যামসুন্দর সিকদারের প্রকাশিত তিনটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন শেষে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

বই তিনটি হলো- ‘মেঘে মেঘে বিজলির চমক’, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ : রূপকল্পের অন্তরূপ’ ও  ‘ভালোবাসার ১০০ কবিতা’

তিনি বলেন, ‘এখন অনলাইনেও বই পড়ার আগ্রহ মানুষের মধ্যে তৈরি হয়েছে। আর ছাপার বই পড়ার আগ্রহ তো রয়েছেই। এসব কিছুতে তথ্য-প্রযুক্তিকে ব্যবহার করতে চাই। এছাড়া ইন্টারনেটে আমাদের বেশি বেশি বাংলা কনটেন্ট দরকার। যারা এ সংশ্লিষ্ট কাজে নিয়োজিত বা জড়িত তাদের বেশি বেশি লেখার আহ্বান জানাচ্ছি। এতে করে ইন্টারনেটে বাংলা কনটেন্ট বাড়বে। গুগলে সার্চ দিলে বাংলা ভাষায় তথ্যসম্ভার বাড়বে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ইন্টারনেটে বাংলায় কনটেন্টের অভাবের কারণে পাঠকরা বিদেশি ভাষার প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছে বলে মনে করেন পলক। তিনি বলেন,  এর জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে। বাংলা একাডেমিকে সাথে নিয়ে ডিজিটাল আর্কাইভিং করা হবে। মানুষ বাংলা ভাষায় পড়তে আগ্রহী, কিন্তু ইন্টারনেটে সার্চ করলেই দেখা যায় বাংলার চাইতে ইংরেজিতে কনটেন্ট বেশি।’

বইমেলায় এসে প্রতিমন্ত্রী পলকের চোখেমুখেও উচ্ছ্বাস দেখা গেছে। তিনি বলেন, ‘প্রতিবছর মেলার পরিসর বাড়ছে। মানুষের আগমনও বাড়ছে।’ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় তরুণরা উজ্জীবিত হয়ে জঙ্গিবাদকে মোকাবেলা করবে, এ আশাবাদ তার।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক শিক্ষা সচিব নজরুল ইসলাম খান, বই তিনটির প্রকাশক ও অন্যরা।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts